Cucumber Home Farming - বাড়ির ছাদে টবেই চাষ করতে পারেন শসা, কীভাবে করবেন, জেনে নিন খুঁটিনাটি

KJ Staff
KJ Staff
Cucumber (Image Credit - Google)
Cucumber (Image Credit - Google)

শসার বিজ্ঞানসম্মত নাম- Cucumis sativus. এটি দৈর্ঘ্যে প্রায় ১০-১২ ইঞ্চি লম্বা হয়ে থাকে। বাইরে সবুজ এবং ভিতরে হালকা সবুজ রঙের হয়৷ এর ভিতরে প্রচুর বীজ থাকে৷ স্যালাডে এটি খুবই ব্যবহৃত হয়। সবজি হিসেবে অনেকে রান্নাও করেন৷ এছাড়া ত্বকের পরিচর্যায় এর রস ব্যবহার করা হয়৷ এটি গরম কালে বেশি পাওয়া গেলেও, বছরের অন্যান্য সময়েও এটি পাওয়া যায়৷

এখন সারা বছরই বাজারে শসা পাওয়া যায়। তাই কৃষকদের একটি বড় অংশ এ সময় ধান চাষের পাশাপাশি শসা চাষের দিকে ঝুঁকছেন। মোটা আর্থিক লাভও করছেন কৃষকরা। শসা চাষের জন্য কৃষি দপ্তর থেকে উৎসাহিত করা হচ্ছে। একই সঙ্গে দেওয়া হচ্ছে নানা সরকারি সহায়তাও।

শসায় রয়েছে ভিটামিন বি, ভিটামিন সি, ভিটামিন কে, সোডিয়াম, জিঙ্ক, পটাশিয়াম, ফসফরাস, ম্যাঙ্গানিজ, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, লোহা, আঁশ, ফাইবার, প্রোটিন, শর্করা, চিনি, জল, স্নেহ পদার্থ প্রভৃতি৷ আর এইসব উপাদান শসাতে বিদ্যমান থাকায় শরীরকে বহু সমস্যার হাত থেকে এটি রক্ষা করে৷ উচ্চ রক্তচাপ কমাতে, হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে, হাড় মজবুত করতে, হজমশক্তি বাড়াতে, কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে, কোলেস্টেরল এবং শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে৷

প্রধানত ফেব্রুয়ারি থেকে মার্চ মাসে শসা চাষের সময় হলেও, তবে সারা বছরই এর উৎপাদন সম্ভব৷ মূলত দোআঁশ মাটি শসা চাষের জন্য খুবই উপযোগী৷ নার্সারি থেকে উন্নত মানের বীজ সংগ্রহ করে তা একদিন জলে ভিজিয়ে রাখতে হবে৷ তারপর তা টবের মাটিতে রোপনের উপযুক্ত হবে৷ মাঝারি সাইজের একটি টবে বীজ বপন করলে তার সংখ্যা ৫-৬টি এবং চারা হলে ২-৩টি রোপন করা যেতে পারে৷

দোআঁশ মাটির সঙ্গে ইউরিয়া, কম্পোস্ট, জৈব সার মিশিয়ে নিতে হবে৷ মাটি ঝুরঝুরে হলে এতে চারা রোপন করতে হবে৷ এরপর প্রতিদিন পরিমিত জল দিতে থাকতে হবে৷ কারণ শসা গাছের জন্য জল, আলো-বাতাসের ভালো প্রয়োজন রয়েছে৷ টবের মাটি যেন চেপে না যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে, মাঝে মাঝে মাটি খুঁচিয়ে দিতে হবে৷ সেই সঙ্গে শসা গাছ যাতে ঠিকভাবে বেড়ে উঠতে পারে তাই কিছুদিন পর মাচা তৈরি করে দিলে ভালো৷ আগাছা হতে দেওয়া যাবে না৷

আরও পড়ুন - Banana Farming: জেনে নিন আধুনিক উপায়ে কলা চাষের সঠিক পদ্ধতি

শসা গাছে জাব পোকা আক্রমণ করতে পারে৷ নিমবীজের দ্রবণ বা সাবানগোলা জল স্প্রে করা যেতে পারে৷ তিন থেকে চার মাস পরে শসা সংগ্রহের জন্য উপযুক্ত হয়ে ওঠে৷

আরও পড়ুন - কালোজিরা চাষ থেকেও হতে পারে অতিরিক্ত অর্থ উপার্জন, জানুন চাষের পদ্ধতি

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters