বর্ষায় কলার নার্সারিতে (Banana Nursery) কৃষকেরা দেখতে পারেন লাভের মুখ

Friday, 19 June 2020 05:11 PM

ভারতে কিছুক্ষেত্রে বাণিজ্যিক চাষাবাদ করা হয়, যার মধ্যে কলার নার্সারি (Banana Nursery) অন্যতম৷ এই বাণিজ্যিক চাষে (Profitable Business) প্রচুর লাভের সম্ভাবনা থাকায় অনেকেই এতে আগ্রহ প্রকাশ করেন৷ এতে যেমন ব্যয় কম তেমনই গ্রাম্য পরিবেশে এই কম বিনিয়োগ করেই নার্সারি থেকে প্রচুর পরিমাণ অর্থ উপার্জনের সুযোগ থাকে৷ কমপক্ষে এক থেকে দেড় মাসের মধ্যেই কলার এই নার্সারি থেকে ভালো রোজগার করা যেতে পারে৷

লখনউ, গোরখপুর, কৌশাম্বি এমনই বিভিন্ন স্থানে কলার নার্সারির প্রচুর চাহিদা রয়েছে৷ সুযোগ থাকলে অন্যান্যরাও এটি চেষ্টা করে দেখতে পারেন, তবে তার জন্য কয়েকটি বিষয় একটু জেনে নেওয়া যাক৷ এই কলার নার্সারি (Banana Nursery) তৈরি করতে সময় লাগে কমপক্ষে ২৫-৩০ দিন৷ টিস্যু কালচার পদ্ধতি অনুসরণ করা হয় কলার নার্সারিতে৷ তাই কম সময়েই গাছ বেড়ে ওঠে এবং কৃষক যথাযথ মূল্যও পেয়ে থাকেন৷

বছরের যে কোনও সময়েই এই নার্সারি শুরু করা যেতে পারে৷ তবে মে এবং জুন মাসকে (Monsoon 2020) এই নার্সারির জন্য সবথেকে ভাসো সময় বলে মনে করা হয়৷ জুন পর্যন্ত নার্সারি তৈরি হয়ে গেলে জুলাই এবং অগস্টে কলার চারা রোপন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে৷ ফল উৎপাদনে ভারতে কলার স্থান তৃতীয়তে৷ ভারতে মোট ফল উৎপাদনের ৩৩ শতাংশ জুড়ে রয়েছে কলা৷ সারা বছরই পুষ্টিগুণে ভরা এই ফল পাওয়া যায় দেশে৷ পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, উত্তরপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, অসম, গুজরাত, কর্ণাটক প্রভৃতি রাজ্যগুলিতে কলার প্রচুর উৎপাদন হয়৷ আর এইসব রাজ্যের মধ্যে কলার সবথেকে বেশি ফলন হয় মহারাষ্ট্রে৷

কলার নার্সারির জন্য পলি ব্যাগ অত্যন্ত প্রয়োজনীয়৷ সবথেকে প্রথমে একটি পলি ব্যাগ নিয়ে তাতে মাটি এবং গোবর সার সমান সমান দিয়ে ভর্তি করতে হবে৷ এরপর এতে মাঝে মাঝে জল দিতে হবে পরিমিত পরিমাণে৷ এবং কিছু দিন পরে পরে ব্যাভিস্টিন এবং এনপিকে ১৯ ছড়াতে হবে৷

প্রায় এক মাসের মধ্যে নার্সারির জন্য জমি প্রস্তুত হয়ে যায়৷ প্রত্যেক রাজ্যে কৃষিশিক্ষা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বা কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্র থেকে এই বিষয়ে বিস্তারিত শিখে নিতে পারেন ইচ্ছুক কৃষকেরা৷

এক বিঘা জমি থেকেই বাণিজ্যিকভাবে কলার নার্সারি শুরু করা যেতে পারে৷ এক বিঘাতে তৈরি হয়ে যাবে প্রায় এক লক্ষ গাছ৷ এই এক লক্ষ গাছের নার্সারির জমিতে ব্যয় হতে পারে প্রায় ৯-১০ লক্ষ টাকা৷ আরও কম টাকাতেও ছোট বা মাঝারি ধরণের নার্সারি করতে পারেন কৃষকেরা৷ খুব কম সময়ের মধ্যে ব্যাপক উপার্জন করতে চাইলে বাণিজ্যিকভাবে এই কলার নার্সারি লাভজনক হতে পারে৷

আরও পড়ুন- বর্ষায় স্বল্প ব্যয়েই চাষ করুন অড়হর (Pigeon Pea Farming), হবে প্রচুর মুনাফা

English Summary: Banana nursery will be profitable for farmers

আপনার সমর্থন প্রদর্শন করুন

প্রিয় অনুগ্রাহক, আমাদের পাঠক হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনার মতো পাঠকরা আমাদের কৃষি সাংবাদিকতা অগ্রগমনের অনুপ্রেরণা। গ্রামীণ ভারতের প্রতিটি কোণে কৃষক এবং অন্যান্য সকলের কাছে মানসম্পন্ন কৃষি সংবাদ বিতরণের জন্যে আমাদের আপনার সমর্থন দরকার। আপনার প্রতিটি অবদান আমাদের ভবিষ্যতের জন্য মূল্যবান।

এখনই অবদান রাখুন (Contribute Now)

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.