Cowpea Farming: বর্ষায় ছাদে বরবটি চাষে করুন অধিক উপার্জন

রায়না ঘোষ
রায়না ঘোষ
Cowpea tree (image credit- Google)
Cowpea tree (image credit- Google)

বরবটি এক অতি জনপ্রিয় সবজি | দেশের মধ্যে উত্তরপ্রদেশ, পঞ্জাব, মধ্যপ্রদেশ, ঝাড়খন্ড, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, রাজস্থান, ছত্তিশগঢ় সহ বিভিন্ন রাজ্যে এই বরবটির চাষ হয়ে থাকে | সাধারণত, জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে এর চাষ শুরু হয়ে যায় | দুই ধরণের বরবটি বেশিরভাগ চাষ করা হয়ে থাকে | একটি দৈর্ঘ্যে ছোট, এবং অপরটি দৈর্ঘ্যে বড়, কিছুটা লতানো প্রকৃতির৷ দ্বিতীয়টিই বর্ষাকালে বেশি চাষ করা হয়৷ এর জন্য মাচা তৈরির প্রয়োজন হয় | খুব সহজেই বাড়ির ছাদে (Terrace Farming) বরবটি চাষ করে চাষীরা লাভের মুখ দেখতে পারেন |

চাষের সময়:

বর্ষাকালীন বরবটি (Monsoon vegetable)  লাগানোর উপযুক্ত সময় আষাঢ়-শ্রাবণ মাস।

জাত:

উন্নত জাতের মধ্যে কল্যাণপুর ভ্যারাইটি ভালো। এই জাতের বরবটি চাষ করলে ভালো ফলন পাওয়া যায়। এছাড়াও, ভালো বীজের জন্য স্থানীয় কৃষি দপ্তরের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন |

মাটি(Soil):

বরবটি চাষের জন্য উপযুক্ত হল বেলে দোয়াশ মাটি। তাই প্রথমে বেলে দোয়াশ মাটিতে গোবর সার ভালো মত মিশিয়ে মাটিটিকে ঝুরঝুরে করে বরবটি চাষের জন্য উপযুক্ত করে তুলতে হবে।

আরও পড়ুন -Periwinkle Flower Farming: জুলাই মাসে রোপণ করুন নয়নতারা ফুল

টবের মাটি তৈরী:

বড়ো টবে বা ড্রাম এ বা বড়ো বালতিতে মাটি ভরে রাখতে হবে। তারপর বাজার থেকে বরবটি বীজ কিনে আনতে হবে।

বীজ বপন:

বীজ যেদিন মাটিতে পুঁতবেন তার আগের দিন রাতে বীজ জলে ভিজিয়ে রাখতে হবে। তারপর বীজ মাটিতে দিয়ে তার ওপর গোবর সার ছড়িয়ে মাটি দিয়ে চাপা দিতে হবে। তারপর কিছুদিনের মধ্যে অঙ্কুর বের হলে নিয়মিত জল দিতে হবে।

সার প্রয়োগ(Fertilizer):

প্রাথমিক সার হিসেবে ইউরিয়া ৫০০ গ্রাম, সুপার ফসফেট ৪০০ গ্রাম, মিউরিয়েট অফ পটাশ ১০০ গ্রাম প্রয়োজন। এরপর বীজ বোনার ১ মাস পর চাপান সার হিসেবে প্রয়োগ করতে হবে ৩০০ গ্রাম ইউরিয়া |গাছের চারপাশে গোবর সার ছড়িয়ে দিন তবে লক্ষ্য রাখবেন যাতে গোবর সার গাছের গোড়ায় না পরে।

পরিচর্যা:

টবের চারপাশের আগাছা সবসময় কেটে পরিষ্কার রাখতে হবে | প্রয়োজনে, নিম তেল ব্যবহার করতে পারেন, যা খুবই লাভজনক | গাছের চারপাশে মাচা তৈরী করে দিতে হবে। তারপর যদি দেখেন গাছের মধ্যে পোকামাকড় ধরছে তাহলে বাজার থেকে রাসায়নিক স্প্রে কিনে এনে গাছের মধ্যে কীটনাশক স্প্রে করতে হবে |

সেচ:

বর্ষাকালীন বরবটি চাষে সেচের প্রয়োজন হয়না | তবে, বৃষ্টির অভাব দেখা দিলে জল সেচ দিতে হবে | তবে, খেয়াল রাখতে হবে যেন কোনোমতেই জল না দাঁড়ায় |

ফসল সংগ্রহ:

নিয়মিত গাছ গুলোকে যত্ন করলে দেখবেন কিছুদিনের মধ্যে ফল ধরা শুরু করেছে। বীজ বোনার ৫০ থেকে ৬০ দিনের মধ্যেই উৎপণ বরবটি সংগ্রহের উপযুক্ত হয়ে যায়।

বরবটি কম সময়ে চাষ হয়। সেকারণে বাজারে চাহিদা থাকে। দামও ভালো পাওয়া যায়। ফলে চাষিরা বরবটি চাষ করে ভালো লাভ করতে পারেন। বরবটি বাজারে সব্জি হিসেবে যেমন বিক্রি হয়, তেমনই বরবটি শুকিয়ে বীজ বিক্রি করলে আরও বেশি টাকা পাবেন কৃষকবন্ধুরা |

আরও পড়ুন -Cardamom Cultivation: জেনে নিন এলাচ চাষের দুর্দান্ত কৌশল

Like this article?

Hey! I am রায়না ঘোষ . Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters