আপনিও শুরু করতে পারেন আর্বান ফার্মিং (Urban Farming), জেনে নিন এর খুঁটিনাটি

Thursday, 02 July 2020 03:02 PM

বর্তমান সময়ে শহরে কৃষিকাজ এক বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে গিয়েছে৷ বিভিন্ন স্থানে বড় বড় প্রাসাদোপম বাড়ি, হোটেল, রেস্তোরাঁ, শপিং মল, স্কুল-কলেজ, অফিস, হাসপাতাল৷ আর এসবের মাঝে কৃষিকাজের জন্য ন্যূনতম যে জমির প্রয়োজন তার অভাব দেখা দিয়েছে৷ একদিকে যেমন এই কঠিন পরিস্থিতির উদয় হয়েছে, তেমনই অন্যদিকে এর বিকল্প হিসেবে হু হু করে জনপ্রিয়তা বাড়ছে আর্বান ফার্মিং-এর (Urban Farming).

বিদেশে এই এর প্রচলন বহু আগে থেকেই হয়েছে৷ এবং জনপ্রিয়তাও তুঙ্গে৷ আর ভারতে বিভিন্ন শহরে এখন এই আর্বান ফার্মিং-এর কদর বেড়েছে৷ বিভিন্নভাবে এই ফার্মিং করা যায়৷ তবে তার আগে জেনে নিতে হবে এটি কী, এর জন্য কী কী প্রয়োজন৷ আর এই সমস্ত ধারণা তুলে ধরা হল এই প্রতিবেদনে৷

আর্বান ফার্মিং (Urban Farming) আসলে কী?

শহরে নিজের ফ্ল্যাট, বাড়ি, অ্যাপার্টমেন্টে সবজি, ফল, হার্বস-এর ফলনের এই পদ্ধতিই হল আর্বান ফার্মিং৷ এই পদ্ধতিতে আপনি ছাদে, ব্যালকনি, খোলা বারান্দা, বিভিন্ন স্থানে স্বল্প পরিসরে চাষ করতে পারেন৷ রাসায়নিক মুক্ত এই আর্বান ফার্মিং ক্রমশই বিস্তার লাভ করছে৷ ছোট থেকে বড় পাত্রে, অথবা ছাদে মাটির বেড বা বিছানা করে চাষ করা যেতে পারে৷

বর্তমান সময়ে দেশে খাদ্যের নিরাপত্তা একটি বড় প্রশ্নের মুখে এসে দাঁড়িয়েছে৷ কীটনাশক, রাসায়নিক সার, অ্যান্টিবায়োটিক প্রভৃতি বিভিন্ন জিনিসের প্রভাবে খাদ্যের প্রাকৃতিক গুনমান নষ্ট হতে বসেছে৷ যা আমাদের শরীরের পক্ষেও ক্ষতিকারক৷ কিন্তু আর্বান ফার্মিং যেহেতু নিজে হাতে নিজের মতো করে করা যায়৷ চাহিদা অনুযায়ী স্বল্প পরিসরে চাষ করে প্রয়োজনীয়তা মেটানো যায়, এবং সেই সঙ্গে রাসায়নিক সার, কীটনাশককেও এড়ানো যায় বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, তাই এই চাষ পদ্ধতি ক্রমশই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে৷ পশ্চিমবঙ্গে, বিশেষ করে কলকাতায় আর্বান ফার্মিং-এর (Urban Farming) চাহিদা বাড়ছে উত্তরোত্তর৷

ছাদে কৃষিকাজ (Terrace Farming)

আপনার বাড়ি হোক বা ফ্ল্যাট, ছাদে চাষ করার সুযোগ থাকলে আপনি অনায়াসেই আর্বান ফার্মিং করতে পারবেন৷ ছাদে ড্রাম, টব, বা মাটির বেড করে সবজি থেকে শুরু করে ফল, ফুল, ঔষধি গাছ চাষ করতে পারেন৷

ব্যালকনিতে কৃষিকাজ (Balcony Farming)

ছাদে চাষের সুযোগ না থাকলে স্বল্প পরিসরে ব্যালকনিতেও চাহিদা অনুযায়ী গাছ লাগাতে পারেন৷ ছোট ছোট টবে গাঁদা, মর্নিং গ্লোরির মতো ফুল, অথবা লেমনগ্রাস, তুলসী, পুদিনা, ধনে পাতার চাষ করতে পারেন৷ এদের পরিচর্যায় খুব বেশি পরিশ্রম হয় না৷ এমনকি টমেটো থেকে আদা, রসুন, লেবু, লঙ্কার চাষও করতে পারেন ব্যালকনিতেই৷ তবে সবক্ষেত্রেই নজর রাখতে হবে টবে জল যেন না জমে যায়৷ আর আর্বান ফার্মিং-এর অন্যতম সুবিধা হল ঝড়, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের হাত থেকে গাছগুলি রক্ষা করা সহজ হয়৷

উল্লম্ব কৃষিকাজ (Vertical Farming)

উল্লম্ব বাগান তৈরি করে কৃষকাজ করা যেতে পারে যা ভার্টিকাল ফার্মিং বা ভার্টিকাল গার্ডেনিং নামে পরিচিত৷ এতে দেওয়ালে স্টিল, কাঠ, লোহা প্রভৃতির কাঠামো তৈরি করে টব ঝুলিয়ে ফল, ফুল, সবজি চাষ করা যেতে পারে৷ স্থান এবং খরচের ওপর এই ভার্টিকাল ফার্মিং নির্ভর করছে অনেকটাই৷ কেউ চাইলে সিমেন্ট দিয়ে দেওয়ালে উল্লম্ব স্থায়ী ফ্রেম-ও তৈরি করে চাষ করতে পারেন৷ উন্নত মাটি, জল প্রদান, আলো-বাতাস, এইসবের দিকে খেয়াল তো রাখতেই হবে, তবে উল্লম্ব কৃষিকাজ খুব বেশি পরিশ্রম সাধ্য নয়৷ তাই উত্তরোত্তর চাহিদা বাড়ছে আর্বান ফার্মিং-এর৷

 

আরও পড়ুন- ‘উল্লম্ব বাগান’: (Vertical Gardening) এক চিলতে সবুজের খোঁজে

বাড়িতে টবেই হবে পুদিনার গাছ (Spearmint Farming), কীভাবে করবেন জেনে নিন

English Summary: Benefits of urban farming

আপনার সমর্থন প্রদর্শন করুন

প্রিয় অনুগ্রাহক, আমাদের পাঠক হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনার মতো পাঠকরা আমাদের কৃষি সাংবাদিকতা অগ্রগমনের অনুপ্রেরণা। গ্রামীণ ভারতের প্রতিটি কোণে কৃষক এবং অন্যান্য সকলের কাছে মানসম্পন্ন কৃষি সংবাদ বিতরণের জন্যে আমাদের আপনার সমর্থন দরকার। আপনার প্রতিটি অবদান আমাদের ভবিষ্যতের জন্য মূল্যবান।

এখনই অবদান রাখুন (Contribute Now)

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.