(Make a new ration card at home) নতুন রেশন কার্ড নেই, অথবা সংশোধন করতে হবে ঠিকানা বা অন্য কোন তথ্য? বাড়িতে বসেই এখন তৈরী করুন নতুন রেশন কার্ড এই লিঙ্কে ক্লিক করে

KJ Staff
KJ Staff
Online ration card
Online ration card

আপনার যদি রেশন কার্ড থাকে, তবে আপনাকে পাবলিক ডিস্ট্রিবিউশন বিভাগের অধীনে শুধু যে প্রয়োজনীয় খাদ্য (Ration) সরবরাহ নিশ্চিত করা হবে তাই নয়, সাথে বৈধ প্রমাণ সহ আপনার নাগরিকত্বও নিশ্চিত করা হয়। আধার কার্ড এবং ভোটার আইডির পরে কারও নাগরিকত্ব প্রমাণ করার জন্য রেশন কার্ড অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নথি। অনেকের কাছেই এখনও নতুন রেশন কার্ড নেই, তবে এর জন্য আর কোন চিন্তা নেই। কারণ রেশন কার্ড তৈরী করা এখন আরও সহজ। সরকারের তরফে তৈরী করা হয়েছে একটি ওয়েবসাইট। বর্তমানে সকলের কাছেই স্মার্ট ফোন রয়েছে। ফোন থেকে এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন করলেই সহজে পেয়ে যাবেন রেশন কার্ড।

এটি সর্বজনবিদিত যে রেশন কার্ড আইডি প্রমাণপত্র রূপে রাজ্য সরকার জারি করেছে এবং বৈধ করেছে। রেশন কার্ডের জন্য এখন যে কেউ অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। তবে আবেদনের আগে যোগ্যতার বিষয়ে সচেতন হওয়া উচিত।

রেশন কার্ড অনলাইন (Ration card online) -

যোগ্যতা (Eligibility) -

  • কোনও ব্যক্তিকে অবশ্যই বৈধ ভারতীয় নাগরিক হতে হবে, তবেই তিনি রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
  • আইন অনুসারে, ১৮ বছরের কম বয়সী শিশু (নাবালক) তাদের পিতামাতার রেশন কার্ডের অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।
  • ১৮ বছর বয়সের পরে একজন ব্যক্তি পৃথক রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

প্রধানত ২ ধরণের রেশন কার্ড রয়েছে, বিপিএল এবং এপিএল। অনলাইনে রেশন কার্ডের জন্য আবেদনের পূর্বে যে কোনও রেশন কার্ডের জন্য সে যোগ্য কিনা তা নিশ্চিত করা উচিত।

WB Ration Card
WB Ration Card

আবেদন পদ্ধতি (Application Procedure)-

১) আবেদনকারীকে https://wbpds.gov.in – এই ওয়েবসাইটে লগ ইন করতে হবে।

২) এখান থেকে কার্ডের প্রকার চয়ন করতে হবে। পরিবারের কোন সদস্য রেশন কার্ড না পেয়ে থাকলে তার জন্যে ৩ নং ফর্ম। ৪ নং ফর্ম রয়েছে পরিবারের সর্বাধিক তিন জন ব্যাক্তি যদি কার্ড না পেয়ে থাকেন তার জন্যে। রেশন কার্ডে কোনো ভুল সংশোধন করতে চাইলে সিলেক্ট করুন ৫ নং ফর্ম। ৬ নং ফর্ম রেশন ডিলার পরিবর্তনের জন্য, ৭ নং ফর্ম রেশন কার্ডের ধরন পরিবর্তনের জন্য, যদি আপনার রেশন কার্ড হারিয়ে গিয়ে থাকে তার জন্য রয়েছে ৯ নং ফর্ম এবং ১০ নম্বর ফর্ম রয়েছে ভর্তুকিহীন রেশন কার্ডের জন্য।  

৩) প্রয়োজন অনুযায়ী নিজের প্রয়োজন মতো ফর্ম চয়ন করুন।  

৪) আধার কার্ড/ভোটার আইডি/পাসপোর্ট/ড্রাইভিং লাইসেন্স ইত্যাদি নথি স্ক্যান করে জমা দিতে হবে।

৫) আবেদন সম্পূর্ণ হলে নির্দিষ্ট মূল্য জমা দিতে হবে।

৬) এরপর ফিল্ড ভেরিফিকেশন হবে।  

৭) সমস্ত তথ্য সঠিক থাকলে ৩০ দিনের মধ্যে নতুন রেশন কার্ড পেয়ে যাবেন বাড়িতে বসেই।

আবেদনকারী ওয়েবসাইট থেকেই এই নতুন রেশন কার্ড প্রিন্ট করিয়ে নিতে পারবেন।

Image source - Google

Related link - (White sandalwood) শ্বেত চন্দন চাষ করে কৃষক উপার্জন করতে পারেন ৬০ লাখ থেকে ১ কোটি পর্যন্ত

(Tea Bag Business) টি ব্যাগ ব্যবসা থেকে আয় করুন লক্ষ লক্ষ টাকা

(Reduce diesel cost in tractors) ট্র্যাক্টরে ডিজেলের ব্যয় হ্রাস করতে চান? অনুসরণ করুন এই পদ্ধতির

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters