(High yield of wheat at low cost) কম খরচে গমের উচ্চ ফলন পেতে চান? এই পদ্ধতির অনুসরণ করুন

Thursday, 12 November 2020 12:51 PM
Wheat cultivation

Wheat cultivation

যে কোন ফসল আবাদে ভালো ফলন পেতে মাটি পরীক্ষা করার পরে সার ব্যবহার করুন। সঠিক সময়ে সুষম মাত্রায় সার প্রয়োগ করলে উচ্চ ফলনের সাথে সাথে গুণমানের ফসল উৎপন্ন হয়। সার বীজ বপনের আগে ২-৩ সেন্টিমিটার গভীরে প্রয়োগ করুন। জৈব সার ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন, যা মাটির স্বাস্থ্য এবং উত্পাদনশীলতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

বিশেষজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ী, প্রস্তাবিত পরিমাণে বীজ ব্যবহার করুন। অঞ্চল অনুযায়ী খাঁটি, স্বাস্থ্যকর, পোকামাকড় এবং রোগ-প্রতিরোধী জাত নির্বাচন করুন এবং তা সময়মতো বপন করুন। বীজ বপনের সাথে সার প্রয়োগ করবেন না। দেরিতে বপনের ক্ষেত্রে জিরো টিলেজ ফার্মিং-এর মতো রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট কৌশলগুলি ব্যবহার করুন।  

সময়মতো আগাছা নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা গ্রহণ করুন।ঘাটিনাশক ওষুধ ব্যবহার করার সময় ফসলের স্যাপের ঘনত্ব এবং স্যাপের ধরন অনুযায়ী রাসায়নিক নির্বাচন করার বিষয়ে খেয়াল রাখুন মাটিতে পর্যাপ্ত আর্দ্রতা ও সঠিক পরিমাণ ও সমাধানের ক্ষেত্রে আগাছা কীটনাশকের ব্যবহার ব্যবহার

সেচ ব্যবস্থাপনা-

গম ফসলের ৫ থেকে ৬ টি সেচ প্রয়োজন। তবে কৃষকদের জল, মাটি এবং উদ্ভিদের প্রয়োজনীয়তা অনুসারে সেচ দেওয়া উচিত।

Wheat stubble management

Wheat stubble management

রোগ এবং কীটপতঙ্গ -

  • কৃষকদের প্রতিরোধী জাতের বপন করা উচিত।
  • নাইট্রোজেন সার সুষম পরিমাণে ব্যবহার করা উচিত।
  • বীজজনিত সংক্রমণ পরিচালনার জন্য প্রত্যয়িত বীজ ব্যবহার করুন।
  • ৫ গ্রাম / কেজি হারে কারবক্সিন (৭৫ ডাব্লুপি) বা কার্বেনডাজিম (৫০ ডাব্লুপি) দিয়ে বীজের চিকিত্সা করুন।
  • রাস্ট রোগে, প্রোপিকোনাজল (২৫ ইসি) বা টেবুকোনাজল (২৫০ ইসি) দ্রবণের ১ শতাংশ (১.০ মিলি/লিটার) স্প্রে করতে হবে।
  • পালমোনারি অ্যাসিডিটি রোগের ক্ষেত্রে, বালিতে উদ্ভিদ জন্মানোর সময় লেউ প্রোপিকোনাজল (২৫ ইসি) নামে একটি ওষুধের ১ শতাংশ (১.০ মিলি/লিটার) এর ১ বার স্প্রে করতে হবে।

গমের স্টাবল ব্যবস্থাপনা (Stubble management of wheat) -

গমের ফসল তোলার পরে স্টাবল জমিতে পোড়াবেন না, এই মূলদেশ পোড়ানোর ফলে ক্ষেতের মাটিতে বসবাসকারী উপকারী অণুজীবের ক্ষতি হয় এবং তা পরিবেশ ও জীবতন্ত্রের পক্ষেও হানিকারক। গম সংগ্রহের পরে, জমিতে যথাযথ আর্দ্রতর অবস্থায়, রোটাভেটার চালালে মূলদেশ কেটে মাটিতে মিশিয়ে যায়, যা মাটির জন্যও উপকারী।

সাম্প্রতিককালে, রাসায়নিকের অনিয়মিত ব্যবহারের কারণে কৃষির উত্পাদন ব্যয় বৃদ্ধি পাচ্ছে, এই উত্পাদন ব্যয় হ্রাস করা প্রয়োজন। উত্পাদন ব্যয় হ্রাস করার সবচেয়ে সহজ এবং কার্যকর উপায় হ'ল সমন্বিত ব্যবস্থাপনা গ্রহণ করা।

আবহাওয়ার পরিবর্তন, বৈশ্বিক উষ্ণায়ন এবং পারিপার্শ্বিক পরিবর্তনের কারণে কীটশত্রু ও রোগের সমস্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।এগুলির কার্যকর ব্যবস্থাপনার জন্য সমন্বিত ব্যবস্থা গ্রহণ করা একান্ত প্রয়োজনীয়।

কৃষিক্ষেত্রে উত্পাদন বৃদ্ধির জন্য সময়োপযোগী দক্ষ পরিচালনা ও সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা প্রয়োজন। অনেক সময় কৃষক আগাছা নিয়ন্ত্রণের জন্য এমন ধরণের রাসায়নিক প্রয়োগ করেন যা আগাছা নিয়ন্ত্রণ করলেও মাটি এবং পরিবেশের উপর ক্ষতিকারক প্রভাব বিস্তার করে। সুতরাং, স্থানীয় কৃষি বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ব্যতীত জমিতে নিরন্তর রাসায়নিক প্রয়োগ করবেন না।

Image source - Google

Related link - (Ekangi Kaempheria galanga L.) কৃষকবন্ধুদের আয় বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে এই পদ্ধতিতে একাঙ্গী চাষ করুন

(Cultivating snails) শামুক থেকে লক্ষ্মীলাভ করছেন পশ্চিমবঙ্গের কৃষক, আপনিও এই পদ্ধতিতে চাষ করুন আর নিজের আয় বৃদ্ধি করুন

English Summary: Want to get high yield of wheat at low cost? Follow this procedure

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.