৭ টি রাজ্য থেকে ২০০ টি নতুন মান্ডি ই-এনএএম প্ল্যাটফর্মে সংযুক্ত

KJ Staff
KJ Staff

কেন্দ্রীয় কৃষি ও কৃষক কল্যাণ মন্ত্রী, নরেন্দ্র সিং তোমর জানিয়েছেন যে, ২০২০ সালের মে মাসের মধ্যে প্রায় এক হাজার মান্ডি ই-এনএএম (E-NAM) প্ল্যাটফর্মে কৃষিপণ্যের বিপণনে যোগ দেবে। তাঁর বক্তব্য অনুযায়ী, ‘রাজ্য থেকে ই-নাম প্ল্যাটফর্মে ২০০ টি নতুন মান্ডি সংযুক্ত করা হয়েছে’। ই-এনএএম প্ল্যাটফর্মের সাথে মিলিত ২০০ টি মান্ডির তালিকা নিম্নরূপ:

অন্ধ্র প্রদেশ (১১ টি মান্ডি), গুজরাট (২৫ টি মান্ডি), ওড়িশা (১৬ টি মান্ডি), রাজস্থান (৯৪ টি মান্ডি), তামিলনাড়ু (২৭ টি মান্ডি), উত্তরপ্রদেশ (২৫ মান্ডি) এবং কর্ণাটক (০২ মান্ডি)। এতে ই-নাম প্ল্যাটফর্মে দেশের মোট মান্ডির সংখ্যা হবে ৭৮৫ টি।

কৃষকদের সুবিধার্থে প্রযুক্তি ব্যবহারের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর পরিকল্পনা শীঘ্রই বাস্তবায়ন করার চেষ্টা চলছে। ভারতে এই প্রথমবারের মতো কৃষি পণ্যগুলির জন্য দুটি পৃথক-ট্রেডিং প্ল্যাটফর্মকে আন্তঃসংযোগ করা হবে। এটি দেশের কৃষকদের ই-এনএএম-এর সাথে নিবন্ধিত বিপুল সংখ্যক ব্যবসায়ীদের কাছে তাদের পণ্য বিক্রি করতে সহায়তা করবে। দেশের এই সংকটজনক পরিস্থিতিতে কৃষকদের সহযোগিতায় সরকার থেকে লকডাউনের মধ্যেও কয়েকটি বেসরকারি মান্ডি খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কর্ণাটকীয় রাষ্ট্রীয় বিপণন বোর্ড কর্তৃক প্রচারিত একটি ই-ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম, কর্ণাটকের রাষ্ট্রীয় ই-মার্কেট সার্ভিসেস (আরইএমএস) এর ইউনিফাইড মার্কেট প্ল্যাটফর্ম (ইউএমপি) এর সাথেও ই-নাম একীভূত হয়েছে। এতে অন্যান্য রাজ্যের ই-এনএম মান্ডির কৃষকরা কর্ণাটকের আরইএমএস প্ল্যাটফর্মে নিবন্ধিত ব্যবসায়ীদের কাছে তাদের পণ্য বিক্রি করতে সক্ষম হবেন। এটি ই-নাম প্ল্যাটফর্ম এবং কর্ণাটকের বোর্ডে থাকা রাজ্যগুলির মধ্যে আন্তঃরাষ্ট্রীয় বাণিজ্যকেও উত্সাহিত করবে।

ই-নাম প্ল্যাটফর্ম-

ই-নাম অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ভারতের কৃষিক্ষেত্রের সংস্কারে এক অভূতপূর্ব ধারণা। ১.৬৬ কোটি কৃষক এবং ১.২২ লক্ষ ব্যবসায়ী ই-নাম প্ল্যাটফর্মে নিবন্ধিত হয়েছেন। ৩০ শে এপ্রিল, ২০২০ পর্যন্ত মোট ব্যবসায়িক পণ্যের পরিমাণ ৩.৪৪ কোটি মে.টন। ই-নাম মান্ডি/রাজ্যের বাইরেও বাণিজ্য সহজতর করে। মোট ২৩৩ টি মান্ডি ১২ টি রাজ্যের মধ্যে আন্তঃমান্ডি বাণিজ্যে অংশ নিয়েছে। এই প্ল্যাটফর্মে ১৩ টি রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল আন্তঃরাষ্ট্রীয় ট্রেডিংয়ে অংশ নিয়েছে এবং প্রত্যন্ত কৃষকদের ব্যবসায়ীদের সাথে সরাসরি যোগাযোগের সুযোগ প্রদান করে তাদের সহযোগিতা করছে। ই-এনএএম প্ল্যাটফর্মে বর্তমানে এক হাজারেরও বেশি এফপিও সংযুক্ত রয়েছে।

অধিকন্তু, মন্ত্রক কোভিড-১৯ পরিস্থিতি মোকাবেলায় যাতে খামারীরা তাদের পণ্য মাণ্ডিতে না নিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিক্রি করতে পারে, তার জন্য গত মাসে ই-নামে দুটি বড় মডিউল প্রচলন করেছে। এই মডিউলগুলি হল –

১) এফপিও মডিউল- কৃষকদের তাদের সংগ্রহ কেন্দ্র থেকে বাণিজ্য করতে সহায়তা করে এবং

২) ওয়্যারহাউস মডিউল- এখানে কৃষকরা তাদের সংরক্ষিত পণ্যগুলি ডাব্লুডিআরএ নিবন্ধিত রাজ্য দ্বারা নির্দেশিত গুদামগুলিতে বিক্রয় করতে পারেন।

এছাড়াও, মন্ত্রণালয় সম্প্রতি "কিষাণ রথ" নামে একটি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন প্রচলন করেছে, যা কৃষকদের পণ্য নিকটবর্তী মান্ডি ও ওয়্যারহাউসে পরিবহনের জন্য ট্র্যাক্টর বা উপযুক্ত যান সন্ধানে সহায়তা করে।

স্বপ্নম সেন

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters