(PM Jan Dhan Yojana) প্রধানমন্ত্রী- জন ধন যোজনা: এখন পাবেন ৫০০ টাকার মাসিক কিস্তির সুবিধা আপনার সাধারণ ব্যাংক অ্যাকাউন্টেও

KJ Staff
KJ Staff
PM JanDhan Yojana
PM JanDhan Yojana

সরকারের থেকে এখন প্রতি মাসে আপনিও পেতে পারেন ৫০০ টাকার কিস্তি আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জন ধন যোজনার মাধ্যমে। আপনার কি জন ধন অ্যাকাউন্ট আছে? না কি সাধারণ অ্যাকাউন্ট? ব্যাংকে জন ধন খাতা  না থাকলেও আপনি সরকারের থেকে পাবেন এই ৫০০ টাকার মাসিক কিস্তি। কীভাবে? এর জন্য আপনার পুরনো অ্যাকাউন্টটিকে জন ধন অ্যাকাউন্টে ট্র্যান্সফার করতে হবে। আমরা আপনাকে বলব আপনি কীভাবে এই কাজটি করতে পারবেন।

যোগ্যতা -

  • এই প্রকল্পের আওতায় অ্যাকাউন্ট খুলতে হলে আপনার অবশ্যই ভারতের নাগরিকত্ব থাকতে হবে।
  • এছাড়া, আপনার বয়স ১০ বছরের বেশী হতে হবে।
  • আবেদনকারীর অন্য কোনও ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকলে তিনি এর যোগ্য হবেন না।

জন ধন অ্যাকাউন্টটির সুবিধা -

  • জন ধন অ্যাকাউন্টে আমানতের উপর সুদ পাওয়া যায়।
  • সুবিধাভোগীরা অ্যাকাউন্টটি দিয়ে বিনামূল্যে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের সুবিধা পান।
  • জন ধন অ্যাকাউন্টহোল্ডাররা ওভারড্রাফ্টের মাধ্যমে তাদের অ্যাকাউন্ট থেকে ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত তুলতে পারবেন। তবে কয়েক মাস ধরে জন ধন অ্যাকাউন্টের সঠিক রক্ষণাবেক্ষণের পরে এই সুবিধাটি উপলব্ধ।
  • পিএমজেডিওয়াই আপনাকে দুর্ঘটনাকৃত বীমা কভার ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সরবরাহ করবে।
  • এছাড়াও, ৩০,০০০ টাকা পর্যন্ত লাইফ কভারেজ দেওয়া হয় (শর্তাবলী প্রযোজ্য)।
  • সুবিধাভোগীরা জন ধন অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে সহজেই বীমা ও পেনশন স্কিম নিতে পারবেন।
  • পিএমজেডিওয়াই অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্স বজায় রাখার কোনও প্রয়োজন নেই। তবে, আপনি যদি চেকবুকের সুবিধা নিতে চান, তবে আপনাকে সর্বনিম্ন রাশি অ্যাকাউন্টে রাখতে হবে।
Pradhan Mantri JanDhan Scheme
Pradhan Mantri JanDhan Scheme

আপনার অ্যাকাউন্টটিকে জন ধন অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করুন -

১) ব্যাঙ্ক শাখায় যান।

২) তারপরে, একটি ফর্ম পূরণ করুন এবং রুপে কার্ডের জন্য আবেদন করুন।

৩) ফর্মটি পূরণ করার পরে, এটি ব্যাঙ্কে জমা দিন।

৪) এর পরে আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট জন ধন অ্যাকাউন্টে রূপান্তরিত হবে।

কীভাবে পিএমজেডিওয়াই (PMJDY) নতুন অ্যাকাউন্ট খুলবেন?

যারা জন ধন অ্যাকাউন্ট খুলতে চান, তাদের অবশ্যই তাদের নিকটতম ব্যাঙ্কের শাখায় যেতে হবে। সেখানে জন ধন অ্যাকাউন্টের ফর্মটি পূরণ করতে হবে। সমস্ত বিবরণ যেমন তার নাম, মোবাইল নম্বর, ব্যাঙ্কের শাখার নাম, আবেদনকারীর ঠিকানা, মনোনীত, ব্যবসা / কর্মসংস্থান এবং বার্ষিক আয় এবং নির্ভরশীলদের সংখ্যা, এসএসএ কোড বা ওয়ার্ড নম্বর, গ্রামের কোড বা শহরের কোড ইত্যাদি পূরণ করতে হবে।

কেওয়াইসি-র জন্য প্রয়োজনীয় নথি (Important document) -

এই স্কিমের আওতায় কোনও ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে হলে আপনাকে কেওয়াইসি সম্পন্ন করার জন্য অ্যাপ্লিকেশন সহ প্রয়োজনীয় কিছু নথি দাখিল করতে হবে যেমন -

  • পাসপোর্ট
  • আধার কার্ড
  • প্যান কার্ড
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স
  • ভোটার আইডি কার্ড
  • মনরেগা জব কার্ড

Image source - Google

Related Link - (Central Govt scheme) আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে অর্থ এসেছে তো সরকারের তরফ থেকে? না আসলে এখনই যোগাযোগ করুন এই নম্বরে

(‘Bangla Shasya Bima Yojana’ free crop insurance) ‘বাংলা শস্য বীমা যোজনা’ – সম্পূর্ণ বিনামূল্যে কৃষকদের জন্য ফসল বীমা, কৃষকবন্ধুরা আজই আবেদন করুন আর ফসলের সুরক্ষা সম্পর্কে নিশ্চিন্ত থাকুন

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters