নেইলপলিশ ও লিপস্টিক এর দৌলতে বিশ্ববাজারে রেশম চাষিদের রমরমা ব্যবসা

Monday, 09 July 2018 05:16 PM

রেশম চাষীদের কোমর শক্ত করতে ও তাদের আয় দ্বিগুণ করতে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের মিশনকে সফল করার উদ্দেশ্যে কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী শ্রী এইচ্‌ ডি কুমারস্বামি রেশম চাষীদের অন্যভাবে রেশম থেকে আয়ের জন্য পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি চাষীদের বিশ্ববাজারে যে নেইলপলিশ ও লিপস্টিক উৎপাদন ও রপ্তানি হয় তার থেকে একটি বিকল্প আয়ের রাস্তা খোঁজার পরামর্শ দিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রী বিশ্ববাজারে মহিলাদের ব্যবহার্য কিছু দ্রব্য যেমন নেইলপলিশ, লিপস্টিক, ও রেশমের রং ইত্যাদির বিশ্ববাজারে উত্তরোত্তর চাহিদা বৃদ্ধির কথা মাথায় রেখে তিনি এই বিষয়ের প্রতি বিশেষ নজরদানের পরামর্শ দেন, তিনি বলেছেন রেশমের চাহিদা আগামী দিনে আরও বাড়তে চলেছে, শুধু চাষীদের রোজগার বৃদ্ধির সঠিক রাস্তাটিকে কাজে লাগাতে হবে। শ্রী কুমারস্বামির মতে বিশ্ববাজারে এই সব পণ্যের উপজাত হিসেবে কাজ করতে পারলে রেশম চাষ আগামী দিনে প্রচুর লাভের আশা দেখবে। এর জন্য সরকারের তরফ থেকে আগামী অর্থবর্ষে প্রায় ২ কোটি টাকার অনুদান ধার্য করা হয়েছে। এই ঘোষণাতে রামনগর, চান্নাপাট্টাণা, কোলার, চিক্কাবাল্লাপুর জেলার রেশম চাষের সাথে যুক্ত মানুষদের মুখের হাসি চওড়া হয়েছে, কারণ কিছুদিন আগে থেকে রেশমের কোকুণের দাম পড়ে যাওয়ার কারণে তাদের চাষে মার খেতে হয়েছে। এছাড়াও, মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেছেন তিনি কর্ণাটকের রেশম গবেষণাকেন্দ্র ও উন্নয়ন সংস্থাটিকে পুনরুজ্জীবিত করার প্রচেষ্টায় আছেন যেটি ১৯৭০ সালে বেঙ্গালুরুর তালাঘাট্টাপুরাতে তৈরী হয়েছিলো।

সরকারি মৌচাষ বিভাগ-এর সাথে পর্যায়ক্রমিক আলোচনার মাধ্যমে গবেষণার কার্যাবলী চালাতে হবে... সেটি সরকারি হোক বা প্রান্তিক পর্যায়েরই হোক। তারা বিভিন্ন চাহিদা ও প্রয়োজনীয়তার ভিত্তিতে পর্যায়ক্রমিকভাবে পুনঃপ্রাধান্য পেয়ে এসেছে এমন সব এলাকাকে চিহ্নিত করেছেন এবং তাদেরকে সংগঠিত করার চেষ্টা করছেন। বিভিন্ন প্রাধান্যপ্রাপ্ত এলাকার সমস্ত অভাব অভিযোগের জন্য পৃথক পৃথক বিজ্ঞানীদের নিয়োগ করা হয়েছে যারা নির্ধারিত সময়ের জন্য কাজ করছেন বিভিন্ন প্রকল্প ও উপ-প্রকল্পের জন্য এবং সমগ্র প্রকল্পের জন্য একজন প্রকল্প রূপায়ক ও প্রকল্প তদারক রয়েছেন। এই গবেশণাকার্যগুলি সম্পাদিত হচ্ছে Project Monitoring and Technical Co-operation Cell (PMTC).

এই গবেষণার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে যাতে সামনের সারির সমস্যা গুলিকে গবেষণার মাধ্যমে সমাধান করা যায়। এই গবেষণায় ক্ষেত্র-পরিদর্শন ও নমুনা পর্যালোচনার ক্ষেত্রে সমস্ত রকম সমস্যাকে সংগ্রহ করা হয়েছে যা ডিপার্টমেন্ট অব্‌ সেরিকালচার, গভর্মেন্ট অফ্‌ কর্ণাটক এর সাহচর্যে সমাধান করা হচ্ছে।

- প্রদীপ পাল

Share your comments



Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online


Download Krishi Jagran Mobile App

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.