ভারতের শ্রেষ্ঠ ১০টি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়

KJ Staff
KJ Staff

কৃষি ভারতীয় অর্থনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ বিভাগ তাই কৃষি বিষয়ে  পেশাদারের চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। কৃষি বিষয়ে পড়াশুনা (গ্র্যাজুয়েট ও পোস্ট গ্র্যাজুয়েট) করার পর সহজেই উচ্চ আয়ের সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি পাওয়া যায়। যেমন সরকারি আধিকারিক, প্রোডাকশন ম্যানেজার, গবেষক, বিজ্ঞানী বা ফার্ম ম্যানেজার ইত্যাদি। তাই কৃষি বিষয়ে পড়াশুনা করে সফলতা পেতে হলে দেশের অন্যতম মূখ্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশুনা করা জরুরি যেখানে ভালো প্রশিক্ষক, উপযুক্ত লাইব্রেরী পরিষেবা, প্রশিক্ষণ ও প্লেসমেন্টের ব্যবস্থা আছে।

ভারতের ১০ টি মূখ্য কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা দেওয়া হল –

  • ন্যাশনাল ডেয়ারী রিসার্চ ইনসটিটিউট (NBRI), হরিয়ানা- NDRI, ১৯২৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এখানে ডেয়রী বিষয়ে খুব উচ্চমানের প্রশিক্ষণ লাভ করা যায়। এই বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতক, স্নাতকোত্তর, পি  এইচ ডি ও ডিপ্লোমা কোর্সে পড়ানো হয়। এখানে ভিন রাজ্যের ছাত্রদের জন্য হস্টেলের ব্যবস্থাও রয়েছে।
  • ইন্ডিয়ান এগ্রিকালচারাল রিসার্চ ইনসটিটিউট (IARI), নতুন দিল্লি – পুশা নামে পরিচিত এই ইনসটিটিউটটি ১৯০৫ সালে নতুন দিল্লিতে প্রতিষ্ঠিত হয়। এখানে কৃষি, পরিবেশবিদ্যা, বায়োকেমিস্ট্রি, বায়োইনফরমেটিক্স, উদ্যানবিদ্যা, পুষ্পবিদ্যা, কম্পুটার অ্যাপলিকেশন, ফুড সায়েন্স, প্লানাট প্যাথোলজি, কীটতত্ব, সিড সায়েন্স ও সয়েল সায়েন্স প্রমূখ বিষয়ে নানা কোর্স আছে।
  • আচারিয়া এন জি রাজা এগ্রিকালচার ইউনিভার্সিটি(ANGRAU), - এখানে কৃষি, এগ্রিকালচার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি এবং হোম সায়েন্সে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর কোর্স করানো হয়।
  • চৌধূরী চরণ সিং হরিয়ানা এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি (CCSHAU), হিসার – ১৯৭০ সালে প্রতিষ্ঠিত এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪টি কলেজ আছেঅ –(১)কলেজ অফ এগ্রিকালচার, (২) কলেজ অফ এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি, (৩) কলেজ অফ হোম সায়েন্স, (৪) কলেজ অফ বেসিক হিউম্যানিটিস।
  • ইউনিভার্সিটি অফ এগ্রিকালচারাল সায়েন্সেস(UAS), ব্যাঙ্গালুরু – ১৯৬৩ তে প্রতিষ্ঠিত ভারতের একটি অন্যতম এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি
  • তামিলনাড়ু এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি (TNAU), কোয়েম্বাটুর – এই বিশ্ববিদ্যালয়টি ১৮৬৮ সালে তামিলনাড়ুর সৈদাপেটে প্রতিষ্ঠিত হয়। পরবর্তীকালে কোয়েম্বাটুরে স্থানান্তরিত হয়। এর অধিনে ১৪ টি কলেজ, ৩৬ টি গবেষণা কেন্দ্র ও ১৪টি ফার্ম সায়েন্স সেন্টার আছে।
  • জি বি পন্থ ইউনিভার্সিটি অফ এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি (GBPUA&T), উত্তরাখন্ড – এখানে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও ডিপ্লোমা কোর্সে পড়াশোনা হয় বিভিন্ন বিষয়ে যেমন – কৃষি, বেসিক সায়েন্স, পশুপালন বিদ্যা, মৎসপালন, এগ্রি বিসনেস ম্যানেজমেন্ট ইত্যাদি।
  • পাঞ্জাব এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি (PAU) , লুধিয়ানা – ১৯৬২ সালে প্রতিষ্ঠিত ভারতের তৃতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। এখানে অবিবাহিত ছাত্রদের থাকার হস্টেলের ব্যবস্থা আছে।
  • ইন্ডিয়ান ভেটেরেনারি রিসার্চ ইন্সটিটিউট(IVRI), ইজ্জতনগর – ১৮৮৯ সালে প্রতিষ্ঠিত এই গবেষণা প্রতিষ্ঠানটিতে ২০ টি বিষয়ে স্নাতকোত্তর ও পি্ এইচ ডি পড়ানো হয়। এখানে ডিপ্লোমা কোর্সের পাঠক্রমও পড়ানো হয়।
  • সেন্ট্রাল ইনসটিটিউট অফ ফিসারিস এডুকেশন (CIFE), মুম্বাই – ১৯৬১ সালে প্রতিষ্ঠিত। এই ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠানটির বহু শিক্ষার্থী পরবর্তিকালে দেশের নানা ক্ষেত্রে অসামান্য নেতৃত্ব প্রদান করেছে।

- রুনা নাথ (runa@krishijagran.com)

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters