Balsam Flower Farming: জুলাই মাসেই চারা লাগান, জেনে নিন দোপাটির চাষ পদ্ধতি

KJ Staff
KJ Staff
Balsam Flower (image credit- Google)
Balsam Flower (image credit- Google)

দোপাটি খুবই জনপ্রিয় সুন্দর একটি ফুল | বর্ষাকালে এই ফুল অধিক বড় ও সুন্দর দেখতে হয়ে থাকে | হালকা উর্বর মাটি ও প্রচুর জল এই ফুল চাষে সহায়ক | এর ইংরাজি নাম: Garden Balsam, Lady Slipper, balsam  | আপনার বাড়ির ছাদে অনায়াসে এই ফুলের চাষ করা যায় | জুলাই-আগস্ট মাসে এই ফুলের চারা বপন করা শুরু হয় | এই নিবন্ধে দোপাটির (Dopati cultivation) বিস্তারিত চাষ পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করা হলো;

জাত:

আমাদের দেশে লাল, বেগুনি, হলুদ ইত্যদি রঙের দোপাটি চাষ হয়ে থাকে | বালসাম এবং ক্যামেলিয়া এই ২ টি জাতই বেশি চাষ হয়ে থাকে |

মাটি (Soil):

বেলে-দোআঁশ মাটি এই গাছের জন্য বেশ উপযুক্ত। বেলে-দোআঁশ মাটির সঙ্গে গোবর সার, পাতা পচা সার, সরিষার খোল ইত্যাদি দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে মাটি প্রস্তুত করুন। মাটিকে একেবারে ঝুরঝুরে করে নিন। টবের মধ্যে জল দিয়ে অন্তত ছয় দিন রেখে দিন। তারপরে মাঝে গর্ত করে চারা লাগিয়ে দিন। ১০ দিন অন্তর অন্তর চারার চারপাশে গোবর সার দিন ।

আরও পড়ুন -Cash Crop Garlic Farming: জেনে নিন কিভাবে অর্থকরী ফসল রসুন চাষ করা যায়

জলবায়ু (Climate):

দোপাটি ফুল গাছের চাষের জন্য ভেজা মাটি তবে খুব বেশী স্যাঁতসেঁতে আর্দ্র মাটি প্রয়োজন হয় না। আবার মাটি যাতে বেশী ভিজে কাঁদা কাঁদা না হয় সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। আর কোনো কারণে মাটি বেশী স্যাঁতস্যাঁতে বা ভিজে থাকলে সেই কয়দিন জল দেওয়ার প্রয়োজন নেই। এই গাছ চাষের জন্য উম্মুক্ত পরিবেশ দরকার হয়। তবে নিয়ম করে জল দিতে হবে।

জমি তৈরী:

এই ফুল চাষের জমি উর্বর, উঁচু ও সহজে জল নিষ্কাশন করা যায় এমন হওয়া প্রয়োজন | নির্বাচিত জমি লাঙ্গল বা কোদাল দিয়ে ৪-৫ বার গভীরভাবে কর্ষণ করে মাটি ঝুরঝুরে করতে হবে | জমি পরিষ্কার করে প্রতি ১০০ মিটার জায়গায় টো০ কেজি পাতা পচা সার বা গোবর সার, ৬-১০ কেজি কাঠের ছাই, ২-৩ কেজি এসএসপি সার মাটিতে মিশিয়ে দিতে হবে | এঁটেল মাটির জমিতে চাষের সময় চুন মিশিয়ে দিতে হবে | এরপর মাটি সমতল করে ৩ থেকে ৪ সে: মি: বীজের ও ৪-৫ টি পাতার কলমের চারা রোপন করতে হবে |

চারা রোপন:

চারা থেকে চারার দূরত্ব ১৫-২৫ সে: মি: এবং লাইন থেকে লাইনের দূরত্ব ৩০-৪০ সে: মি: থাকতে হবে |

পরিচর্যা:

আপনাকে প্রথমে প্লাস্টিকের পাইপ, পাট কাঠি,কঞ্চি,শক্ত লাঠি জোগাড় করতে হবে। এরপর এগুলি দিয়ে গাছগুলিকে ঠেকনা দিয়ে রাখা যায়। বড় হলে অবশ্য অবলম্বল গুলি সরিয়ে ফেলুন।এরপর সার হিসেবে চাপান সার বা তরল সার দিতে হবে। দোপাটি গাছে জল দেওয়ার সময় খেয়াল রাখতে হবে যাতে গোড়ায় অত্যাধিক জল না জমে।  নিয়ম করে মাটি খুঁচিয়ে দিতে হবে।

রোগ ও প্রতিকার (Disease management system):

সার হিসেবে চাপান সার বা তরল সার দিতে হবে। দোপাটি গাছে জল দেওয়ার সময় খেয়াল রাখতে হবে যাতে গোড়ায় অত্যাধিক জল না জমে। মাসে একবার/দুবার মাটি খুঁচিয়ে দিতে হবে। এই গাছে গুঁড়ো চিতি রোগ হতে পারে।তাতে পাতা ও ডাঁটায় সাদা ও ছাই রঙের পাতলা আস্তরণ পড়ে। আক্রান্ত গাছের বৃদ্ধি বন্ধ হয়ে যায়। গাছ গুলি পড়ে পচে মরে যায়। এক্ষেত্রে দ্রবণীয় গন্ধক জলে গুলে পাতায় ২-৩বার ছড়াতে হবে।

ফুল সংগ্রহ:

জুলাই-আগস্ট মাসে চারা লাগানোর ২ ৩ মাসের মধ্যেই গাছে ফুল ভরে যায় সঠিক পরিচর্যা নিলে |

নিবন্ধ: রায়না ঘোষ

আরও পড়ুন -Ladies Finger Farming: জেনে নিন আধুনিক উপায়ে ঢেঁড়স চাষ পদ্ধতি

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters