গোমূত্রে লুকিয়ে রয়েছে বহু রোগ নিরাময়ের হাতিয়ার! রইল বিস্তারিত

 রুপালী দাস
রুপালী দাস
গোমূত্রে লুকিয়ে রয়েছে বহু রোগ নিরাময়ের হাতিয়ার! রইল বিস্তারিত

গরু হল এমন একটি প্রাণী যার দ্রব্য ও অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ মানুষকে জীবন, স্বাস্থ্য, সুখ, শান্তি, আনন্দ, তৃপ্তি দেয়। আজ আমরা গোমূত্রর ইত্যাদির গুণাগুণ সম্পর্কে আলোচনা করব।  

দাঁতের রোগে দাঁত পরিষ্কার করে গোমূত্র মুখে কিছুক্ষণ রাখলে দাঁতের ব্যথা সেরে যায়। এটি কার্বলিক অ্যাসিডের কারণে। ছোট বাচ্চাদের হাড় দুর্বল হলে ৫০ মিলি গোমূত্র নিয়মিত সকালে খেলে কিছু দিনের মধ্যে হাড় শক্ত হয়ে যায়। গোমূত্রে থাকা ল্যাকটোজ শিশু ও বয়স্কদের প্রোটিন সরবরাহ করে। গরুর মূত্র আপনার হৃদপিন্ডের কোষকে টোন করে। গোমূত্র বৃদ্ধ বয়সে মস্তিষ্ককে দুর্বল হতে দেয় না। 

গোমূত্র, মহিলাদের জেনেটিক মানসিক রোগ প্রতিরোধ করে। "গোমূত্র" সিফিলিস এবং গনোরিয়ার মত যৌনবাহিত রোগকে ধ্বংস করে।  নিয়মিত খালি পেটে আধা কাপ গোমূত্র খেলে যাবতীয় যৌনরোগ সেরে যায়। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল গোমূত্র দ্বারা নিরাময় করা রোগ তাড়াতাড়ি হয় না, এটাই গোমূত্রের বৈশিষ্ট্য।

গোমূত্রে কার্বলিক অ্যাসিড হাড়, মজ্জা এবং বীর্যকে বিশুদ্ধ করে। নিয়মিত গোমূত্র পান করলে মাসে ২ থেকে ৩ কেজি অতিরিক্ত ওজন কমে। গোমূত্র ভিটিলিগোর সেরা ওষুধ। গোমূত্র অতিরিক্ত কোলেস্টেরল ধ্বংস করে। থাইরয়েডেও গোমূত্র উপকারী। গোমূত্র দ্বারা কোষ্ঠকাঠিন্য সম্পূর্ণ নিরাময় হয়। গোমূত্র দ্বারা অর্শ রোগ নিরাময় হয়। হৃৎপিণ্ডের ব্লকেজগুলো ধীরে ধীরে গোমূত্রের মাধ্যমে খুলে যায়। তুলসীর 5টি পাতা, 5 চা চামচ গোমূত্র নিয়মিত সেবনে প্রাথমিক পর্যায়ের ক্যান্সার, টিবি সেরে যায়।  নিয়মিত গোমূত্র সেবনে ব্যাকটেরিয়া বা ভাইরাল সংক্রমণ হয় না। 30 মিলি গোমূত্রে 3 চা চামচ মধু যোগ করলে ছোট বাচ্চাদের পেটের থ্রেডওয়ার্ম এবং নেমাটোড এক সপ্তাহের মধ্যে চলে যায়। 

যাদের পেটের অসুখ আছে তাদের নিয়মিত গোমূত্র খাওয়া উচিত। গোমূত্র দ্রুত ক্ষত নিরাময় করে এবং টিটেনাসের ঝুঁকি এড়ায়। এক চামচ গোমূত্রে ২ ফোঁটা সরিষার তেল মিশিয়ে নাকে লাগান। শ্বাস নেওয়া সহজ ছিল। গোমূত্রে সামান্য গরুর ঘি ও কর্পূর মিশিয়ে কাপড় ভিজিয়ে বুকে লাগান। সায়াটিকা, হাঁটু, কনুই, শ্রোণী, পেশী ব্যথা, ফোলা রোগের ক্ষেত্রে গোমূত্রের চেয়ে বড় আর কোন ওষুধ নেই। আর্থ্রাইটিস, অস্টিওপোরোসিস, বাতজ্বর এবং আর্থ্রাইটিসে সব ওষুধই অকার্যকর। 80 ধরনের বাত রোগের মধ্যে গোমূত্রই একমাত্র ওষুধ। এর জন্য আধা কাপ গোমূত্রে ২ গ্রাম খাঁটি শিলাজিৎ, ১ চা চামচ আদা গুঁড়ো, খাঁটি গুগ্গুল বা মহাযোগরাজ গুগ্গুলের 2টি ট্যাবলেট মেশান। হাড়ের রোগ নিরাময় হয়।

যাদের পেটের অসুখ আছে তাদের নিয়মিত গোমূত্র খাওয়া উচিত। গোমূত্র দ্রুত ক্ষত নিরাময় করে এবং টিটেনাসের ঝুঁকি এড়ায়। এক চামচ গোমূত্রে ২ ফোঁটা সরিষার তেল মিশিয়ে নাকে লাগান। শ্বাস নেওয়া সহজ ছিল। গোমূত্রে সামান্য গরুর ঘি ও কর্পূর মিশিয়ে কাপড় ভিজিয়ে বুকে লাগান। সায়াটিকা, হাঁটু, কনুই, শ্রোণী, পেশী ব্যথা, ফোলা রোগের ক্ষেত্রে গোমূত্রের চেয়ে বড় আর কোন ওষুধ নেই। আর্থ্রাইটিস, অস্টিওপোরোসিস, বাতজ্বর এবং আর্থ্রাইটিসে সব ওষুধই অকার্যকর। 80 ধরনের বাত রোগের মধ্যে গোমূত্রই একমাত্র ওষুধ। 

আরও পড়ুনঃ লাল সিন্ধি: বিশাল দুধ উৎপাদনের জন্য একটি জনপ্রিয় দুগ্ধজাত গবাদি পশু

গোমূত্রে ১ চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল বা বাদাম অয়েল মিশিয়ে খেলে ডায়রিয়া দূর হয়। শিশুদের মলত্যাগের ক্ষেত্রে গোমূত্রে ২ চা চামচ মধু মিশিয়ে নিন। গরুর দুধে ২ চা চামচ ঘি মিশিয়ে খেলে গর্ভবতী মহিলাদের কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। ডায়াবেটিসে গোমূত্র খুবই উপকারী। গোমূত্র ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে।  50 মিলি গোমূত্রের সাথে 30 মিলি অ্যালোভেরার রস মিশিয়ে পান করলে হজমের সমস্ত রোগ সেরে যায়। 2 গ্রাম ওভাচূর্ণ বা জায়ফল গোমূত্রে মিশিয়ে খেলে পেটের ব্যথা, বমি বমি ভাব, বমিভাব এবং ক্ষুধামন্দা উপশম হয়।

হেমোরয়েডের যে কোনো অভিযোগে ৫০ থেকে ১০০ মিলি গোমূত্র পান করলে উপকার পাওয়া যায়। খোস-পাঁচড়া, একজিমা, সাদা দাগ, কুষ্ঠ, গোমূত্রের রসের সঙ্গে সকাল-সন্ধ্যা মিশিয়ে খেলে এ ধরনের রোগ দ্রুত সেরে যায়। বাটারমিল্ক তেলের সাথে গোমূত্র মিশিয়ে ত্বকে ম্যাসাজ করুন। 

আরও পড়ুনঃ  জার্সি গাভী পালন করে লাখ লাখ টাকা লাভ, প্রতিদিন 12 থেকে 14 লিটার দুধ পাবেন

Published On: 18 May 2022, 03:35 PM English Summary: There are many healing tools hidden in cow urine! Here are the details

Like this article?

Hey! I am রুপালী দাস. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters