গ্রামীন মানুষের জীবিকা সংস্থানে ছোট পরিসরের জলজপালন ও অ্যাকোয়াকালচার ফিল্ড স্কুল

KJ Staff
KJ Staff

আমাদের দেশের অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ খাতগুলির মধ্যে একটি হল জলজপালন। মাছ আমাদের একটি গুরুত্বপূর্ণ খাদ্য উপাদান। ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা ও মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্যসচেতনতা বৃদ্ধির কারণে বাজারে মাছের চাহিদাও দিন দিন বাড়ছে। তাই গ্রামের ছোট ছোট জলাশয়গুলি ক্রমশ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জীবিকা ধারনের আধার হয়ে উঠছে।পশ্চিমবঙ্গের গ্রামাঞ্চলে এইরকম ছোট ছোট জলাশয় প্রচুর রয়েছে যেখানে কৃষকরা সহজেই মাছ চাষ করতে পারে। এই জলাশয়গুলি সংস্কার করে গ্রামের যুবকরা সামান্যতম বিনিয়োগের মাধ্যমে জলজপালনের ব্যবসা শুরু করতে পারে। জলজপালন গ্রামের যুবকদের আয়ের একটি প্রধান মাধ্যম হতে পারে।

গ্রামের সুস্থায়ী জীবনধারন পদ্ধতি (SLA) বজায় রাখতে ও দারিদ্র দূরিকরণে ছোট ছোট জলজপালন অত্যন্ত লাভজনক। এর সাহায্যে একজন কৃষক তার কৃষিক্ষেত্র ও খামারের বর্জ্যের সঠিক ব্যবহার করতে পারবে। পুকুরে খামারের বর্জ্য (গোবর, ভার্মিকম্পোস্ট) ও সবজির অবশেষ মিশিয়ে পুকুরের প্রাকৃতিক খাবার বাড়ানো যায়। আবার পুকুরের ধারে সবজি চাষ করলে ঐ পুকুরের জল তরল সারের কাজ করবে ও উৎপাদিত সবজির গুণমানের উন্নতি ঘটাবে।

অ্যাকোয়াকালচার ফিল্ড স্কুল (AFS) – এটি ICAR – CIFA  দ্বারা গৃহীত একটি প্রকল্প  যেখানে মাছচাষীদের একত্রিত করা হয় যাতে তারা উৎপাদন ও আয় বাড়াতে পারে। এখানে মাছের নার্শারী, মাছের খাবার, রোগ সনাক্তকরণ, মাছের খাবার তৈরি করা, সুসংহত মাছচাষ, জল ও মাটি পরীক্ষা পদ্ধতি ও বিভিন্ন নতুন নতুন প্রযুক্তির বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

AFS গঠনের বাভিন্ন ধাপ –

  1. উদ্দ্যোক্তা মাছ চাষীদের সনাক্ত করা, যারা হাজারটা মাছচাষীকে একত্রিত করে তাদের কাছে প্রযুক্তি পৌঁছে দিতে পারবে।
  2. এলাকার জলজপালনের যোগ্য জলাশয়গুলি লিজ নেওয়া, জলজপালন ব্যবস্থাপনা/ পরিচালন ক্ষমতা অর্জন, বিপননের ব্যবস্থা করা।
  3. CIFA, KVK র সাহায্যে উদ্দ্যোক্তা মাছ চাষীদের প্রশিক্ষণ।
  4. AFS র প্রশিক্ষণের বন্দ্যোবস্ত করা।
  5. AFS ও জলজপালন পরিচালন করা
  6. প্রশিক্ষিত মাছচাষীদের জলজপালনের জলাশয়গুলি নিয়মিত পরিদর্শন করা যাতে মাছচাষীরা নতুন নতুন প্রযুক্তিগুলি শিখে নিতে পারে।

SLA ও AFS এর ৪০শতাংশ মাছ তারা নিজেদের পরিবারের খাবার জন্য রাখে বাকি ৬০ শতাংশ বাজারে বাক্রি করে। এই ভাবে গ্রামের মানুষের আর্থিক সুরক্ষার সাথে সাথে খাদ্যসুরক্ষা ও স্বাস্থ্যসুরক্ষাও নিশ্চিত করা যায়। সর্বোপরি গ্রামীন মানুষের জীবিকা/উদ্যোগ গঠনে এবং রোজগার বৃদ্ধিতে এটি একটি কার্যকরী বিকল্প।

রুনা নাথ(runa@krishijagran.com)

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters