বিশ্ব কিষাণ দিবস ২০২০, দেশের সকল অন্নদাতাদের কিষাণ দিবসের শ্রদ্ধার্ঘ্য (Kisan Diwas 2020)

KJ Staff
KJ Staff
Kisan Diwas 2020 (Image Credit - Google)
Kisan Diwas 2020 (Image Credit - Google)

কৃষিকে ভারতের প্রাথমিক পেশা, আমাদের দেশ কৃষির উপর নির্ভরশীল। তবে এখনও এটি সবচেয়ে অবমূল্যায়ন পেশা হিসাবে বিবেচিত হয়। যে কোনও দেশের জন্য, কৃষি কেবলমাত্র বাক্যে নয়, বাস্তবেও তার মেরুদণ্ড।

এই কারণেই প্রতিবছর ২৩ শে ডিসেম্বর সারাদেশে কৃষক দিবস অত্যন্ত উদ্দীপনার সাথে পালন করা হয়। যে কৃষকরা আমাদের মুখে অন্ন তুলে দিয়ে জীবনধারণে সহায়তা করে থাকেন, এই দিনটিতে সমগ্র জাতি তাদের প্রতি প্রাণ দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়।

জাতীয় কৃষক দিবস বা কিষাণ দিবস আমাদের দেশের কৃষক এবং অন্নদাতাদের জন্য উত্সর্গীকৃত একটি দিন। ১৯৫২ সালের ২৩ শে ডিসেম্বর হাপুরে জন্মগ্রহণকারী ভারতের পঞ্চম প্রধানমন্ত্রী চৌধুরী চরন সিংহের জন্মবার্ষিকী স্মরণে কিষাণ দিবস উদযাপিত হয়। তিনি দেশের কৃষকদের জীবনে উন্নতির জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা করেছিলেন এবং তাঁর প্রচেষ্টার ফলে অনেক কৃষিজাত বিল পাস হয়।

অন্নদাতাদের প্রতি তাঁর উল্লেখযোগ্য অবদানের পরিপ্রেক্ষিতে ২০০১ সাল থেকে জাতীয় কৃষক দিবস পালিত হতে শুরু করে। আসলে কৃষকরা ভারতের অর্থনৈতিক উন্নয়নের মেরুদণ্ড হিসাবে বিবেচিত হয়। এই দিনটি দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে কৃষকদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা উপস্থাপনের জন্য উদযাপিত হয়।

আসুন আমরা তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও প্রচেষ্টার জন্য তাদের ধন্যবাদ এবং কুর্নিশ জানাই -

১. "কৃষক যদি ধনী হয়, তবে জাতিও তাই।"

২. "কৃষকের কাছে ময়লা আবর্জনা নয়, এটি সম্পদ।"

৩. "একজন কৃষক যাদুকর, তিনি তার অসাধারণ ক্ষমতাবলে কাদা-মাটি থেকে অর্থ উত্পাদন করেন।"

৪. "কৃষিকাজের চূড়ান্ত লক্ষ্য ফসলের বৃদ্ধি নয়, বরং উন্নত প্রথায় চাষ ও জীবের কল্যাণ।"

৫. "কৃষক আমাদের দেশের অর্থনীতিতে একমাত্র ব্যক্তি যিনি খুচরাতে সমস্ত কিছু ক্রয় করেন, পাইকারিভাবে সমস্ত কিছু বিক্রয় করেন এবং উভয়ভাবেই পণ্যদ্রব্য প্রদান করেন।"

৬. “কৃষিক্ষেত্র দেশে প্রথম শুরু হয়, পরবর্তীতে ধীরে ধীরে অন্য শিল্প আসে। কৃষকরা তাই মানবসভ্যতার প্রতিষ্ঠাতা। ”

৭. "কৃষিক্ষেত্র কেবল একটি জাতিকে নয়, সমগ্র দেশকে সমৃদ্ধি দান করে”।

৮. "কৃষিকাজ হ'ল মানুষের সর্বাধিক স্বাস্থ্যকর, সর্বাধিক প্রয়োজনীয় এবং সবচেয়ে উন্নত কর্মসংস্থান”।

৯. “একজন কৃষক সর্বদা দেশের জন্য কাজ করেন”।

১০. কৃষিক্ষেত্র যদি ভুল পথে চালিত হয়, তবে দেশে অন্য কোন কিছুই সঠিক হওয়ার সুযোগ থাকবে না - এম এস স্বামীনাথন।

কৃষি জাগরণ দেশের সকল কৃষককে জানায় কিষাণ দিবসের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা।

আরও পড়ুন - রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়ে শিক্ষক পদে নিয়োগ, আবেদন করুন এই পদ্ধতিতে (Teacher job)

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters