অহেতুক কীটনাশকের ব্যবহার কমাতে পরিবেশ বান্ধব ফাঁদ চাষিভাইদের প্রথম পছন্দ

Wednesday, 08 May 2019 01:19 PM

সবজির ক্ষেত্রে বেগুন হল চাহিদার বাজারে সেরা সবজি। কিন্তু এই বেগুন চাষে ডাটা ও ফল ছিদ্রকারী পোকার উৎপাতে চাষিদের নাজেহাল অবস্থা। তারা বাস্তব ক্ষেত্রে এই কীটের আক্রমণ রুখতে না পেরে প্রায় ২/৩ দিন অন্তর কীটনাশক স্প্রে করে থাকেন। ফলে নিটোল চকচকে লোভনীয় বেগুনের মধ্যে কি পরিমান বিষ থাকে তা সহজেই অনুমান করা যায়। ডাঁটা ও ফল ছিদ্রকারী পোকার ক্ষেত্রে এটি ‘Monophagous’ হওয়ায় বিভিন্ন কীটনাশক কোম্পানী একের পর এক নতুন মলিক্যুল ব্যবহারে আনলেও চাষিদের অতিরিক্ত ব্যবহারে অল্পকিছুদিনের মধ্যেই পোকার মধ্যে ‘Pesticide Resistance’ গড়ে তুলেছে। ফলে আবার বেশী দামের নতুন কীটনাশক বারবার প্রয়োগ করতে হচ্ছে।

বর্তমানে কৃষি গবেষণা এরিয়ান ইনডাসট্রি সোলার প্যানেলযুক্ত ফেরোমোন ফাঁদ বাজারে নিয়ে এসেছে যা ঐ পোকার পূর্ণাঙ্গ মথকে আকৃষ্ট করে। এই ফাঁদের গঠনে একটি পাত্রের উপর দুটি প্রকোষ্ঠে বেগুনের ডাঁটা ও ফলছিদ্রকারী পুরুষ পোকাকে আকৃষ্ট করার ফেরোমোন ট্যাবলেট থাকে। রাতেও ফাঁদটিকে কার্যকরী করে স্ত্রী ও পুরুষ উভয় পোকাকেই আলো দিয়ে আকৃষ্ট করে। পাত্রটিতে কিছুটা কীটনাশক মেশানো জল বা কেরোসিন রাখলে পূর্ণাঙ্গ পোকাগুলি তাতে পড়ে মারা যাবে। সকালে সোলার প্যানেলের সাহায্যে ছোট ব্যাটারী চার্জ হয়ে রাতে জ্বলতে থাকে। বেশীরভাগ ক্ষতিকারক কীটের মতই বেগুনের এই পোকার পূর্ণাঙ্গ মথ রাতে সক্রিয়( Nocturnal) ফলে পোকাকে হাতে ও ভাতে দু’ভাবেই মেরে পরিবেশ বান্ধব প্রযুক্তি আজ বিপ্লব এনে ফেলেছে।

পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় এরিয়ান ইনডাসট্রি তাদের ডিস্ট্রিবিউটর ও প্রতিনিধি দ্বারা ও সরকারী ব্যবস্থাপনায় গড়ে ওঠা ফার্মার্স প্রডুসার কোম্পানীগুলি দ্বারা এই ফাঁদের সফল বিপনন করছে। প্রয়োজনে কৃষি জাগরণের সহযোগী / অ্যাসোসিয়েটদের সঙ্গেও যোগাযোগ করতে পারেন চাষি ও উদ্যোগীরা।

রুনা নাথ(runa@krishijagran.com)



Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online

Download Krishi Jagran Mobile App

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.