বাণিজ্যিক উপায়ে পেঁপে চাষ করে অধিক আয় করুন

Tuesday, 31 July 2018 01:48 PM

বাণিজ্যিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে পেঁপে চাষের পরামর্শ দিচ্ছে কৃষি দপ্তর। কৃষি দপ্তরের পরামর্শ অনুযায়ী এক বিঘা জমিতে চাষের জন্য ৪০ থেকে ৫০ গ্রাম পেঁপে বীজ প্রয়োজন। প্রতি কেজি বীজে তিন গ্রাম ম্যানকোজেব বা দুই গ্রাম ক্যাপটান অথবা থাইরাম জাতীয় ওষুধ মিলিয়ে মুখবন্ধ পাত্রে ১৫-২০ মিনিট ঝাঁকিয়ে বীজ শোধন ধরা প্রয়োজন। মার্চ-এপ্রিল থেকে জুন মাস পর্যন্ত এই চাষের শ্রেষ্ঠ সময়। চারা বসানোর ৪৪ দিন আগে বীজতলায় বীজ বোনা উচিত। বীজতলায় তিন-চার ইঞ্চি ব্যবধানে এক ইঞ্চি গভীর করে সারি টানতে হবে। প্রতি সারিতে এক-দুই ইঞ্চি দূরত্বে বীজ বুনে হালকা ঝুরঝুরে গুঁড়ো মাটি দিয়ে চাপা দেওয়া দরকার। তারপর খড় দিয়ে বীজতলা ঢাকা দিতে হবে।

কৃষি বিশেষজ্ঞরা বললেন, চারা বসাবার এক মাস আগে ছয় ইঞ্চি বাই ছয় ইঞ্চি দূরত্বে দেড় ফুট লম্বা দেড় ফুট চওড়া এবং দেড় ফুট গভীর গর্ত তৈরি করতে হবে। প্রতি গর্তে ১৫-২০ কেজি গোবর সার এবং দুই কেজি হাড় গুঁড়ো সার মাটির সঙ্গে মিলিয়ে গর্ত ভরতি করতে হবে। চারা বসানোর এবং সার প্রয়োগের পরপরই জলসেচ জরুরি। নজর দিতে হবে যাতে গাছের গোড়ায় মাটি শুকিয়ে না যায় বা জল জমে কাদা না হয়। পেঁপের জমিতে জল দাঁড়ানো অবস্থা কখনই যেন না থাকে। পেঁপে গাছের বেশ কিছু সমস্যাও রয়েছে। যেমন লিঙ্গ সমস্যা, বীজ অঙ্কুরোদগম, ঝোড়ো হাওয়া, দীর্ঘমেয়াদি খরা, পাতার মোজাইক ও কুটে রোগ গোড়াপচা ও ঢলে পড়া, লাল মাকড় এবার রোগ পোকার সমস্যা। গোড়াপচা রোগের ক্ষেত্রে আক্রমণের প্রথম অবস্থা কপার অক্সিক্লোরাইড চার গ্রাম প্রতি লিটার জলে গুলে দুইতিনবার স্প্রে করতে হবে।

- Sushmita Kundu

English Summary: Pepe chash

আপনার সমর্থন প্রদর্শন করুন

প্রিয় অনুগ্রাহক, আমাদের পাঠক হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনার মতো পাঠকরা আমাদের কৃষি সাংবাদিকতা অগ্রগমনের অনুপ্রেরণা। গ্রামীণ ভারতের প্রতিটি কোণে কৃষক এবং অন্যান্য সকলের কাছে মানসম্পন্ন কৃষি সংবাদ বিতরণের জন্যে আমাদের আপনার সমর্থন দরকার। আপনার প্রতিটি অবদান আমাদের ভবিষ্যতের জন্য মূল্যবান।

এখনই অবদান রাখুন (Contribute Now)

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.