জমিতে আগাছা জন্মানোর পরবর্তী কিছু আগাছানাশক

Thursday, 19 July 2018 12:48 PM

এই আগাছানাশকগুলি সাধারনতঃ ফসলক্ষেতে আগাছা জন্মানোর পরে প্রয়োগ করা হয়ে থাকে। এই আগাছানাশকের রাসায়নিক অনুগুলি কার্যকরী হতে গেলে তা অবশ্যই আগাছাদের মাটির উপরের অংশে থাকা বিভিন্ন ডালপালার (পাতার) মাধ্যমে শোষিত হতে হবে। স্বাভাবিকভাবেই জলে গুলে স্প্রে করা আগাছানাশক শুকনো ও দানাদার আগাছানাশক অপেক্ষা বেশী কার্যকরী। এই আগাছানাশকগুলি নির্বাচিত (Selective) এবং এদের ভালো কার্যকারীতার জন্য বুম লাগানো (Boom fitted) ২-৩টি ফ্ল্যাট ফ্যান নজল (Flat Fan Nozzle) স্প্রেয়ার দ্বারা ৪০০ - ৫০০ লিটার জলে গুলে প্রতি হেক্টরে স্প্রে করা উচিত। জমিতে আগাছাদের প্রকারভেদ অনুসারে নিম্নলিখিত আগাছানাশক প্রয়োগ করা যেতে পারে –

  1. বিসপাইরিবাক (নমিনি গোল্ড) – এটি ২৫ গ্রাম সক্রিয় উপাদান প্রতি হেক্টর এই মাত্রায় বীজ বোনার ১৫ - ২৫ দিন পর প্রয়োগ করলে তিন প্রকারের আগাছাদের (ঘাস জাতীয়, চওড়া পাতা জাতীয় ও মুথা জাতীয়) নিয়ন্ত্রণ করে। যদিও লেপ্টোক্লোয়া, এরাগ্রসটিস, ড্যাকটাইলোকটেনিয়াম এজেপটিয়াম এবং সাইপেরাস রোটান্ডাস এই সমস্ত আগাছাদের ক্ষেত্রে ততটা কার্যকরী নয়। এর দ্বারা ভালো আগাছা দমনের জন্য জমির মাটি জল দ্বারা সম্পৃক্ত থাকা প্রয়োজন।

        

  1. পেনোক্সুলাম – এই আগাছানাশকটি ২২.৫ গ্রাম সক্রিয় উপাদান প্রতি হেক্টর মাত্রায় ফসল বোনার ১৫ দিন পর প্রয়োগ করলে লেপ্টোক্লোয়া, এরাগ্রটিস, ড্যাকটাইলোকটেনিয়াম এজেপটিয়াম এবং সাইপেরাস রোটান্ডাস ছাড়া সমস্ত ধরনের আগাছাদের (ঘাস জাতীয়, চওড়া পাতা জাতীয় ও মুথা জাতীয়) নিয়ন্ত্রণ করে।
  2. ফেনোক্সাপ্রোপ (হুইপ সুপার) – ৬০ গ্রাম সক্রিয় উপাদান / হেক্টর হারে ফসল বোনার ২৫ দিন পর প্রয়োগ করলে লেপ্টোক্লোয়া, ড্যাকটাইলোকটেনিয়াম এজেপটিয়াম সমেত সমস্ত ঘাস জাতীয় আগাছাদের ক্ষেত্রে কার্যকরী হয়। কিন্তু সঠিক পদ্ধতিতে প্রয়োগ করা না হলে অথবা ধানের প্রাথমিক বৃদ্ধি দশায় প্রয়োগ করা হলে এটি প্রয়োগে ধানে বিষক্রিয়া দেখা যায়। ফেনোক্সাপ্রোপ ধানের জমিতে দূর্বা ঘাসের ক্ষেত্রেও কার্যকরী। তবে ফসল লাগানোর ১৫ দিন পর ধানের বৃদ্ধির প্রাথমিক পর্যায়ে একটি নতুন উপাদান (রাইস স্টার) প্রয়োগ খুব কার্যকরী।

        

  1. আজিম সালফিউরান – এটির ১৭.৫ গ্রাম সক্রিয় উপাদান / হেক্টর এই মাত্রায় প্রয়োগ করলে দূর্বা ঘাস ছাড়া মুথাসমেত সমস্ত চওড়াজাতীয় আগাছাদের মেরে ফেলা যায়। কিন্তু ঘাসজাতীয় আগাছাদের ক্ষেত্রে এটি ততটা কার্যকরী নয়। সেজন্য বিভিন্ন রকমের আগাছা জমিতে থাকলে এই আগাছানাশকের সাথে ঘাসজাতীয় আগাছা দমন করতে পারে এমন আগাছানাশক যেমন বিসপাইরিবাক বা পেনোক্সুলাম ট্যাঙ্কে  মিশিয়ে স্প্রে করতে হবে। ঘাস ছাড়াও চওড়া পাতাযুক্ত ও মুথা জাতীয় আগাছার প্রভাব  যেখানে বেশি সেখানে বিসপাইরিবাক + এজিম সালফিউরান (২৫ গ্রাম + ১৭.৫ গ্রাম সক্রিয় উপাদান / হেক্টর ) অথবা ফেনোক্সাপ্রোপ (রাইস্টার) + ইথক্সি সালফিউরান (সান রাইস)(৬০ + ১৮ গ্রাম  সক্রিয় উপাদান / হেক্টর ) ট্যাঙ্ক মিশ্রিত দ্রবন স্প্রে করলে ভালো কাজ হয়। আজিম সালফিউরান (১৭.৫ গ্রাম সক্রিয় উপাদান / হেক্টর)  অথবা  ইথক্সি সালফিউরান (সান রাইস) ফসল লাগানোর ১২ - ২০ দিন পর প্রয়োগ করলে  কেবলমাত্র  চওড়া পাতা যুক্ত  ও মুথাজাতীয় আগাছার প্রভাব যেখানে বেশি সেখানে ভালো ফল পাওয়া যায় ।
  2. ২, ৪ - ডি - চওড়া পাতাযুক্ত আগাছা দমনের ক্ষেত্রে ৫০০ গ্রাম সক্রিয় উপাদান / হেক্টর ২, ৪ - ডি আগাছানাশক খুব সক্রিয় । একবর্ষজীবী মুথা জাতীয় আগাছা যেমন ফিমব্রিস্টাইলিস মিলিয়েসিয়া বীজ বোনার ১০ - ৩০ দিন পর যখন অঙ্কুরোদ্গম হতে শুরু করে তখন ২, ৪ - ডাই ইথাইল এস্টার প্রয়োগে তা ভালোভাবে নিয়ন্ত্রিত হয়।

       

রুনা নাথ,

তথ্য সহায়তায় - 

ডঃ বেনুকর বিশ্বাস , 

শাওলী বৈদ্য ও মহফুজার রহমান।

Share your comments



Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online


Download Krishi Jagran Mobile App

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.