আপনার রান্নাঘরেই তৈরি করতে পারেন মনের মতো বাগান শীতের ৬ টি শাকসবজি দিয়ে

KJ Staff
KJ Staff

শীতকাল প্রায় আগত, এই সময়টিকে প্রায় সকলেই আমরা অল্প-বিস্তর উপভোগ করে থাকি এবং এই সময় অনেকেই বিভিন্ন ফল-ফুলের বাগান করে থাকেন। শীতের সকালে আমাদের রান্নাঘরের বসেই বাগানের সেই আমেজ যদি উপভোগ করতে পারি, তা আশ্চর্যজনক না? ফুল, ফল ও শাকসবজির বাগান করার জন্য শীতকাল বছরের সেরা মরসুম।

আপনার রান্নাঘরের বাগানে বিভিন্ন ধরণের শাকসবজি জন্মানোর জন্য শীতকাল সেরা সময়। এই বর্ধমান মরসুমটি রবি মরসুম নামেও পরিচিত। আসলে, ভারতে কিছু শাকসবজি কেবল রবি ফসল হিসাবেই জন্মায়

আসুন ভারতে এই শীতের মরসুমে উত্থিত হতে পারে, এমন কয়েকটি সেরা শাকসবজি বেছে নিন –

ফুলকপি -

এটি ভারতে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শীতকালীন একটি সবজি, যার উত্স ইউরোপীয়। এর বৈজ্ঞানিক নাম ব্রাসিকা ওলেরেস্যা ভার বোট্রিটিস এবং এর আকর্ষণীয় স্বাদ ও পুষ্টিগুণের মানের কারণে এটি মানব খাদ্যতালিকায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটি অত্যন্ত স্বাস্থ্যকর একটি সবজি।

কোনও ভাল জমিতে ফুলকপি চাষ করা হলেও মোটামুটি গভীর দো-আঁশযুক্ত মাটি সবচেয়ে উন্নত এটি চাষের জন্য। আপনি ব্রোকলিরও চাষ করতে পারেন। পুষ্টিগুণসম্মত ব্রোকলিও আপনার রান্নাঘরের বাগানে সহজেই চাষ করতে পারবেন।

২. ক্যাপসিকাম (বেল পেপার):

 

এটি অন্য একটি দুর্দান্ত সবজি, যা আমাদের অনেকেরই পছন্দ। নিঃসন্দেহে এটি আমাদের খাবারকে স্বাদযুক্ত করে তোলে। এটি ‘সিমলা মির্চ ইন ইন্ডিয়া’ নামে সর্বাধিক পরিচিত। বীজ বপনের ট্রেতে বীজ বপনের চার সপ্তাহ পরে গাছগুলি উত্থিত বেডে রোপণ করা হয়। উদ্ভিদটির পূর্ণ সূর্যের আলো প্রয়োজন হয়; তবে সবুজ শেড নেট হাউস বা পলি-হাউসের অধীনে উত্থিত হলে এর উত্পাদন অনেক বেশি পরিমাণে হয়। এটি অত্যন্ত সংবেদনশীল উদ্ভিদ। বীজ বপনের ৭০-৮০ দিন পরে ফসল সংগ্রহ করা যেতে পারে।

৩.পালং

পালংনামে খ্যাত এই শাকটি খুব জনপ্রিয় এবং স্বাস্থ্যকর। এটি চাষের জন্য, সূর্যের পূর্ণ আলোর পাশাপাশি আংশিক ছায়ারও (৩-৪ ঘন্টা) প্রয়োজন হয়। বীজগুলি সরাসরি উত্থিত বেডে বপন করা হয়। বীজ বপনের ৩০ দিনের মধ্যে সবুজ শাক সংগ্রহ করা যায়। প্রতি ১০০ বর্গফুট জমিতে ৩ গ্রাম বীজ প্রয়োজন।

৪. পেঁয়াজ-

পেঁয়াজ আমাদের রান্নাঘরের সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ উপাদান, যা এখন এটির "আকাশ-ছোঁয়া" দামের জন্য বিতর্কের মধ্যে রয়েছে। পেঁয়াজ ছাড়া আমরা আমাদের রান্নাঘর কল্পনাও করতে পারি না। ভূগর্ভস্থ পেঁয়াজের বাল্ব গঠন শুরু করার জন্য উষ্ণ এবং শুষ্ক অবস্থার প্রয়োজন। বীজতলায় বীজ বপন করা হয় এবং এক মাস বয়সী চারা উত্থিত বেডে রোপণ করা হয়। উদ্ভিদটির ব্রিদ্ধির জন্য পূর্ণ রোদ এবং ঘন ঘন জলের প্রয়োজন। জাতের উপর নির্ভর করে রোপণের ৮০-১০০ দিনের মধ্যে পেঁয়াজ প্রস্তুত হয়ে যায়, এরপর এটি সংগ্রহ করা যেতে পারে।

৫. সবুজ মটর

এটি কেবল সালাডে ব্যবহার করা না, এটি আপনার খাবারকে স্বাস্থ্যকরও করে তোলে। তবে বপন করার সময় মনে রাখতে হবে যে, অত্যন্ত সংবেদনশীল হওয়ায় মটর গাছগুলি অতিরিক্ত উষ্ণ এবং আর্দ্র আবহাওয়ায় বাঁচতে পারে না এবং অতিরিক্ত শীত ও শুষ্ক আবহাওয়াতেও উদ্ভিদটির বৃদ্ধি হয় না। তাই এর জন্য অধিক যত্নের দরকার। বীজ বপনের ৮০-৯০ দিন পরে মটরশুঁটি সংগ্রহ শুরু হতে পারে। প্রতি ১০০ বর্গফুট এলাকাতে প্রায় ৫০ গ্রাম বীজ প্রয়োজন।

৬. গাজর-

গাজর একটি অত্যন্ত স্বাস্থ্যকর সবজি। সালাড ছাড়াও বিভিন্ন রান্নায় এর ব্যবহার করা হয়। বিভিন্ন জাতের উপর নির্ভর করে বীজ বপনের ৮০-১০০ দিনের মধ্যে ফসল সংগ্রহ করা যেতে পারে। মাটি গাজরের প্রত্যাশিত দৈর্ঘ্যের প্রায় দেড়গুণ ঢিলা করতে হবে। শিকড়ের কোনওপ্রকার বাধা এড়াতে মাটি সূক্ষ্মভাবে চূর্ণ করে দিন।

এভাবেই মনের মতো শাকসবজি দিয়ে সাজিয়ে নিন শীতকালের জন্য আপনার রান্নাঘরটি। আর ঘরে বসেই বাগানের সৌন্দর্য উপভোগ করুন, সেই সঙ্গে পেয়ে যান নিজের হাতে তৈরি বিভিন্ন শাকসবজি।

স্বপ্নম সেন (swapnam@krishijagran.com)

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters