গ্রামে কম পুঁজিতে ব্যবসা (Business at Village) করতে চাইছেন? তাহলে এই তালিকা দেখে নিন

KJ Staff
KJ Staff

বর্তমান সময়ে করোনা ভাইরাসের আক্রমণ এবং লকডাউন, প্রাকৃতিক বিপর্যয়, এইসবকিছু মিলিয়ে আর্থিক অনটনে অনেকেই৷ শহর থেকে গ্রাম, প্রভাব পড়েছে সর্বত্রই৷ এমতাবস্থায় ঘুরে দাঁড়াতে হবে, আর তার জন্য কয়েকটি ছোট ব্যবসাকে বিকল্প হিসেবে বেছে নিতেই পারেন আপনি৷

কম পুঁজিতে, নিজের গ্রামের মধ্যে থেকেই এইসব ব্যবসা করতে পারবেন৷ এর জন্য করোনা ভাইরাসের সংক্রমণকে উপেক্ষা করে শহরে যাওয়ার প্রয়োজন হবে না৷ এর থেকে শুধু উপার্জনই নয়, মুনাফাও অর্জন করতে পারবেন আপনি৷ কোন কোন ব্যবসা আপনার নাগালের মধ্যে রয়েছে এই প্রতিবেদনে তাইই উল্লেখ করা হল৷ বিশেষ করে যাঁরা ফুল চাষ, পশুপালনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তাঁদের পক্ষে খুবই লাভজনক৷

ফ্লোরিকালচার (Flower farming)

ফ্লোরিকালচার, ফুলের এই ব্যবসা থেকে আপনি প্রচুর মুনাফা অর্জন করতে পারবেন৷ পুজো, সাজসজ্জা থেকে শুরু করে উপহার বিভিন্ন ক্ষেত্রে ফুলের প্রয়োজন হয়৷ এমনকি অনলাইনেও এই ফুলের জোগান দেওয়া সম্ভব৷ আপনি যদি ফুল চাষের সঙ্গে যুক্ত তাহলে এই ব্যবসা আপনার পক্ষে করা খুবই সুবিধাজনক হবে৷ অনেকক্ষেত্রে সরকারী সাহায্যও পাওয়া যায়৷ আপনার যদি অর্ধেক একর জমির ওপর ফুল চাষ হয়ে থাকে তাহলে সারা বছরে আপনার ১০-১১ লক্ষ টাকার মুনাফা হতে পারে

ছাগল পালন (Goat rearing)

ছাগল পালন বা গোট ফার্মিং-ও চাইলে করতে পারেন৷ ছাগলের ব্রিডিং থেকে শুরু করে তার দুধ বিক্রি সবকিছুই আপনাকে অতিরিক্ত উপার্জনের সুযোগ করে দেবে৷ এই ব্যবসায় আপনি ১-২ লক্ষ টাকা লাভ করার সুযোগও পেতে পারেন৷

অ্যালোভেরার ব্যবসা (Aloe vera)

অ্যালোভেরার ব্যবসা মাত্র ৪০-৫০ হাজার টাকায় শুরু করতে পারেন৷ এর জন্য মাত্র একবার চাষের জমিতে গাছ রোপন করতে হবে৷ একবার ফসল লাগানোর পর প্রায় ৩ বছর পর্যন্ত আপনি এর থেকে ব্যবসা করতে পারেন৷ যদি ১ হেক্টর জমির ওপর এর চাষ করেন তাহলে সারা বছর এর থেকে ৯-১০ লক্ষ টাকা উপার্জন করতে পারেন আপনি৷

ডেয়ারির ব্যবসা (Dairy business)

গ্রামে সহজেই এই ব্যবসার সঙ্গে আপনি যুক্ত হতে পারবেন৷ এতে প্রচুর উপার্জনের সুযোগ রয়েছে৷ অনেকেই গ্রামে ডেয়ারি ফার্মিং-এর ব্যবসা করেন৷ বড় স্তরে এই ব্যবসা শুরু করতে চাইলে সেই মতো প্রস্তুতি নিতে হবে, প্রয়োজন জায়গারও৷ প্রসঙ্গত, এই ডেয়ারি ফার্মিং থেকে প্রায় ১-২ লক্ষ টাকা মুনাফা অর্জন করা যেতে পারে৷

তাই বর্তমানের এই কঠিন পরিস্থিতিতে আত্মনির্ভর হতে ব্যবসা শুরুর পরিকল্পনা করতে পারেন৷ এছাড়া, নীচের দুটি ব্যবসাও চাইলে করতে পারেন৷

পণ্যসামগ্রীর দোকান (General Store)

চাইলে আপনি নিজস্ব দোকান খুলতে পারেন, যেখানে পণ্যসামগ্রীর ব্যবসা আপনি করতে পারবেন৷ জেনারেল স্টোরে আপনি আপনার পুঁজি অনুযায়ী এবং গ্রামের চাহিদার কথা মাথায় রেখে পণ্যসামগ্রী রাখতে পারবেন৷ এতে আপনার বিক্রি ভালো হবে৷ সঠিকভাবে করতে পারলে এর থেকে আপনি প্রায় ৫০-৬০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন৷

কসমেটিকস্-এর দোকান (Cosmetic shop)

কসমেটিকস্-এর জন্য গ্রামের মহিলাদের অনেকক্ষেত্রেই শহরের মুখাপেক্ষী হয়ে থাকতে হয়৷ সকলেই অনলাইনে অর্ডার করার মতো সুযোগও পান না৷ তাই এক্ষেত্রে আপনি চাইলে গ্রামে কসমেটিকস্-এর দোকান খুলতে পারেন৷ মহিলাদের থেকে অর্ডার নিয়ে, তাদের পছন্দমতো বা যে জিনিস বেশি বিক্রি হচ্ছে তা আরও বেশি করে এনে রাখতে পারেন নিজের এই দোকানে৷ কসমেটিকস্-এর চাহিদা সারাবছরই থাকে৷ এবং এই ব্যবসা করে অনেকে মাসে উপার্জনের পাশাপাশি প্রচুর লাভের মুখও দেখেন৷

 

আরও পড়ুন- গ্রামে এই ৫ ব্যবসাতেই (Business in Village) যুবকরা হয়ে উঠুন আত্মনির্ভর, উপার্জন করুন প্রচুর

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters