(Weather forecast) ঘূর্ণাবর্তের কারণে ২৪ ঘন্টার মধ্যে প্রবল বর্ষণ এই রাজ্যগুলিতে

KJ Staff
KJ Staff
Rainfall
Rainfall

মৌসুমী অক্ষরেখা মুজফফরপুর থেকে জলপাইগুড়ির ওপর দিয়ে অসম হয়ে নাগাল্যান্ড পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। ধীরে ধীরে তা উত্তরের দিকে সরছে। আইএমডি-র তথ্য অনুযায়ী, রবিবার বঙ্গোপসাগরে এক নিম্নচাপ সৃষ্টির সম্ভবনা ছিল। সাথে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপরেও রয়েছে ঘূর্ণাবর্ত। এই ঘূর্ণাবর্তের কারণে বঙ্গোপসাগর থেকে রাজ্যে ঢুকছে প্রচুর জলীয় বাষ্প। এর প্রভাবে চলবে ব্যাপক বৃষ্টিপাত।

আজকের আবহাওয়া (Today's weather) -

আজ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সকাল থেকেই আকাশ রয়েছে মেঘলা, তবে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তিও অনুভূত হচ্ছে। দুদিন ব্যাপী বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাতের পরও তাপমাত্রার পরিবর্তন হয়নি।

আজ সকাল থেকেই কোথাও কোথাও শুরু হয়েছে হালকা বৃষ্টিপাত। বিকেলের দিকে বেশ কয়েকটি এলাকায় বিক্ষিপ্তভাবে বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝড়ের সম্ভাবনা রয়েছে। রাত্রের দিকে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হতে পারে বেশ কয়েকটি এলাকায়। সেইসঙ্গে বজায় থাকবে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তিও।

আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে বৃষ্টির সম্ভবনাময় অঞ্চল -

আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে উপকূলীয় কর্ণাটক, অন্ধ্র প্রদেশ, উপ-হিমালয় পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, সিকিম, আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ এবং গুজরাটের বিভিন্ন স্থানে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এই অংশগুলির কয়েকটি স্থানে ভারী বৃষ্টিপাতেরও সম্ভাবনা রয়েছে। বিহার, ঝাড়খণ্ড, মধ্য প্রদেশ, ছত্তিশগড়, অভ্যন্তর মহারাষ্ট্র, তেলেঙ্গানা, কেরালা এবং লাক্ষাদ্বীপের কিছু অংশে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। তামিলনাড়ুর কয়েকটি জায়গায় হালকা বৃষ্টিপাত এবং কিছু জায়গায় মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। পূর্ব উত্তর প্রদেশের কয়েকটি অঞ্চলে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে।

Image Source - Google

Related link - (Weather forecast) আর মাত্র কিছুক্ষণ প্রবল বর্ষণে সিক্ত হতে চলেছে রাজ্য

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters