গো-পালন করেন? তাহলে এবার গো- বর্জ্য থেকে করুন অতিরিক্ত আয়

Thursday, 19 November 2020 07:35 PM
cow dung business

cow dung business

শুধু গরুর দুধ এবং দুগ্ধজাত সামগ্রীই যে ব্যবসাতে লাভের মুখে দেখাবে তা নয়, গরুর বর্জ্য বা গোবর দিয়েও আপনি ব্যবসায় লাভের মুখ দেখতে পারেন৷ বর্তমানে কঠিন পরিস্থিতিতে এমনিতেই ব্যবসা-বাণিজ্য ধাক্কা খেয়েছে অনেকটাই৷ আর সেখানেই পুঁজি বেশি বিনিয়োগ করা থেকে অনেকেই পিছিয়ে আসছেন৷ আর ঠিক এই সময়ে দাঁড়িয়ে স্বল্প পুঁজি বিনিয়োগে গোবর থেকে আয় করা যেতে পারে৷

তবে অনেকেই এই ব্যবসা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল না থাকায় অর্জিত টাকা এই ব্যবসাতে বিনিয়োগ করতে চান না৷ তবে যারা কৃষির বাইরে বর্তমান পরিস্থিতিতে বিকল্প কাজ হিসেবে বা অতিরিক্ত অর্জন করতে চাইছেন, তারা গোবরকে ব্যবসার মাধ্যম করতে পারেন৷ তবে এই কাজে এগিয়ে যাওয়ার আগে প্রাথমিক ধারণা স্পষ্ট করে নিতে হবে অবশ্যই৷ 

তুলনামূলকভাবে অন্যান্য ব্যবসার থেকে এই ব্যবসাতে খুব বেশি পরিশ্রমের প্রয়োজন হয় না৷ সঠিক উপায়ে করতে পারলে উপার্জনও মন্দ হয় না৷ গোবর দিয়ে বিভিন্নভাবে ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে৷ যাদের বাড়িতে খামার রয়েছে, গরু রয়েছে তাদের পক্ষে খুবই সুবিধাজনক এই ব্যবসায় প্রবেশ করা।

সরকারী সহায়তা -

এমএসএমই মন্ত্রকের আওতায় এই ব্যবসা শুরু করার জন্য ভারত সরকার ভর্তুকি দিয়ে লোণের ব্যবস্থা করছে। সারাদেশে এ জাতীয় গাছ লাগানোর পরিকল্পনা তৈরি হচ্ছে। গোবর দিয়ে কাগজের প্যাচওয়ার্ক কাগজ তৈরিতে ব্যবহৃত হয়।

এগুলি হস্তনির্মিত কাগজ যা হাত দ্বারা প্রস্তুত করা হয়, তাই এটি প্রতিটি গাছ কিছু লোককে সরাসরি কর্মসংস্থান দেবে।

ভারত সরকার প্লাস্টিকের ব্যবহার নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, এক্ষেত্রে কাগজের ক্যারি ব্যাগের চাহিদা বাড়ছে। এমএসএমই মন্ত্রকের অধীনে কর্মরত খাদি গ্রামোদ্যোগ (কেভিআইসি) একটি ইউনিট গোবর থেকে কাগজ তৈরি শুরু করেছে। এখন পুরো দেশে এই গাছ লাগানোর পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

আপনি কীভাবে লাভবান হবেন -

কৃষকদের কাছ থেকে গোবর কিনতে, সংস্থাগুলি প্রতি কেজি ৫ টাকা দরে ​​গোবর কিনে থাকে। গড়ে একটি প্রাণী থেকে ১০-১২ কেজি গোবর পাওয়া যায়। যা দিয়ে আপনি আপনার পশু থেকে প্রতিদিন ৫০ টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

যোগাযোগ -

গো-বর্জ্য থেকে ক্যারি ব্যাগ তৈরি সম্পর্কিত ব্যবসার জন্য কুমারপ্পা ন্যাশনাল হ্যান্ডমেট পেপার ইনস্টিটিউট (কেএনএইচপিআই, জয়পুর) -এর সাথে যোগাযোগ করে এটি করা যেতে পারে।

সম্পূর্ণ ঠিকানা –

কুমারপ্পা ন্যাশনাল পেপার ইনস্টিটিউট, রামসিংপুরা, শিকারারপুরা রোড, সাঙ্গানার, জয়পুর – ৩০২০২৯, রাজস্থান এবং মেল আইডি knhpijpr@dataone.in বা ০১৪১২৭৩০৩৬৯ -এই নম্বরেও যোগাযোগ করা যেতে পারে

গোবর দিয়ে ব্যবসার আরও একটি জনপ্রিয় দিক হল ঘুঁটে ব্যবসা৷ জ্বালানি হিসেবে এর চাহিদা রয়েছে ভালোই৷ বর্তমানে অনলাইনেও ঘুঁটের প্যাকেট, কেজি বা পিস হিসেবে বিক্রি হয়৷ পশুপালকদের মধ্যে অনেকের কাছেই ঘুঁটে একটি জনপ্রিয় ব্যবসার মধ্যে অন্যতম, যার মাধ্যমে কম সময়ে, কম খরচে লাভের মুখ দেখা সম্ভবপর হয়৷ এছাড়া জৈব সার হিসেবেও গোবরের ব্যবহার হয়ে থাকে৷

Image source - Google

English Summary: Pastoralist can make extra income from cow dung

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.