(Ration card) কীভাবে বুঝবেন আপনার জন্য কোন রেশন কার্ডটি সঠিক? জেনে নিন আবেদন পদ্ধতি সহ সমস্ত বিশদ

Tuesday, 27 October 2020 01:27 PM
Ration card

Ration card

ওয়ান নেশন, ওয়ান রেশন কার্ড। এখন আপনি যদি রেশন কার্ড বানাতে যান তবে আপনাকে বিশেষ কিছু সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। তবে আপনি নির্ঝঞ্ঝাটে রেশন কার্ড পাবেন। আপনি যদি না জেনে রেশন কার্ড অ্যাপ্লিকেশনটি পূরণ করেন তবে পরে আপনার আবেদনও বাতিল হয়ে যেতে পারে। প্রথমত, আপনার যে ধরণের রেশন কার্ড তৈরি করা উচিত সেদিকে মনোযোগ দিতে হবে, আপনি যে ডকুমেন্টগুলি দিচ্ছেন তাতে আপনার বয়স, ঠিকানা সঠিক থাকা জরুরি।

রেশন কার্ড তৈরি করার সময় এই বিষয়গুলি মনে রাখবেন -

রেশন কার্ড রাজ্য সরকার থেকে তৈরি করা হয়। বর্তমানে দেশে ৪ ধরণের রেশন কার্ড তৈরি হচ্ছে। বেশ কয়েকটি রাজ্য পৃথকভাবে রেশন কার্ডও তৈরি করছে। অনেক রাজ্যে রেশন কার্ড নিখরচায় করা হয়, অনেক রাজ্যে আবার ৫ থেকে ৪০ টাকা পর্যন্ত চার্জ নেওয়া হয়।

আর্থিক পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে আপনার জন্য বিভিন্ন ধরণের রেশন কার্ড যেমন, বিপিএল, এপিএল, এওয়াই এবং এএওয়াই কার্ডগুলি তৈরি করা হয়। রেশন কার্ডের সাহায্যে সাধারণ মানুষ পাবলিক ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেমের (পিডিএস) আওতায় ন্যায্য মূল্যের দোকান থেকে বাজার মূল্যের চেয়ে অনেক কম দামে খাদ্যশস্য কিনতে সমর্থ হন।

আবেদন করার সময় এই নথিগুলি দাখিল করতে হবে -

রেশন কার্ড রাজ্য সরকার থেকে তৈরি করা হয়। বর্তমানে দেশে ৪ ধরণের রেশন কার্ড তৈরি হচ্ছে। বেশ কয়েকটি রাজ্য পৃথকভাবে রেশন কার্ডও তৈরি করছে। অনেক রাজ্যে রেশন কার্ড নিখরচায় করা হয়, অনেক রাজ্যে আবার ৫ থেকে ৪০ টাকা পর্যন্ত চার্জ নেওয়া হয়।

আর্থিক পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে আপনার জন্য বিভিন্ন ধরণের রেশন কার্ড যেমন, বিপিএল, এপিএল, এওয়াই এবং এএওয়াই কার্ডগুলি তৈরি করা হয়। রেশন কার্ডের সাহায্যে সাধারণ মানুষ পাবলিক ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেমের (পিডিএস) আওতায় ন্যায্য মূল্যের দোকান থেকে বাজার মূল্যের চেয়ে অনেক কম দামে খাদ্যশস্য কিনতে সমর্থ হন।

আবেদন করার সময় এই নথিগুলি দাখিল করতে হবে -

আধার কার্ড/ভোটার আইডি/পাসপোর্ট/ ড্রাইভিং লাইসেন্স যে কোনও একটি, রেশন কার্ড তৈরির জন্য আইডি প্রুফ হিসাবে দেওয়া যেতে পারে। এ ছাড়া প্যান কার্ড, পাসপোর্ট সাইজের ছবি, আয়ের শংসাপত্র, ঠিকানার প্রমাণ, বিদ্যুতের বিল, গ্যাস সংযোগের বই, টেলিফোন বিল, ব্যাংক স্টেটমেন্ট বা পাসবুক, ইত্যাদি নথিও জমা দিতে হবে।

যে ধরণের রেশন কার্ডের জন্য আপনি আবেদন করছেন, তা ফর্ম পূরণের আগে ভালো করে তা দেখে নিন। ফর্মে নির্ভুলভাবে তথ্য প্রদান করে ফর্মটি পূরণ করুন। এরপর ফর্মের সাথে উল্লিখিত নথি সহ তা খাদ্যভবনে গিয়ে জমা দিন। সমস্ত তথ্য ঠিক থাকলে সরকার থেকে শীঘ্রই আপনার কার্ড তৈরি করা হবে।

Image source - Google

Related link - (PM Kisan Samman Nidhi Yojana) ৩১ শে অক্টোবরের আগে আবেদন করুন আর পেয়ে যান প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি যোজনার দুটি কিস্তি

English Summary: How do you know which ration card is right for you? Find out all the details

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.