Native Cow Rearing: স্বল্প পুঁজিতে দেশি গরু পালনে অধিক উপার্জন করুন

রায়না ঘোষ
রায়না ঘোষ
Native cow rearing (image credit- Google)
Native cow rearing (image credit- Google)

দেশি জাতের গরু দিয়েই লাভজনক খামার ব্যবসা গড়ে তোলা যায় |  অনেক নতুন এবং তরুণ উদ্যোক্তা আছেন যারা গরু পালনে খুব উৎসাহী এবং গরুর খামার ব্যবসায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চান তাদের জন্য এই ব্যবসাটি হতে পারে প্রারম্ভিক অথবা বিশেষায়িত লাভজনক একটি ব্যবসা | তবে গ্রামে যাদের কৃষি জমি আছে এবং যারা যথেষ্ট কাঁচা ঘাসের জোগান দিতে পারবেন গরুকে তারা এই বাসাটি চোখ বন্ধ করে হাতে নিতে পারেন।

দেশি গরু পালন পদ্ধতি(Native cow raring process):

এই জন্য আপনাকে প্রথমে ৪/৫ টি দেশী গাভী কিনতে হবে যেগুলি ৩/৪ লিটার দুধ দেয় এবং তাদের ক্রয়মূল্য হবে সর্বোচ্চ ৩৫-৪৫ হাজারের মধ্যে। গাভীগুলি ২/৪/৬ দাঁত এই বয়সের হতে হবে। একটি সাদামাটা কিন্তু মজবুত গোয়ালঘর বা শেড তৈরী করতে হবে ৫০ হাজার টাকার মধ্যে এবং এই টাকায় ৪/৫ টা দেশী গাভী রাখা যায় এমন শেড অনায়াসেই করা যায়। দেশী গাভী গুলি যাতে বছর বিয়ানো হয় সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন। এই জাতীয় গাভীর দৈনিক সর্বোচ্চ ২ কেজি দানাদার খাদ্য লাগতে পারে। কোনোটা হয়তো একটু কম খাবে কোনোটা হয়তো একটু বেশী। তবে এদের পর্যাপ্ত ঘাস আর খড় দিতে হবে যেগুলি শ্রম আর কৃষিজ ফসল থেকেই পাওয়া যাবে অথবা ১ বিঘা জমিতে উন্নত জাতের ঘাস চাষ করে নেওয়া যেতে পারে |

আরও পড়ুন -Ool farming guide: জেনে নিন সহজ উপায়ে ওল চাষ পদ্ধতি

খাওয়ানোর পরিমাণ(Food):

গরুকে দেহের ওজন অনুপাতে দানাদার খাদ্য সরবরাহ করতে হবে। উপরের দানাদার মিশ্রণটি গরুর ওজনের শতকরা ০.৮-১ ভাগ পরিমান সরবরাহ করলেই চলবে। দানাদার মিশ্রণটি একবারে না খাইয়ে ভাগ ভাগ করে সকালে এবং বিকালে খাওয়াতে হবে। গরুকে পর্যান্ত পরিমাণে পরিষ্কার খাওয়ার পানি সরবরাহ করতে হবে। কোনোভাবেই বাসি পানি, পচা বাসি খাবার মেশানো পানি, পুকুর, ডোবা বা নদীর পানি খাওয়ানো যাবে ন।

পুঁজির হিসাব(Total cost):

৪ টা বাছুর সহ দেশী গাভীর ক্রয়মূল্য

৪x ৪৫০০০=১৮০০০০/- টাকা।

১ টা গোয়ালঘর তৈরির খরচ

৫০০০০/- টাকা।

গরুর খাদ্য, চিকিৎসা, ওষুধপাতি এবং আনুষঙ্গিক  খরচ বাবদ

২০০০০/-টাকা।

মোট পুঁজি ২৫০০০০/- টাকা।

আয়ের হিসাব(Income):

৪ টা গরু গড়ে ৩ লিটার দুধ দেবে এই হিসাবে মোট ১২ লিটার দুধ দেবে | ১২ লিটার দুধের বিক্রয় মূল্য প্রতি লিটার ৪০ টাকা হিসাবে,

১২x৪০= ৪৮০ টাকা।

তাহলে দৈনিক আয় হচ্ছে ৪৮০/- টাকা।

ব্যয়ের হিসাব(Expenditure):

৪ টি গাভীর জন্য ৮ কেজি দানাদার খাদ্য লাগবে যার প্রতি কেজির মূল্য ২৫/- টাকা হিসাবে,

৮ x২৫= ২০০ টাকা।

দুধ দোওয়ানোর জন্য গোয়ালার পারিশ্রমিক দৈনিক ৭০ টাকা।

তাহলে মোট ব্যয় দাঁড়ায়,

২০০+৭০ = ২৭০ টাকা।

৪ টা গাভীর জন্য আপনি নিজেই দেখভাল করতে পারবেন | তাহলে প্রতিদিন আপনার নিট আয় হচ্ছে,

৪৮০-২৭০= ২১০/-টাকা।

এর মানে দাঁড়ায় আপনি মাসে অন্তত ৬৩০০/- টাকা নিট আয় করতে পারবেন।

গাভী সঠিক সময়ে যদি গরম হয় তাহলে বাছুরের বয়স দুইমাস সময়ের মধ্যেই গাভী আবার গাভীন হবে। অতিরিক্ত হলে তিন মাস। আপনি প্রতিমাসের আয়ের অর্ধেকই রেখে দিবেন ড্রাই পিরিওডে গাভীর খাদ্য খরচ যোগান দেওয়ার জন্য। এইভাবে দেশি গরু পালনে গ্রামীণ অর্থনীতিতে উন্নতি ঘটবে |

আরও পড়ুন - Budgerigar birds rearing: বদ্রী পাখি পালনে আপনিও হয়ে উঠুন লাভবান

Like this article?

Hey! I am রায়না ঘোষ . Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters