আখরোট শরীরের জন্য কতটা উপকারী? কি কি পুষ্টিগুণ রয়েছে এতে? জেনে নিন এই বাদাম সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য (Health Benefits Of Wallnut)

KJ Staff
KJ Staff
Walnut (Image Source - Google)
Walnut (Image Source - Google)

আখরোটের মধ্যে রয়েছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড এবং প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। এছাড়াও এর মধ্যে আছে প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, সুগার, ফাইবার এবং ক্যালোরি। সাথে রয়েছে ৬৫% ফ্যাট, ১৫% প্রোটিন এবং ৪% জল।

চিকিৎসক ও বৈজ্ঞানিকদের বক্তব্য অনুযায়ী, বুদ্ধির বিকাশে আখরোটের (Walnut) বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। প্রচুর ক্যালোরি আর এনার্জি থাকায় এটা খেলে ওজন বেড়ে যেতে পারে এরকম ভ্রান্ত ধারণা অনেকেরই রয়েছে।  

চলুন দেখে নেওয়া যাক, এর স্বাস্থ্যগুণ সম্পর্কে -

ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস (Reduce Cancer) -

ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, পলিফেনলস এবং ইউরোলিথিনের মতো উপাদান আখরোটে প্রচুর পরিমাণে রয়েছে। এই উপাদানগুলি বিদ্যমান থাকায় স্তন, কোলন এবং প্রোস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস হয়। আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন ফর ক্যান্সার রিসার্চ ইন্সটিটিউটের গবেষণা অনুযায়ী, প্রতিদিন আখরোট খাওয়া স্তনের ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস করতে পারে।

হাড় মজবুত করে (Strengthen Bones) -

আখরোটে আলফা-লিনোলেনিক অ্যাসিড নামে একটি প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। এই অ্যাসিড এবং এর যৌগ হাড়ের দৃঢ়তা বজায় রাখতে সহায়তা করে।  

হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাস –

যে-কোনও প্রকারে বাদামের মধ্যে আখরোটে সবচেয়ে বেশি পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। এই অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ফ্রি র‍্যাডিকেলকে ধ্বংস করতে সাহায্য করে যা হৃদরোগের ঝুঁকি কম করে। এছাড়াও আখরোটে রয়েছে ফ্যাটি অ্যাসিড ওমেগা ৩, যা খারাপ কোলেস্টরল কমাতে এবং ভালো কোলেস্টরল বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। 

ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করে-

চিকিৎসকদের মতে, যে-কোনও ধরণের বাদামই ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। বিশেষত যাঁরা নিয়মিত আখরোট খান তাঁদের টাইপ ২ ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি অন্যদের তুলনায় অনেকটাই কম থাকে। 

ডার্ক সার্কল -

অতিরিক্ত স্ট্রেস বা অন্যান্য কারণে চোখের নীচে দেখা দেয় ডার্ক সার্কল। রাত্রে শোয়ার আগে চোখের নীচে অল্প করে উষ্ণ আখরোটের তেল টানা কয়েক সপ্তাহ যদি আপনি ব্যবহার করেন, তাহলে আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন। এই তেল শুধু ডার্ক সার্কল নয় চোখের ফোলাভাবও দূর করে।

চুল পড়ার সমস্যা –

আখরোটে আছে পটাশিয়াম, ওমেগা থ্রি, ওমেগা সিক্স ও ওমেগা নাইন। এই সব উপাদান চুল পড়া রোধ করতে চুলের গোড়া মজবুত করতে সহায়তা করে। সপ্তাহে দুইবার আখরোটের তেল ব্যবহার করলে চুল হয়ে ওঠে লম্বা, মজবুত ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল।

আরও পড়ুন - জেনে নিন চুলের স্বাস্থ্য রক্ষায় কিভাবে কলার প্যাক ব্যবহার করবেন (Banana Hair Pack)

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters