ভোটযুদ্ধে কৃষি ঋণ মুকুব – রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলির মাথাব্যাথার কারণ

Friday, 14 December 2018 01:26 PM
রাহুল ও মোদী

রাহুল ও মোদী

রাজ্যে-রাজ্যে ব্যালটের যুদ্ধ জিততে কৃষি ঋণ মকুবের ঢালাও প্রতিশ্রুতি দেওয়া শুরু হয়েছে । গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ, পঞ্জাব, মধ্যপ্রদেশ— বাদ যায়নি প্রায় কোনও রাজ্যই। চাষিদের ক্ষোভে খাস হিন্দি বলয়ে তিন রাজ্যে ধাক্কা খাওয়ার পরে তাঁদের জন্যও ঋণ মকুবের কথা ঘোষণা করতে পারে মোদী সরকার। কিন্তু স্টেট ব্যাঙ্কের গবেষণা শাখার রিপোর্ট অনুযায়ী, কৃষক সমস্যায় সেটিই হবে সব থেকে ‘খারাপ’ সমাধান।

পাঁচটি রাজ্যের ভোটের ফলাফল বুঝিয়ে দিয়েছে যে কৃষকরা মোদী সরকারের উপর ক্ষুব্ধ। প্রথমে গুজরাট তারপর মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড় ও রাজস্থানের চাষিদের রায় স্পষ্ট। এমন অবস্থায় বিরোধীরাও কৃষকদের পাশে থাকার বর্তা জোরালো ভাবে দিতে চাইছে। তাই মোদী সরকার ঋণ মকুব ও কৃষি ঋণ প্রদানের নিয়ম কানুন শিথিল করে কৃষকদের খুশি করার চেষ্টা করতে পারে এবছরের ভোট অন্ অ্যাকাউন্ট বাজেটে।

কৃষি ঋণ মুকুব, চাষিদের সমস্যার দীর্ঘ মেয়াদি সমাধান কখনোই নয়। এর ফলে অতিরিক্ত ঘাটতিরবোঝা বাড়বে ব্যাঙ্কগুলির, বিশেষত রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলিতে। ইতিমধ্যেই পাহাড়প্রমাণ অনাদায়ি ঋণের বোঝা তাদের বইতে হচ্ছে। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজ্য যে পরিমাণ ঋণ মুকুবের কথা বলেছে, তাতে ৭০ হাজার কোটি টাকা মুছতে হবে ব্যাঙ্কের খাতা থেকে। যা ব্যাঙ্কগুলির মাথাব্যথার কারণ।

- রুনা নাথ(runa@krishijagran.com)



Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online

Download Krishi Jagran Mobile App

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.