প্রথম ভারতীয় মহিলা পাইলটের শাড়ি পরে বিমান চালানোর কাহিনী জানেন?

 রুপালী দাস
রুপালী দাস
IMAGE SOURCE- PTC NEWS

প্রতি বছর ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত হয়। এই দিনে নারীর অধিকার ও সম্মান সম্পর্কে সমাজকে সচেতন করা হয়। সারা বিশ্বে সমাজে নারীদের সমান মর্যাদা দিতে নারী দিবস উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কথায় আছে শাড়িতেই নারী। আর এই শাড়ি নিয়ে ইতিহাসের পাতায় রচিত হয়েছে কত কাহিনী। ঝাঁসির রানী লক্ষ্মী বাঈ এই শাড়ি পরেই নেমেছিলেন যুদ্ধের প্রাঙ্গনে। কলিযুগেও রয়েছে এরম অনেক কাহিনী।  এই পর্বে, নারী দিবস উপলক্ষ্যে, আমরা এমনই এক  ভারতীয় মহিলাকে কথা বলব যার সঙ্গে এই শাড়ি আর নারী দুটিরই যোগ রয়েছে।  

আজ ভারতে অনেক মহিলা পাইলট আছেন যারা বিমান থেকে ফাইটার জেটে উড়েছেন কিন্তু আপনি কি জানেন ভারতের প্রথম মহিলা পাইলট কে, যিনি শাড়ি পরে বিমান চালিয়েছিলেন? আসুন জেনে নেওয়া যাক তার অদম্য সাহসের কাহিনী। প্রথম ভারতীয় মহিলা পাইলট সরলা ঠাকরালের কাহিনী।

সরলা ঠাকরল

1914 সালের 8 আগস্ট ব্রিটিশ ভারতে জন্মগ্রহণ করেন। সরলার বয়স যখন 16, তখন তার বিয়ে হয় একজন প্রশিক্ষিত পাইলট পিডি শর্মার সাথে। সরলাকে তার স্বামী উড়তে উত্সাহিত করেছিলেন। যার কারণে বিয়ের পর পারিবারিক দায়িত্ব পালন করেও নিজের স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রেখেছে সরলা।

সরলা ঠাকরল শ্বশুরবাড়ির সমর্থন পেয়েছিলেন


স্বামী ছাড়াও তার শ্বশুরবাড়িতে ৯ জন পাইলট ছিল। সরলার স্বামী প্রথম ইন্ডিয়ান এয়ার মেইল ​​পাইলটের লাইসেন্স পান। করাচি থেকে লাহোরে উড়ে যেতেন। সরলা ঠাকরলও লাহোর ফ্লাইং ক্লাবের সদস্য ছিলেন। যখন সরলার প্রশিক্ষণ শেষ হয়েছিল এবং প্রয়োজনীয় উড়ানের সময়গুলি পূরণ হয়েছিল, তখন তার প্রশিক্ষকরা চেয়েছিলেন যে সরলা একা উড়ুক। ফ্লাইং ক্লাবের একজন কেরানি ছাড়া তার সঙ্গীদের কেউ এতে আপত্তি করেননি।

সরলা ঠাকরল , প্রথম ভারতীয় মহিলা যিনি 'A লাইসেন্স' পেয়েছেন,

তিনিও প্রথম A লাইসেন্সপ্রাপ্ত ভারতীয় মহিলা যিনি হাজার ঘন্টার ফ্লাইট সম্পূর্ণ করেছিলেন৷  সরলার শ্বশুরও তাকে সমর্থন করেছিলেন, কিন্তু পরে ১৯৩৯ সালে, যখন সরলা একটি বাণিজ্যিক পাইলটের লাইসেন্সের জন্য কঠোর পরিশ্রম করছিলেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে তার প্রশিক্ষণ বাধাগ্রস্ত হতে হয়েছিল।

সরলা ঠাকরলের ভারতে প্রত্যাবর্তন

এই সময়ে, সরলা ঠাকরলের স্বামী বিমান দুর্ঘটনায় মারা যান। তখন সরলার বয়স ছিল মাত্র 24 বছর। এই ঘটনার পর তিনি পাইলট হওয়ার স্বপ্ন ছেড়ে দিয়ে ভারতে ফিরে আসেন। এখানে তিনি মেয়ো স্কুল অফ আর্ট-এ ভর্তি হন এবং চিত্রশিল্প শিখেন এবং চারুকলায় ডিপ্লোমা অর্জন করেন।

উদ্যোক্তা হিসেবে সরলা ঠাকরল 

1947 সালে ভারত পাকিস্তান বিভক্ত হলে, সরলা তার দুই মেয়েকে নিয়ে দিল্লিতে চলে আসেন। এক বছর পর পিপি ঠাকরল নামে এক ব্যক্তিকে বিয়ে করেন। তার নতুন জীবন শুরু করে, সরলা পোশাক এবং গয়না ডিজাইন করার উদ্যোগ নেন এবং প্রায় 20 বছর ধরে কুটির শিল্পের সাথে যুক্ত ছিলেন। দেশের প্রতিশ্রুতিশীল নারী পাইলট একজন ব্যবসায়ীর ভূমিকাও খুব ভালোভাবে পালন করেছেন। তিনি 15 মার্চ 2008 সালে মারা যান। কিন্তু তার অর্জন, সাহস এবং সংগ্রামের গল্প প্রতিটি নারীর জন্য অনুপ্রেরণা হয়ে উঠেছে। 

Published On: 02 March 2022, 05:48 PM English Summary: Do you know the story of the first Indian woman pilot to fly after wearing sari?

Like this article?

Hey! I am রুপালী দাস. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters