জৈব কৃষির দুনিয়ায় ‘ক্রপেক্স’

Tuesday, 23 October 2018 04:28 AM

সিন্থেটিক রাসায়নিক কীটনাশকে দেশ ব্যাপী (কেরালা, মধ্যপ্রদেশ, পাঞ্জাব, হরিয়ানা ও অন্যান্য নানা রাজ্যে) ব্যপক ক্ষতির কথা মাথায় রেখে ‘ক্রপেক্স’ ১৯৯৮ সালে তার যাত্রা শুরু করে জৈব, অক্ষতিকর, বায়ো ডিগ্রেডেবল, জীবদের ক্ষতি ছাড়া কৃষি উপকরণ দিয়ে। নিবিঢ় গবেষণা ও উন্নতি সাধন প্রক্রিয়ায় সফলতার সঙ্গে ‘ক্রপেক্স’ তৈরি করেছে জৈব ছত্রাকনাশক, ব্যকটেরিয়া নাশক, ভাইরাস নাশক ও কীট নাশকের নানা ফর্মুলেশন।

এই সফলতার যাত্রা খুব একটা সহজ ছিলনা যখন ২০ বছর আগে ‘ক্রপেক্স’ কাজ শুরু করেছিল। জৈব কৃষির চিন্তাধারা তখন ছিলই না এবং অক্ষতিকর জৈব কীটনাশক দিয়ে যে ফসল বাঁচানো যায় তা চাষিদের বোঝানো একরকম যুদ্ধ ছিল।

ক্রপেক্স উপকরনগুলির মান্যতার জন্য  প্রচেষ্টা চালিয়েছে জৈব সংশিতকরণের জন্য। চেষ্টার ৮ – ১০ বছর পরে ২০১০ সালে তারা মান্যতা পেয়েছে ‘ভেদিক অর্গানিক সার্টিফাইং এজেন্সি’র কাছ থেকে যা আজও বলবৎ আছে। সুইজারল্যান্ডের আন্তর্জাতিক জৈব সংশিতকরণ সংস্থা ‘আই এম ও’ কন্ট্রোলের মান্যতা পায় ২০১৭ সালে।

এছাড়াও সার্বিক ফসল পুষ্টির কথা ভেবে ক্রপেক্সের উৎপাদন কেন্দ্রেই তৈরী করা হয়েছে লিগনাইট থেকে হিউমিক ম্যাটার পটাশিয়াম হিউমেট রূপে নিষ্ক্ষণের যথাযথ পদ্ধতি ও উপায় যা ও-এম-আর-আই দ্বারা স্বীকৃত হয়েছে ও ফর্মুলেশনের তরল ও দানাদার দুটি উৎপাদনই জৈব মান্যতা পেয়েছে।

‘ক্রপেক্সের সর্ববৃহৎ ভূমিকা হল যথাযথ ও মান্যতা প্রাপ্ত জৈব কৃষি উপকরণ উপলব্ধ করানো যা প্রাকৃতিক ও নিরাপদ বস্তু ও অক্ষতিকর বস্তু সমূহ থেকে আহরিত। লবঙ্গের তেলের মত সাধারণ ও প্রাকৃতিক উপাদান থেকেও ‘ক্রপেক্স’ উৎপাদন বার করেছে যার ছত্রাকনাশক, ব্যাকটেরিয়ানাশক, ভাইরাসনাশক গুণবত্তা আছে। ‘ক্রপেক্সের প্রয়োগ ও প্রযুক্তি গুলির পেটেন্ট স্বীকৃত ও প্রকাশিত হয়েছে।

‘ক্রপেক্সের উৎপাদন – বিশেষভাবে প্রস্তুত জৈব কৃষি উপকরণ পাইকারী ভাবে উপলব্ধ করায় যাতে ক্রপেক্সের ক্রেতারা তাদের পর্যায়ে এ লেবেল-ব্র্যান্ডে সুলভ মূল্যে তা বিক্রি করতে পারেন। ক্রপেক্সের গ্রাহক ক্রেতাদের তারা সর্বস্তরে সহযোগীতা করে তা লেবেল ডিজাইন থেকে পাউচ, প্যাকেজ উপকরণ ইত্যাদি সর্বস্তরে।

ক্রপেক্সের গুরুত্ব –

  • কৃষিতে ১৯৯৮ সাল থেকে আছে।
  • প্রধান গুরুত্ব প্রাকৃতিক ও জৈব উপাদান।
  • সুস্থায়ী কৃষির ধারক ও বাহক।
  • পরিবেশ বান্ধব ও অক্ষতিকর উপকরণে একমাত্র গুরুত্ব আরোপ।
  • ক্রপেক্সের মূল উদ্যোগ হল চাষিদের জন্য প্রাকৃতিক ও জৈব কার্যকরী কৃষি উপকরণ উপলব্ধ করানো। ক্রপেক্সের বিশ্বাস প্রকৃতির কাছেই তার সকল সমস্যার সমাধান আছে।

ক্রপেক্স কার্যকারীতা সম্পন্ন ফর্মুলেশন বানায় ভারতীয় সংস্কৃতির শিক্ষা ও আধুনিক পযুক্তি দ্বারা। তারা প্রমান করেছে সিন্থেটিক কীটনাশকের ক্ষতিকর অবশেষ ছাড়াই জৈব ও প্রাকৃতিক উপকরণ দ্বারা ফসল সুরক্ষা করা যায়। ক্রপেক্স এই প্রচেষ্টা নিরন্তর চালাচ্ছে ও তাদের উৎপাদন বাল্কে সরবরাহ করে যাতে রিপ্যাকিং ও বিপনন সহজে করা যায়।

গুনমানের প্রতি দায়বদ্ধতা - ক্রপেক্সের উৎপাদন ‘গুড ম্যানুফ্যাকচারিং প্র্যাকটিসেস’ মেনে চলে ক্রপেক্সের টিম ‘টোটাল কোয়ালিটি ম্যানেজমেন্ট’ প্রয়োগে দায়বদ্ধ। উৎপাদনের প্রতি ধাপে কড়া নজর ও গুণমান রক্ষা করা হয় ও প্রয়োজনীয় সংশোধন উৎপাদন শেষের আগেই করা হয়। সংস্থার প্রত্যেকের কাছেই গুনবত্তা এক সংস্কৃতি আর ক্রপেক্সের বিশ্বাস চাষিদের খরচের সঠিক উপকরণ তাদের অধিকার।

ক্রপেক্সের গ্রাহক ও উপদেষ্টাসমূহ – দীর্ঘ ২০ বছরের উপর জৈব কৃষি উপকরণের যাত্রায় ক্রপেক্স গর্বিত যে প্রমূখ কিছু সংস্থার সঙ্গে তারা সহযোগী হয়েছে। তাদের স্বনামধন্য গ্রাহকরা ‘বাল্কে’ ক্রপেক্সের উপকরণ কিনে সুনামের সঙ্গে নিজেদের লেবেল ও ব্র্যান্ড রিপ্যাকিং  করে উপলব্ধ করান আর ডিস্ট্রিবিউটাররাও আকর্ষনীয় লাভে ক্রপেক্সের উৎপাদন কেনেন। কিছু ক্রেতা ক্রপেক্সের হয়ে ক্রপেক্সের উৎপাদন মিড্‌ল ইস্ট, আফ্রিকা ও সাউথ কোরিয়ার মত দেশে রপ্তানী করে।

- রুনা নাথ

Share your comments



Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online


Download Krishi Jagran Mobile App

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.