এগ্রোক্য়ামিকালের দায়িত্বশীল ব্যবহারের জন্য করোমন্ডলের দায়িত্বশীল পদ্ধতি

 রুপালী দাস
রুপালী দাস
এগ্রোক্য়ামিকালের দায়িত্বশীল ব্যবহারের জন্য করোমন্ডলের দায়িত্বশীল পদ্ধতি

দায়িত্ববোধ হল একটি নৈতিকতা যা সম্পদের দায়িত্বশীল  পরিকল্পনা ও ব্যবস্থাপনাকে রুপ দান করে। কৃষি রাসায়নিক পণ্যের ক্ষেত্রে, উৎপাদন, সরবরাহ (স্টোরেজ, পরিবহন এবং বিতরণ), বিপণন এবং বিক্রয়ের সময় দায়িত্বশীল এবং নৈতিক ব্যবস্থাপনা প্রয়োজন । দায়িত্বশীল পদ্ধতির সামগ্রিক লক্ষ্য হল  সর্বাধিক সুবিধা প্রদান করা এবং কৃষি কাজে রাসায়নিক ব্যবহারের ঝুঁকি একদম  কমিয়ে আনা।

 

যদিও এগ্রোকেমিক্যাল উৎপাদনকারী কোম্পানি তাদের তৈরি  পন্য় ব্য়বসায়িক ময়দান ছেড়ে না যাওয়া পর্যন্ত সবকিছুর নিয়ন্ত্রণে থাকবে।  কৃষি রাসায়নিকের সব স্তরে অত্যন্ত সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। পণ্যের জীবনচক্রের বিভিন্ন পর্যায়ে বিভিন্ন দিকের যত্ন নেওয়া অত্য়ন্ত প্রয়োজন। বাজারে নতুন পণ্যের আনার ক্ষেত্রেও সরকার নিয়ম তৈরি করেছে।  ফসলের কীটপতঙ্গ এবং রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার ক্ষেত্রে পণ্যের গুনমান পরীক্ষা করা হয়। পণ্যটির বিষাক্ততা এবং পরিবেশের উপর এর কোনো ক্ষতিকারক প্রভাব পরছে কিনা নিশ্চিত করা। 

স্টুয়ার্ডশিপ হল কোরোমন্ডেল ইন্টারন্যাশনালের মূল মন্ত্র। সেইজন্য কোম্পানি বিশ্বাস করে যে কৃষক এবং সংশ্লিষ্ট সকল স্টেকহোল্ডারদের কৃষি রাসায়নিক পণ্যের দায়িত্বশীল ব্যবহারের প্রতি সংবেদনশীল হওয়া দরকার।  করোমন্ডেল মনে করেন যে কৃষকরা এই প্রক্রিয়ায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তদনুসারে, কোম্পানিটি কৃষকদের কাছে এই বার্তাটি ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য 'শস্য সুরক্ষা এবং পণ্যের দায়িত্বশীল ব্যবহার' বিষয়ে একটি প্রচার শুরু করেছে।

এগ্রোক্য়ামিকালের দায়িত্বশীল ব্যবহারের জন্য করোমন্ডলের দায়িত্বশীল পদ্ধতি

কিষাণ দিবস উপলক্ষে, যখন এই প্রচারাভিযানটি চালু করা হয়েছিল, তখন এন কে রাজাভেলু ইভিপি এবং এসবিইউ প্রধান, বলেছিলেন যে "স্টুয়ার্ডশিপ শেষ ব্যবহারকারী এবং কৃষকদের সাথে একটি বিশেষ বন্ধন তৈরি করতে সহায়তা করে ৷ আজ প্রকৃতপক্ষে করোমন্ডেলে আমাদের সকলের জন্য একটি ঐতিহাসিক দিন কারণ আমরা দিনটিকে উৎসর্গ করছি ফসল সুরক্ষা পণ্যের দায়িত্বশীল ব্যবহারের বার্তা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য।"

এই প্রচারাভিযানের মাধ্যমে, করোমন্ডেল  দায়িত্বশীল ব্যবহারের বিভিন্ন দিক, পণ্য ক্রয় থেকে ব্যবহার পর্যন্ত এবং আবেদনের বিভিন্ন পর্যায়ে (প্রাক, সময়,পরবর্তী) পাশাপাশি অবশিষ্ট পণ্য এবং প্যাকেজিং নিষ্পত্তির বিষয়ে সচেতনতা ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্য রাখে।

এগ্রোকেমিক্যাল ব্যবহার করার সময় মনে রাখতে হবে যে ওষুধটি সঠিক ডোজ এবং সময়ে নির্ধারিত হিসাবে গ্রহণ করা উচিত। ওষুধগুলিকে নিরাপদ স্থানে এবং শিশুদের নাগালের বাইরে রাখতে হবে। ওষুধের মেয়াদ শেষ হওয়ার তারিখ থাকে যার পরে সেগুলি কার্যকর হয় না এবং মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে সঠিকভাবে নিষ্পত্তি করা উচিত। ওষুধটি একটি লেবেল এবং লিফলেট সহ এর ব্যবহারের সমস্ত দিক উল্লেখ করা থাকে।

কৃষি রাসায়নিকের জন্য একটি অনুরূপ মননশীল পদ্ধতির প্রয়োজন যার মধ্যে রয়েছে - সঠিক পরিমান, সঠিক সময়, প্রয়োগের সঠিক পদ্ধতি, নিরাপদ সঞ্চয়স্থান, সঠিক তথ্য যা সর্বদা উল্লেখ করা উচিত।

এই প্রচারাভিযানের অধীনে, কৃষি রাসায়নিকের দায়িত্বশীল ব্যবহার সম্পর্কে এই বার্তাটি জানাতে সারা দেশে বেশ কয়েকটি কৃষক সভার আয়োজন করা হয়েছে। শত শত জায়গা জুড়ে লক্ষ লক্ষ কৃষককে কৃষি রাসায়নিক ব্যবহার করার সময় অনুসরণ করা মৌলিক বিষয়গুলি সম্পর্কে সচেতন করা হয়েছিল। এই সভাগুলিতে সরকারী কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা, খুচরা বিক্রেতা এবং ডিলারও উপস্থিত ছিলেন। কোরোমন্ডল ডিজিটাল মিডিয়ার মাধ্যমে কৃষকদের তাদের নেটওয়ার্কের কাছে বার্তা পৌঁছে দিয়েছেন।

করোমন্ডল এক ধাপ এগিয়ে গিয়ে কৃষি রাসায়নিকের দায়িত্বশীল ব্যবহার সম্পর্কে সচেতনতা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য বিভিন্ন কার্যক্রম সংগঠিত করে এই প্রচারাভিযানটি চালাবে।

Published On: 21 March 2022, 04:03 PM English Summary: Coromandel responsible method for responsible use of agrochemicals

Like this article?

Hey! I am রুপালী দাস. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters