Flax Seed Farming: কিভাবে করবেন তিসি চাষ? জেনে নিন পদ্ধতি

KJ Staff
KJ Staff
Flax seed (image credit- Google)
Flax seed (image credit- Google)

তিসি একটি খুবই জনপ্রিয় তেল জাতীয় শস্য | তিসি থেকে উৎপাদিত তেল অনেক কাজে ব্যবহৃত হয় | তিসির উদ্ভিদতাত্ত্বিক নাম: Linum Utitatissimum Linn. | এতে প্রোটিন, তেল, কার্বোহাইড্রেট, ছাই, আঁশ বিদ্যমান। কৃষকরাও, তিসির চাষ (Flax Farming) বহুল পরিমানে করে থাকেন |

মাটি (Soil):

এঁটেল মাটি তিসি চাষের জন্য সবচেয়ে বেশি উপযোগী। পলি দো-আঁশ ও এঁটেল দো-আঁশ মাটিতেও এর চাষ করা যায়।

জাত নীলা (লিন-১):

জাতটি বাছাই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নির্বাচন করা হয়েছে এবং ১৯৮৮ সালে জাতীয় বীজ বোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত হয়। জাতটির বৈশিষ্ট্য হলো-বীজ ছোট ও চেপ্টা। ফল ১০০০ বীজের ওজন ৩.০-৩.৫ গ্রাম। ফুলের রং নীল। বীজ হাতে ধরলে পিচ্ছিল অনুভূত হয়। বীজে তেলের রিমাণ শতকরা ৩৮ ভাগ। হেক্টর প্রতি ফলন ৮৫০-৯৫০ কেজি।

আরও পড়ুন Organic Farming in Bangladesh: বাংলাদেশে বাড়ছে জৈব কৃষিকাজের গুরুত্ব

বীজ বপন  (Seed plantation):

কার্তিক মাস (মধ্য অক্টোবর হতে বীজ ছিটিয়ে বপন করতে হয়। তবে সারিতে বপন করলে সারি থেকে সারির দূরত্ব হবে ৩০ সে.মি.।

বীজের পরিমান:

৭-৮ কেজি/হেক্টর বীজ প্রয়োগ করতে হবে |

সার প্রয়োগ (Fertilizer):

সাধারণত তিসি বিনা সারে চাষ করা হয়। তবে ভালো ফলন পেতে হলে এইভাবে সার প্রয়োগ করতে হবে। হেক্টর প্রতি ৭০-৮০ কেজি ইউরিয়া, ১১০-১৩০ কেজি টিএসপি, ৪০-৫০ কেজি এমওপি প্রয়োগ করতে হবে | ইউরিয়া সার অর্ধেক ও বাকি অন্যসব সার শেষ চাষের সময় জমিতে মিশিয়ে দিতে হবে। বাকি অর্ধেক ইউরিয়া বীজ বপনের ২৫-৩০ দিন পর প্রয়োগ করতে হবে।

পরিচর্যা:

প্রয়োজনে ১-২ বার সেচ দিতে হবে। আর জমিতে আগাছা থাকলে সময়মতো আগাছা দমন করতে হবে।

রোগবালাই ও দমন (Disease management system):

পাতা ঝলসানো রোগ:

অলটারনেরিয়া লিনি নামক একপ্রকার ছত্রাকের সাহায্যে এ রোগ ছড়ায়। এটি একটি বীজবাহিত রোগ।থমে পাতার উপর ঘন বাদামী বর্ণের অসম আকৃতির দাগ পড়ে। রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পেলে পাতা শুকিয়ে যায়।বাতাসের সাহায্যে এ রোগ বিস্তার লাভ করে।

প্রতিকার:

বীজ বপনের পূর্বে প্রতি কেজি বীজে ২.৫ গ্রাম ভিটাভেক্স-২০০ দিয়ে বীজ শোধন করতে হবে। আগাছা দমনসহ ফসলের পরিচর্যার মাধ্যমে রোগের প্রাদুর্ভাব কমানো যায়। গাছে এ রোগের লক্ষণ দেখা দেয়া মাত্র প্রতি লিটার জলে ২ গ্রাম রোভরাল-৫০ ডব্লিউপি মিশিয়ে ১০ দিন পরপর ৩ বার স্প্রে করতে হবে।

ফসল সংগ্রহ:

তিসি ফাল্গুন-চৈত্র মাসে পাকে। পাকলে গাছ এবং ফল সোনালী বা কিছুটা তামাটে রং ধারণ করে। ফল ভালভাবে পাকার পরই গাছ কাটা বা উপড়ানো উচিৎ। ফসল কেটে বা উপড়িয়ে নেয়ার পর গাছগুলো ছোট ছোট আঁটি বেঁধে বাড়ির আঙ্গিনায় স্তুপ করে রাখা যায়। জীবনকাল ১০০-১১৫ দিন।

নিবন্ধ: রায়না ঘোষ

আরও পড়ুন -Jute Cultivation: জেনে নিন পাট চাষের বিস্তারিত পদ্ধতি ও পরিচর্যা

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters