৮৫ শতাংশ ভর্তুকি ড্রিপ এবং স্প্রিংকলার সেচে পিএম কৃষি সিঞ্চাই যোজনার আওতায়, দেখুন বিস্তারিত (Subsidy On Drip And Sprinkler Irrigation)

KJ Staff
KJ Staff
PMKSY - Drip & Sprinkler Irrigation (Image Credit - Google)
PMKSY - Drip & Sprinkler Irrigation (Image Credit - Google)

ভারত একটি কৃষিনির্ভর দেশ, যেখানে দেশের অর্ধেক জনসংখ্যার এখনও প্রাথমিক পেশা হিসাবে কৃষির উপর নির্ভরশীল। ভারতীয় কৃষিতে সেচের প্রধান ভূমিকা রয়েছে যা প্রায়শই জলের ঘাটতির সমস্যার সম্মুখীন হয়। 

তবে কৃষকদের তাদের জমিতে সঠিকভাবে সেচ দিতে সক্ষম করতে কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকার সমস্ত পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেছে। এই পর্বে সরকার তাদের রাজ্যের কৃষকদের জন্য মাইক্রো সেচ প্রকল্পটি কার্যকর করেছে।

এই প্রকল্পের আওতায় জমিতে পুকুর নির্মানের মোট ব্যয়ের জন্য কৃষককে ৭০ শতাংশ অনুদান (Govt Subsidy) দেওয়া হচ্ছে। এর সাথে কৃষকদের ২ এইচপি থেকে ১০ এইচপি ক্ষমতা সহ সোলার পাম্প স্থাপনের জন্য কেবল ২৫ শতাংশ দিতে হবে। এর অর্থ হ'ল থিম ফার্মার ৭৫ শতাংশ ভর্তুকি পাবে। তথ্য অনুসারে, এই প্রকল্পের আওতায় প্রাপ্ত ভর্তুকির জন্য স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতি জারি করা হয়েছে।

মাইক্রো সেচ প্রকল্প কী (Micro Irrigation Scheme) -

এই প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৪৮ শতাংশ জল সাশ্রয় করা যায়। এর সাহায্যে শক্তিও বাঁচানো যায়। সাধারণ পদ্ধতিতে ফসল সেচে জলের ব্যবস্থা পূরণের মাধ্যমে জমিতে জল বেশি ব্যবহৃত হয় এবং মাটিতে প্রয়োগ করা সারও বয়ে যায়। এ ছাড়া খরা ও জলের ঘাটতি রয়েছে এমন রাজ্যগুলির জন্য মাইক্রো সেচ প্রকল্প ছাড়া ফসলে সেচ প্রদান প্রায় অসম্ভব। মাইক্রো সেচ-এ ড্রিপ সেচ, মাইক্রো স্প্রিংকলার, স্থানীয় পদ্ধতিতে সেচ ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত।

মাইক্রো সেচ প্রকল্পের উদ্দেশ্য -

এই প্রকল্পটি সেচের জন্য জলের ঘাটতি কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করে। এক সরকারি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, 'মাইক্রো সেচ উদ্যোগের আওতায় কৃষকদের জন্য তিনটি প্রকল্প চালু করা হচ্ছে।

১) প্রথম পরিকল্পনা -

প্রকল্পটি আনুষঙ্গিক অবকাঠামো এসটিপি ক্যানেল/ রাজওয়াহা, সোলার পাম্প, ফার্ম পুকুর এবং এমআই, নিকাশী ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট (এসটিপি) এবং খাল ভিত্তিক প্রকল্পগুলির জন্য।

২) দ্বিতীয় পরিকল্পনা

খামারে পুকুর, আনুষঙ্গিক অবকাঠামো (রাজোয়া), সোলার পাম্প এবং খামারে এমআই (ড্রিপ / স্প্রিংকলার) স্থাপনের পাশাপাশি খাল ভিত্তিক প্রকল্প রয়েছে।

৩) তৃতীয় পরিকল্পনা

এই স্কিমটি তাদের জন্য, যেখানে জলের উত্স হ'ল টিউবওয়েল, উপচে পড়া পুকুর, খামারের ট্যাঙ্ক এবং খামার এমআই (ড্রিপ / স্প্রিংকলার)।

দ্রষ্টব্য যে, কৃষকরা যদি প্রথম স্কিমের আওতায় সুবিধা পেতে চান তবে খামারকৃত পুকুরের সাথে শতভাগ এমআই (ড্রিপ এবং স্প্রিংকলার ইনস্টলেশন) গ্রহণের জন্য হলফনামা আকারে অগ্রিম শপথপত্র প্রদান বাধ্যতামূলক।

৮৫ শতাংশ ভর্তুকি -

প্রধানমন্ত্রীর কৃষি সেচ প্রকল্পের গাইডলাইনস ২০১৮-১৯ অনুসারে, কৃষককে জমিতে এমআই (ড্রিপ এবং স্প্রিংকলার) স্থাপনের জন্য জিএসটি সহ মোট ১৫ শতাংশ অর্থ প্রদান করতে হবে। অবশিষ্ট ৮৫ শতাংশ ভর্তুকি দেওয়া হবে।

আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র - 

  • ব্যক্তির পাসপোর্ট সাইজের ছবি

  • ব্যক্তিগত বিবরণ

  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট

  • ঠিকানা এবং ফ্যামিলি আইডি 

আরও পড়ুন - কৃষকরা পাবেন এবার পণ্যের সঠিক মূল্য প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্পদ যোজনায় (PM Kisan Sampad Yojana - Doubling Framers Income)

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters