আলুর নাবি ধ্বসা নিয়ন্ত্রণে সময়মত উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে হবে

Monday, 07 January 2019 05:05 PM

ফাইটফথোরা ইনফেসট্যান্স নামক ছত্রাকের কারণে এই রোগটি প্রায়ই আলু ক্ষেতে মহামারির আকার নেয় তাই উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে হয়। ১৬ – ২০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রা ও স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া এই রোগের সংক্রমণ বাড়ায়।

এই রোগের প্রাথমিক দিকে পাতার কিনারায় জলে ভেজা হালকা সবুজাভ দাগ দেখা দেয় পরে তা বাদামি ও নীলচে রঙ নেয় যা পরে কান্ডের চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। মাটির ওপরের সঙ্গে সঙ্গে মাটির নীচের কন্দে রোগ ছড়িয়ে পড়ে।

নিয়ন্ত্রণের উপায় –

  • প্রতিরোধী জাত হিসাবে কুফরি জ্যোতি, কুফরি চিপসোনা -২, কুফরি পোখরাজ, কুফরি বাদশা, কুফরি অলংকার প্রভৃতি চাষ করা উচিত।
  • বীজ হিসাবে গোটা কন্দ লাগানো উচিত।
  • গোবর সারের সঙ্গে ট্রাইকোডার্মা ভিরিডি মেশাতে হবে।
  • ক্ষেত রোগাক্রান্ত হলে সেচ ও চাপান সার দেওয়া বন্ধ করতে হবে।
  • আক্রান্ত জমির ফসল তোলার আগে মাটির ওপরের কান্ডগুলি কেটে ফেলে কন্দের খোসা শক্ত হবার জন্য সুযোগ দিতে হবে।

আরও পড়ুন আখের উইল্ট রোগ থেকে মুক্তির উপায়

  • প্রতি ১০/১৫ দিন অন্তর ফেনামিডোন + ম্যানকোজেব অথবা মেটালাক্সিল +ম্যানকোজেব ২.৫ গ্রাম প্রতি লিটার জলে গুলে আঠা বা স্টিকার সহ স্প্রে করুন।
  • এই রোগের আক্রমণের হরা চন্দ্রমুখীতে খুবই বেশী কিন্তু জ্যোতি আলুতে কম তাই চন্দ্রমূখী চাষে বেশী সংখ্যক স্প্রে(৮ – ১০ টি) করতে হয়। জ্যোতি আলু চাষে অপেক্ষাকৃত কম স্প্রে (৪-৬টি) লাগে।

- রুনা নাথ (runa@krishijagran.com)



Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online

Download Krishi Jagran Mobile App

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.