কাঁঠাল চাষে বাড়ছে উৎসাহ ও লাভ

Monday, 18 February 2019 12:55 PM
কাঁঠাল ফল

কাঁঠাল ফল

কাঁঠাল এই ফলের সাথে কৃষক ও সাধারণ মানুষ সবাই প্রায় অল্প-বিস্তর পরিচিত। এই কাঁঠাল আমরা তরকারি করে, আচার করে, ফল হিসেবে, আর না জানি কতভাবে ব্যবহার করে থাকি। এই খবরের মাধ্যমে আমি আপনাদের কাঁঠাল ও এর চাষের সাথে জুড়ে থাকা কৃষকদের জীবনকাহিনী বলতে চলেছি। আসুন দেখে নিই যে কাঁঠাল কৃষকদের জীবনে কীভাবে সমস্যার সমাধান করে থাকে।

শুধু সবজি হিসেবে করবেন না কাঁঠালের চাষ

কৃষকভাইদের উদ্দেশ্যে বলি যে শুধু সবজি হিসেবে কাঁঠাল চাষ করবেন না। এখন কাঁঠাল ব্যবহার শুধু সবজি হিসেবেই নয় বরং আচার ও ঔষধের উৎপাদনেও কাঁঠাল প্রচুর পরিমানে ব্যবহার হয়ে থাকে। দেশী ও বিদেশী বহু কোম্পানি আছে যারা সরাসরি কাঁঠাল চাষীদের কাছ থেকে কাঁঠাল কিনে নিচ্ছে, কিন্তু কৃষকদের এই কথাটি মাথায় রাখতে হবে যে কোন কোন কোম্পানি তাঁদের কাছ থেকে সরাসরি মাল কিনবে, সেই কোম্পানির ব্যবসায়ীক পরিধি কতটা ইত্যাদি। এই সব কোম্পানিগুলি শুধু তাঁদের কাছ থেকেই কাঁঠাল কিনবে যাদের ৫ থেকে ৬ একর জমি রয়েছে, এবং যারা কয়েকবছরের জন্য নয়, বেশ লম্বা সময়ের জন্য তাঁদের জমি কাঁঠাল চাষের জন্য নিয়োগ করবে।

খুব চলছে বাজারে কাঁঠালের আচার

আচার আমাদের দেশের এক এমন প্রিয় খাবার যার চাহিদা কোনোদিনই শেষ হবার নয়, তাই আচারের ব্যবসা খুবই রমরমা চলছে। এই কারণে কাঁঠালের উৎপাদন আজ কৃষকদের মুনাফা দিতে চলেছে। ভারতে এখন আম, লেবু, লঙ্কা, গাজর, মূলো আরও কত কি বস্তু দিয়ে আচার বানানো হয়, কিন্তু কাঁঠালের আচার মানুষের কাছে খুবই তাড়াতাড়ি জনপ্রিয় হয়েছে। মানুষ এখন কাঁঠালের আচার খুবই পছন্দ করছে, কারণ কাঁঠালের নিজস্ব কোনো স্বাদ হয় না, তাই কেউ নিজের পছন্দ মত স্বাদ প্রদান করতে পারেন। এমনই অনেক কোম্পানি আছে যারা এই নতুন ধরণের আচার বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা লাভ করছে এবং তাঁরা তাঁদের ব্যবসা দেশের বাজার ছাড়িয়ে বিদেশেও ছড়িয়েছে। এই কারণে কোম্পানীগুলি উন্নত মানের কাঁঠাল উৎপাদক কৃষকদের সাথে চুক্তি করতে চায়, যাতে এই কৃষক ঐ নির্দিষ্ট কৃষকরা ঐ চুক্তিবদ্ধ কোম্পানিকে তাঁর উৎপাদিত কাঁঠাল বিক্রয় করতে সক্ষম হয়।

আয়ুর্বেদিক কোম্পানিরা খুঁজছে কাঁঠাল চাষিদের

গত কয়েকবছরের মধ্যে আয়ুর্বেদিক ঔষধের চাহিদা অনেকটা বৃদ্ধি পেয়েছে। মানুষ এখন এ্যালোপ্যাথী আর হোমিওপ্যাথীর তুলনায় আয়ুর্বেদিক ঔষধের ওপর বেশী বিশ্বাস করছে। মাথা থেকে পায়ের নখ পর্যন্ত দেহের বিভিন্ন সমস্যার জন্য রয়েছে আয়ুর্বেদিক সমাধান। পেটের সমস্যা সমাধানের জন্য কাঁঠালের জুড়ি মেলা ভার, কারণ কাঁঠালের মধ্যে অবস্থিত ফাইবার ও অন্যান্য জৈব-রাসায়নিক পদার্থগুলি পেটের রোগের খুব দ্রুত উপশম ঘটায়। আয়ুর্বেদিক কোম্পানি কাঁঠাল সিরাপ ও কাঁঠাল টেবলেট বানিয়েছে এবং পেটের রোগীদের এই ঔষধের ব্যবহারের উপদেশ দিয়েছিলেন। মানুষের মধ্যে আয়ুর্বেদিক ঔষধের জনপ্রিয়তা বাড়বার কারণ হলো এই ধরণের ঔষধের কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই, এবং এই ঔষধ রোগকে একদম সমূলে শেষ করে দেয়। কাঁঠালের এতটাই উপযোগীতা রয়েছে, যে এই সব কোম্পানিগুলি ভালো গুণবত্তাবিশিষ্ট উৎপাদকদের খুঁজে বেড়াচ্ছে।

- প্রদীপ পাল (pradip@krishijagran.com)



Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online

Download Krishi Jagran Mobile App

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.