ভোকাল ফর লোকাল, ফার্মার দ্য ব্র্যান্ড (#FTB) – অরুণের আনারস– কৃষক অরুণ মন্ডল

KJ Staff
KJ Staff

কৃষক অরুন মন্ডল একজন প্রগতিশীল কৃষক, আবাস তার দার্জিলিং জেলার বিধাননগর, ফাসিদেওয়ায়। বিধাননগর অঞ্চলটি আনারসের জন্য রাজ্যে এবং রাজ্যের বাইরেও খ্যাত। তবে বিখ্যাত এই অঞ্চল থেকে শুধু ফসল চাষ করেই এই কৃষক থেমে থাকেননি, অদম্য ইচ্ছাশক্তি নিয়ে তার প্রগতিশীল কর্মের মাধ্যমে তিনি আজ নিজের নামের স্বাক্ষর রেখেছেন রাজ্যের সর্বত্র।  আনারস থেকে বস্ত্র- হ্যাঁ, শুনতে আশ্চর্য লাগলেও এটাই সত্যি- এই কাজও তিনি করে দেখিয়েছেন। প্রান্তিক কৃষক থেকে এফপিও- র সদস্য, জাতীয় স্তরের  বিভিন্ন পুরস্কার সবই রয়েছে তার সংগ্রহে।

(National Award for agriculture in the name of Innovative Farmer Award -2018 from Indian Agricultural Research Institute, Indian Council of Agricultural Research, New Delhi & Innovative Farmer Award during National Conference on “Improving Income of Farmers through Agriculture and Aquaculture through Development Interventions” on 5th – 7th January 2018 Organised by Society of Krishi Vigyan, at ICAR-CIFA, Bhubaneswar, Odisha)

আগামীকাল সকাল ১১.০০ ঘটিকায় কৃষি জাগরণ ওয়েস্ট বেঙ্গল পেজ থেকে এই প্রগতিশীল কৃষক, কৃষক সম্প্রদায়ের এবং সকলের উদ্দেশ্যে লাইভ প্রোগ্রামের মাধ্যমে বর্তমান কৃষিতে আনারস ফসল চাষে লাভের দিশা এবং আনারস চাষের মাধ্যমে কীভাবে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা যায়, বেকারত্ব দূর করে কীভাবে স্বনির্ভর হওয়া যায়, সে সম্পর্কে তাঁর বক্তব্য রাখবেন। তাঁর এই গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য থেকে অন্যান্য প্রান্তিক/ক্ষুদ্র সকল কৃষকরাই নতুন কিছু তথ্য জানতে পারবেন।

আমাদের বেঁচে থাকার জন্য সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকেন কৃষকরা। তারা সর্বদা কঠোর পরিশ্রম করে আমাদের খাদ্য সরবরাহ করেন। কৃষিকাজের মাধ্যমেই তারা জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায়, তারা চাষে লাভ তো দূরে থাক বরং লোকসানের সম্মুখীন হয়েছেন। সম্প্রতি যুব সমাজে ভ্রান্ত ধারণা এসেছে যে, কৃষিতে লাভ নেই। অনেক চাষী চাষ কার্য ছেড়ে অন্য জীবিকা বেছে নিচ্ছেন এবং তারা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকেও অন্য ক্ষেত্রে সংযুক্ত হওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কিন্তু সঠিক পদ্ধতিতে চাষ করতে পারলে কৃষিও লাভজনক ক্ষেত্র এবং উৎপাদিত পণ্য বিপণন করে কৃষক প্রভূত অর্থ উপার্জন করতে পারেন। অনেক সময় প্রাকৃতিক দুর্যোগে কৃষকের ফসল নষ্ট হয়ে যায়, ফলে তিনি আর্থিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হন। কিন্তু তাঁদের জন্য রয়েছে পশ্চিমবঙ্গে রাজ্য সরকারের ‘বাংলা শস্য বীমা যোজনা’ এবং অন্য রাজ্যে ‘প্রধানমন্ত্রী ফসল বীমা যোজনা’- অর্থাৎ কৃষক দেশের যে প্রান্তেরই হোক না কেন সরকার থেকে সহায়তা তিনি পাবেনই। এছাড়াও কৃষকদের জন্য রয়েছে সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প, তাঁদের সহায়তায় সরকার সর্বদা তৎপর।

পরিশেষে বলা যায়, কৃষি ভারতের তথা বিশ্বের মানুষের জীবনযাত্রা অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আধুনিক প্রযুক্তির সাথে মেলবন্ধনে আবাদ কার্য করলে সুস্থায়ী কৃষিতে রয়েছে লাভের পন্থাও, শুধু দরকার সঠিক পদ্ধতির। তাই বর্তমান কৃষকদের কৃষিকাজ ছেড়ে অন্য জীবিকায় নিযুক্ত হওয়ার পরিবর্তে মনোযোগ এবং উৎসাহ সহকারে কৃষিতে থাকলে আখেরে লাভ তাদেরই।

Related Link - #FtbKrishiJagran: প্রতি কৃষক একটি ব্র্যান্ড (FTB) হয়ে উঠুক এবং তার পণ্য বিশ্বের কাছে প্রদর্শন করুক

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters