নতুন কনজিউমার প্রোটেকশন বিল অনুযায়ী বিভ্রান্তিকর বিজ্ঞাপনের জন্য কোম্পানীর সাজা

KJ Staff
KJ Staff

লোকসভায় পাশ হওয়া নতুন বিল ‘দ্য কনজিউমার প্রোটেকশন বিল ২০১৮’ অনুযায়ী বিজ্ঞাপনের দিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে কোনও পণ্য বিক্রি করলে প্রস্তুতকারক কোম্পানীর ১০ থেকে ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানা হবে। এই অপরাধ বারবার করতে থাকলে বা বিজ্ঞাপন বন্ধ না করলে হতে পারে দুই থেকে পাঁচ বছরের জেলও। কেন্দ্রীয়স্তরের সেন্ট্রাল কনজিউমার প্রোটেকশন অথরিটির কমিটি পরিস্থিতি বিচার বিবেচনা করে অপরাধিদের এই শাস্তি দিতে পারবে। গ্রাহকরা সেন্ট্রাল কনজিউমার প্রোটেকশন অথরিটিকে তাদের অভিযোগ জানাতে পারবেন। অনলাইনে ঘরে বসেও অভিযোগ জানানো যাবে।

সেলিব্রেটিরা যেসব পণ্যের প্রচারে বিজ্ঞপন করেন, তার বিরুদ্ধে যদি কোনওভাবে বিভ্রান্তিকর বা জালিয়াতির অভিযোগ প্রমাণিত হয়, তাহলে তাঁদেরও প্রস্তুতকারকদের মতোই একই অঙ্কের আর্থিক সাজা গুনতে হতে পারে। তবে তাঁদের জেলহাজতে যেতে হবে না। প্রস্তুতকারকদের আর্থিক জরিমানা ও জেলও হতে পারে, অথচ সেলিব্রেটিদের কড়া শাস্তিতে ছাড় পাবে  কারন, অনেকসময়  সেলিব্রেটিরা পণ্যটি খারাপ না ভালো তা বিবেচনা না করেই প্রচারে অংশ নেন। তাই পণ্যটি খারাপ হলে তার দায় তাঁদের ওপর চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে না।

কেন্দ্রীয় উপভোক্তা বিষয়কমন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ান বলেছেন - নতুন বিল অনুযায়ী এক কোটি টাকা পর্যন্ত কোনও পণ্য সংক্রান্ত অভিযোগের মামলা জেলা কনজিউমার ডিসপিউট রিড্রেসাল কমিশন বিচার করবে। এইভাবে ১ থেকে ১০ কোটি টাকা পর্যন্ত কোনও পণ্য সংক্রান্ত মামলার বিচারের ভার থাকবে রাজ্য কমিশনের ওপর। এবং ১০ কোটি টাকার বেশি হলে তা দেখবে জাতীয় কমিশন।

- রুনা নাথ (runa@krishijagran.com)

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters