নগদ ফসল আলু চাষের পরবর্তী ব্যবস্থাপনা ও বীজ সংগ্রহ, অর্থ সাশ্রয়ের জন্য কৃষকবন্ধুরা এখন নিজের ফসলের বীজ সংরক্ষণ করুন নিজেই (Preserve Your Potato Seeds Yourself)

KJ Staff
KJ Staff
Potato Farming & Seed Preservation (Image Credit - Google)
Potato Farming & Seed Preservation (Image Credit - Google)

আলু শীতকালীন নগদ ফসল। বাংলায় আলু চাষ করা হয় প্রায় ৪.৬ লক্ষ হেক্টর জমিতে। হুগলি, বর্ধমান, বাঁকুড়া, পূর্ব এবং পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা আলু চাষের জন্য বিখ্যাত। এখানকার প্রারম্ভিক জাত – পোখরাজ। আলুর বপন সাধারণত অক্টোবরের শেষের দিকে শুরু হয় এবং ডিসেম্বরের শেষে ফসল কাটা শুরু হয়।

আলু নগদ ফসল হওয়ায় এই চাষে কৃষক ভালো পরিমাণ অর্থ উপার্জনের সুযোগ পেয়ে থাকেন। কিন্তু চাষে ফলন ভালো হলেও সঠিক ব্যবস্থাপনার অভাবে কিন্তু আর্থিক ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা রয়ে যায়। সুতরাং, চাষে সঠিক সময়ে ফসল সংগ্রহ, সংরক্ষণ এবং তার ব্যবস্থাপনা অত্যন্ত জরুরি। এই কারণে আজ আমরা আপনাদের আলু চাষে ফসলের সঠিক ব্যবস্থাপনা ও তার সংরক্ষণ পদ্ধতি সম্পর্কে সঠিক তথ্য প্রদান করতে চলেছি।

আলু তোলা ও ফলন (Harvesting method) -

আলু তোলার ১০-১২ দিন আগে সেচ বন্ধ করে দিতে হবে। আলু তুলে সঙ্গে সঙ্গে বাজার জাত করলে বা খাবার জন্য ব্যবহার করলে গাছ কাটার প্রয়োজন হয় না কিন্তু বীজ কন্দ হিসাবে ব্যবহার করলে অবশ্যই গাছ কাটা উচিত। যদিও জাত অনুযায়ী ফলন নির্ভর করে। সাধারণত গড়ে ফলন ৩০-৩৩ কুইন্ট্যাল প্রতি বিঘা।

হিমঘরে রাখার পূর্বে বীজশোধন (Seed storage) -

আমাদের কৃষক বন্ধুদের অনেকেই আলু তোলার পর সেখান থেকে বাছাই করে স্টোরে রাখেন এবং বীজ হিসেবে পরের বছর ব্যবহার করেন। তাদের কিন্তু কয়েকটি বিষয় সম্পর্কে সঠিক ধারণা রাখতে হবে। মাত্রা বিন্যাসের পর, কন্দগুলি পরিষ্কার জলে ধুয়ে নিতে হবে, এরপর ১ শতাংশ ক্লোরিন দ্রবণে ডুবিয়ে আবার জলে ধুয়ে নিতে হবে। পরিষ্কার করা আলু ৩ শতাংশ বরিক অ্যাসিড দ্রবণে ২০ মিনিট ভিজিয়ে ছায়ায় শুকাতে হবে অথবা ৫ শতাংশ বরিক অ্যাসিড দ্রবণ আলু বীজে স্প্রে করা হয়, এতে বীজের উপরে যে সমস্ত রোগগজীবাণু থাকে, সেগুলি থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

একই দ্রবণ ১৫-২০ বার ব্যবহার করা যাবে।উত্তম বায়ু চলাচলযোগ্য এমন চটের থলেতে বীজ আলু ভর্তি করা হয়।  বস্তার লেবেলে 'POISONOUS' বলে উল্লেখ করতে হবে। বীজ সংরক্ষণের জন্য হিমঘরে পাঠাতে হবে। বীজ আলু রাখার বস্তাগুলিকে ২.৫ গ্রাম ম্যানকোজেব প্রতি লিটার জলের দ্রবণে ডুবিয়ে জীবাণু মুক্ত করতে হবে এবং ছায়ায় শুকিয়ে নিতে হবে এবং সত্ত্বর হিমঘরে পাঠাতে হবে। দিনের তাপমাত্রা ৩২ ডিগ্রী সেলসিয়াস এর বেশী থাকলে বীজ আলুকে প্রারম্ভিক কক্ষে অথবা ঠান্ডা জায়গায় রাখতে হবে। বীজ সংরক্ষণের জন্য হিমঘরের তাপমাত্রা ২-৪ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড এবং আপেক্ষিক আর্দ্রতা ৯৫ শতাংশের বেশী থাকা জরুরী। বীজের বস্তাগুলিকে এমনভাবে রাখতে হবে যাতে ভালোভাবে বায়ু চলাচল করে এবং প্রয়োজনে বর্ষাকালে ঘুরিয়ে দিতে হবে।

আরও পড়ুন - শীতের এই মরসুমে সরিষার চাষে কীভাবে কৃষক লাভ করতে পারেন? রইল সরিষা চাষের সম্পূর্ণ তথ্য (Mustard Cultivation)

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters