(Subsidy for dairy farmers) পশুপালন খাতে কৃষকদের জন্য ১.৬৭ লক্ষ টাকা, আবেদন করুন এই পদ্ধতিতে

Tuesday, 08 December 2020 06:30 PM
Dairy farm

Dairy farm

পশুপালন  কেবল ভারতে নয় সমগ্র বিশ্বে কৃষকদের জন্য সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা। এটি এমন একটি পেশা হিসাবে বিবেচনা করা হয়, যেখানে ক্ষতির সম্ভাবনা অত্যন্ত কম। পশুপালন খাতে রাজ্যে কৃষকদের ভর্তুকিও দেওয়া হয়।

রিপোর্ট অনুসারে, ডিইডিএস প্রকল্পটি ১ লা সেপ্টেম্বর ২০১০ থেকে কেন্দ্রীয় সরকার শুরু করেছে। এই প্রকল্পের আওতায় পশুপালককে মোট ব্যয়ের ৩৩.৩৩ শতাংশ পর্যন্ত ভর্তুকি দেওয়া হয়।  

ভর্তুকি (Subsidy) -

ব্যয়ের ২৫% (এসসি/এসটি কৃষকদের জন্য ৩৩.৩৩%), দশটি প্রাণী সমন্বিত এক ইউনিট (এসসি /এসটি কৃষকদের জন্য ১.৬৭ লক্ষ টাকা) এর ক্ষেত্রে। সর্বাধিক গ্রহণযোগ্য মূলধন ভর্তুকি ২৫,০০০ টাকা (এসসি/এসটি কৃষকদের জন্য ৩৩,৩০০ টাকা) দুটি প্রাণী সমন্বিত ইউনিট-এর ক্ষেত্রে।

দুগ্ধ উদ্যোক্তা উন্নয়ন প্রকল্প কী?

পশুপালন, গবাদিপশু ও মৎস্য অধিদপ্তর (ডিএএইচডি এবং এফ), সরকার ২০০৫-২০০৬ সালে "দুগ্ধ ও হাঁস-মুরগির জন্য ভেনচার ক্যাপিটাল স্কিম" শীর্ষক একটি পাইলট স্কিম চালু করে। এই প্রকল্পের মূল লক্ষ্য ছিল দুগ্ধ খাতে কাঠামোগত পরিবর্তন আনতে ছোট দুগ্ধ খামার এবং অন্যান্য উপাদান স্থাপনের জন্য সহায়তা করা।

উল্লেখযোগ্য যে, কামধেনু এবং মিনি কামধেনু প্রকল্পগুলি আগে পরিচালিত হয়েছিল এবং এতে মহিষ পালনকারীদের খুব একটা উপকার হয়নি। কিন্তু এখন গ্রামে মানুষকে কর্মসংস্থান দেওয়ার পাশাপাশি দুধের উৎপাদন বাড়ানোর জন্য কেন্দ্র সরকার দুগ্ধ উদ্যোগী উন্নয়ন প্রকল্প শুরু করেছে। সরকার কর্তৃক ফাইলটি অনুমোদনের সাথে সাথে ভর্তুকিও দেওয়া হবে। অধিকন্তু, সাধারণ বিভাগের জন্য ২৫% এবং মহিলা ও এসসি বিভাগের জন্য ৩৩%ভর্তুকি দেওয়া হবে। এই ভর্তুকি সংশ্লিষ্ট দুগ্ধ অপারেটরের অ্যাকাউন্টে থাকবে।

ডিইডিএস প্রকল্পের আওতায় লোণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানসমূহ -

  • বাণিজ্যিক ব্যাংক
  • আঞ্চলিক ব্যাংক
  • রাজ্য সমবায় ব্যাংক
  • রাজ্য সমবায় কৃষি ও পল্লী উন্নয়ন ব্যাংক
  • অন্যান্য সংস্থা, যেগুলি নাবার্ড থেকে পুনঃবিবেচনার জন্য যোগ্য।

ডিইডিএস লোণের জন্য প্রয়োজনীয় নথি -

লোণ যদি ১ লক্ষের বেশি হয় তবে লোণগ্রহীতাকে তার জমির সাথে সম্পর্কিত কিছু কাগজপত্র বন্ধক রাখতে হতে পারে।

  • বর্ণ সনদ (Caste)
  • পরিচয়পত্র এবং শংসাপত্র
  • প্রকল্প ব্যবসার পরিকল্পনার অনুলিপি
Subsidy for WB Dairy farmer

Subsidy for WB Dairy farmer

ডিইডিএস পরিকল্পনা -

উদ্যোক্তাকে পুরো প্রকল্প ব্যয়ের কমপক্ষে ১০ শতাংশ বিনিয়োগ করতে হবে নিজের দ্বারা।  এই প্রকল্পের আওতায় দেওয়া ভর্তুকি হবে ব্যাক ইন্ডেড সাবসিডি। ব্যাক ইন্ডেডের মাধ্যমে, আমরা বোঝাতে চাইছি যে লোণ নেওয়া হয়েছে, সেখান থেকে ব্যাংকটিকে 'নাবার্ড' দ্বারা ভর্তুকি দেওয়া হবে এবং যে ব্যাংক লোণ দিচ্ছে সেই ব্যক্তির নামে সেই টাকা রাখবে।

আবেদন পদ্ধতি (Application Procedure) -

লোণ পাওয়ার জন্য, পশু মালিককে জাতীয়করণকৃত ব্যাংক –এ যেতে হবে এবং নাবার্ডের অধীনে একটি ভর্তুকি ফর্ম নিতে হবে। তারপরে, ফর্মটি পূরণ করার পরে, তাকে ব্যাংকে যেতে হবে এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের সাথে সংযুক্ত করে তার ফর্ম জমা দিতে হবে। এরপরে ব্যাংকের পক্ষ থেকে গবাদি পশুদের আবেদন অনুমোদিত হবে এবং নাবার্ডে প্রেরণ করা হবে। তারপরে নাবার্ড প্রাণীসম্পদকে ভর্তুকি দেওয়ার জন্য লোণণ সরবরাহ করবে। উল্লেখ্য যে, যে কৃষক কোনও ব্যাংক থেকে লোণ গ্রহণ করেননি পশুপালন লোণের সুবিধা তিনিই পাবেন।

প্রাণীসম্পদ খাতে যুক্ত কৃষকরা এই লিঙ্কটিতে ক্লিক করে ফর্মটি পেতে পারেন -

https://www.nabard.org/auth/writereaddata/File/Annexure_1.pdf

Image source - Google

Related link - (Get 2.5 lakh government subsidy in goat rearing) ছাগল পালন করলে এখন সরকার থেকে আপনি পেতে পারেন ২.৫ লক্ষ পর্যন্ত সরকারী অনুদান

English Summary: 1.7 lakh subsidy for dairy farmers, know how to apply

আপনার সমর্থন প্রদর্শন করুন

প্রিয় অনুগ্রাহক, আমাদের পাঠক হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনার মতো পাঠকরা আমাদের কৃষি সাংবাদিকতা অগ্রগমনের অনুপ্রেরণা। গ্রামীণ ভারতের প্রতিটি কোণে কৃষক এবং অন্যান্য সকলের কাছে মানসম্পন্ন কৃষি সংবাদ বিতরণের জন্যে আমাদের আপনার সমর্থন দরকার। আপনার প্রতিটি অবদান আমাদের ভবিষ্যতের জন্য মূল্যবান।

এখনই অবদান রাখুন (Contribute Now)

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.