সরকার দেশে পেঁয়াজ রপ্তানি নিষিদ্ধ করেছে

Wednesday, 02 October 2019 11:19 AM

সরকার পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণের উদ্দেশ্যে দেশে পেঁয়াজ রপ্তানি নিষিদ্ধ করেছে এবং মজুদ কার্য প্রতিরোধের জন্য পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের উপর স্টক সীমাবদ্ধতা আরোপ করেছে। বন্যার পরে কিছু রাজ্যে পেঁয়াজের সরবরাহ ব্যাহত হওয়ায় দিল্লীতে খুচরা পেঁয়াজের মূল্য ৮০ টাকারও উর্ধে, এই কারণেই সরকার এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। ভারতের অন্যান্য অঞ্চলেও কম বেশি প্রায় একই দামের প্রবণতা বিরাজ করছে।

রবিবার ভোক্তা বিষয়ক সম্পাদক (Consumer Affairs Secretary ) এ.কে.শ্রীবাস্তব একটি চিঠির মাধ্যমে বৈদেশিক বাণিজ্যের মহাপরিচালক (Director General of foreign trade) অলোক চতুর্বেদীকে বলেন, "দেশীয় প্রাপ্যতা ও মূল্য নিয়ন্ত্রণ উন্নয়নের লক্ষ্যে আমি তাত্ক্ষণিকভাবে পেঁয়াজের রপ্তানি নিষিদ্ধ করার বিষয়টি বিবেচনা করার জন্য অনুরোধ করছি"। বাণিজ্য মন্ত্রক পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞার কথা জানিয়েছে। শ্রীবাস্তব লিখেছেন যে ১৩ ই সেপ্টেম্বর ২০১৯ এ সর্বনিম্ন রপ্তানি মূল্য বিদেশী ৮৫০ / টন চাপিয়ে দেওয়ার পরেও, পেঁয়াজ রপ্তানি বিনা বাধায় অব্যাহত রয়েছে।

একজন সরকারী কর্মকর্তা বলেছেন, "শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের ন্যূনতম রপ্তানি মূল্যের নীচে রপ্তানি তৎক্ষণাৎ বন্ধ করতে হবে এবং যারা সরকারের সিদ্ধান্ত লঙ্ঘন করেছে বলে প্রমাণিত হবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।"

এক বছর আগে এপ্রিল থেকে জুলাই মাসে ভারতে পেঁয়াজ রপ্তানি ১০ শতাংশ হ্রাস পেয়ে ১৫৪.৫ মিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। এই সময়কালে ইউনাইটেড আরব এমিরেটস, মালয়েশিয়া, বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কা ভারতের থেকে পেঁয়াজের শীর্ষ আমদানিকারক ছিল।

ভোক্তা বিষয়ক মন্ত্রক মান্ডিতে মজুদকৃত পেঁয়াজ মুক্ত করতে এবং মজুদ কার্য প্রতিরোধের জন্য পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের উপর স্টক সীমাবদ্ধতা আরোপ করেছে। খুচরা ব্যবসায়ীদের জন্য, স্টকের সীমা ১০০ কুইন্টাল এবং পাইকারি ব্যবসায়ীদের জন্য এটি ৫০০ কুইন্টাল।

খাদ্য ও বাণিজ্য নীতি বিশ্লেষক দেবীন্দার শর্মা এই ঘটনায় বিস্মিত। তাঁর মতে, যখন পেঁয়াজের মূল্য ১-২/কেজি তে বর্ধিত হতে শুরু করে, তখনই কেন কেন্দ্র তৎপরতা গ্রহণ করল না। খাদ্য ও ভোক্তা বিষয়ক মন্ত্রী রাম বিলাস পাসওয়ান টুইট করে বলেছেন, “এখনও পর্যন্ত রাজ্য সরকার পরিস্থিতি অনুসারে মজুদ সীমা বাস্তবায়ন করে আসছে। প্রথমবার, কেন্দ্রীয় সরকার একযোগে দেশজুড়ে স্টকের উপর সীমাবদ্ধতা আরোপ করেছে। একই সঙ্গে, রাজ্য সরকারগুলিকে হোর্ডারদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে”। এর ফলে আশা করা হচ্ছে শিগগিরই বাজারে পেঁয়াজের মূল্য কমে আসবে ”।

স্বপ্নম সেন (swapnam@krishijagran.com)



Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online

Download Krishi Jagran Mobile App

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.