মাটির স্বাস্থ্য রক্ষায় ১০০ শতাংশ জলে দ্রবণীয় সার এনেছে নতুন দিশা

Thursday, 20 December 2018 06:01 PM

দেশের গড় জাতীয় উৎপাদনের নিরিখে কৃষির ভূমিকা ক্রমশ হ্রাসমান হলেও ভারতীয় অর্থনীতির মূল মেরুদন্ড হল কৃষি। আবার কৃষি প্রধান দেশ ভারতবর্ষের কৃষি অনেকটাই নির্ভর করে বাৎসরিক বৃষ্টিপাতের উপর। পৃথিবীতে চীনের পরেই জনসংখ্যার দিক দিয়ে ভারতের স্থান দ্বিতীয় , তাই ‘খাদ্য সুরক্ষার বিষয়’ ভারতের মত জনবহুল দেশে এক অত্যন্ত জরুরী ও প্রাথমিক কর্মসূচি। ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার আবাসন সংস্থান ও শিল্পের চাহিদার জন্য চাষ যোগ্য জমির ক্রম সংকোচন ও বিগত এক দশক ধরে ফসলের উৎপাদনশীলতার স্থিতিশীল অবস্থা কৃষির উপর এক ভয়ঙ্কর চাপ সৃষ্টি করেছে। যার নিট ফল হল চাষ হয়ে দাঁড়িয়েছে গতিহীন ও অলাভজনক। ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার খাদ্যের চাহিদা মেটাতে গেলে কৃষি জমিকে ধারাবাহিক সুসংহত ও সুস্থিত ব্যবহার করে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির দিকে সুস্পষ্ট ভাবে নজর দিতে হবে আর এই কর্মসূচীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল প্রতি একক জমির জন্য ব্যবহৃত জল ও সারের সর্বোত্তম উৎকর্ষতা বৃদ্ধি।

১০০ শতাংশ জলে দ্রবণীয় সার এই প্রেক্ষাপটে চাষে নিয়ে এসেছে এক নতুন মাত্রা। কৃষি বিজ্ঞানের এই বিশেষ প্রযুক্তির প্রয়োগ ফসলের উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির পাশাপাশি গুণমানের উৎকর্ষতা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে যা দেশের খাদ্য সুরক্ষা অভিযানের এক অত্যন্ত ইতিবাচক দিক হতে পারে।

সারা পৃথিবীতে মিষ্টি জলের যা আধার রয়েছে তার মাত্র ৪ শতাংশ ভারতে পাওয়া যায় আর এই ৪ শতাংশ মিষ্টি জলের প্রায় ৮০ % ব্যবহৃত হয় কৃষিতে। যেখানে সারা পৃথিবীতে মিষ্টি জল সেচ সেবিত ফসলের উৎপাদনশীলতা হেক্টর প্রতি ৪ টন, সেখানে ভারতের গড়পরতা ফসলের উৎপাদনশীলতা হেক্টর প্রতি ৪ টন, সেখানে ভারতের গড়পরতা ফসলের উৎপাদনশীলতা মাত্র ২.৫ টন প্রতি হেক্টর এবং সেচের উৎকর্ষতা মাত্র ৩০ শতাংশ। সুতরাং দেশের খাদ্য নিরাপত্তাকে নিশ্চিত করতে ও কৃষিকে অধিক উৎপাদনশীল, সুস্থায়ী ও আরো লাভজনক করতে সেচ ব্যবস্থার প্রসার সহ ১০০ শতাংশ জলে দ্রবণীয় সারের প্রচলন এক বিপুল সম্ভাবনার সঞ্চার করেছে।

পার্থ ভট্টাচার্য

মুখ্য আঞ্চলিক প্রবন্ধক, ইফকো

১০০ শতাংশ জলে দ্রবণীয় সারের ব্যবহার ও উৎকর্ষতা জানতে চোখ রাখুন কৃষি জাগরণের ডিসেম্বর মাসের সংখ্যাটিতে।

- রুনা নাথ(runa@krishijagran.com)



Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online

Download Krishi Jagran Mobile App

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.