খারিফ মরশুমে ধান চাষের (Paddy cultivation) বিজ্ঞানসম্মত পদ্ধতি - চারা প্রতিস্থাপনের পরবর্তী ব্যবস্থাপনা

KJ Staff
KJ Staff

এই সময়টি মূলত আমন ধান চাষের সময়, বহু কৃষক বন্ধু হয়ত তাদের বীজতলা তৈরি করে ফেলেছেন এবং আর কিছুদিনের মধ্যেই চারা প্রতিস্থাপন করবেন। এর আগে একটি প্রতিবেদনে আলোচনা করেছিলাম যে বিজ্ঞানসম্মত পদ্ধতিতে কিভাবে বীজ তলা তৈরি করবেন, আর আজ এই প্রতিবেদনে আপনাদের সামনে তুলে ধরব সেই সমস্ত ব্যবস্থাপনা যে গুলি ধান চাষের ক্ষেত্রে জমি প্রস্তুতি ও জমিতে চারা প্রতিস্থাপনের পরবর্তী সময়ে করা উচিৎ। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই সমস্ত তথ্য,

জমি প্রস্তুত করা এবং চারা প্রতিস্থাপন -

কম্পোস্ট সারের প্রয়োগ: ধানের ভালো ফলনের জন্য জমি প্রস্তুতির সময় ভালোভাবে ফলিত কম্পোস্ট সার (FYM) ৫ টন প্রতি একর পিছু মাটিতে প্রয়োগ করা উচিত।

জমি প্রস্তুতিকরণ: দয়া করে ভালোভাবে কর্ষণ করার মাধ্যমে জমি প্রস্তুত করুন এবং ৩-৫ সেন্টিমিটার জল জমা অবস্থায় প্যাডেলিং করা উচিত। প্রায় ১০ সেমি গভীরতা পর্যন্ত জমি কর্ষণ করা উচিত। জমিতে জল এবং সারের সামঞ্জস্যতা বজায় রাখার জন্য কর্ষণের পর জমি আবার সমান করে নেওয়া আবশ্যক।

বেসাল ডোজ: বীজ বপনের আগে নিম্নলিখিত সারগুলি প্রয়োগ করুন। ডিএপি (DAP) - ৩২ কেজি / একর, ইউরিয়া (Urea)- ৫ কেজি / একর, এমওপি (MOP) ২৪ কেজি / একর।

চারা প্রতিস্থাপন পদ্ধতি: অল্প মেয়াদী জাতের আমন ধানের ক্ষেত্রে জন্য চারা ৪-৫টি পাতা পর্যায় পৌঁছালে ২-৩ টি করে চারাগাছ বীজতলা থেকে প্রধান জমিতে  প্রতিস্থাপন করুন, এক্ষেত্রে সারি থেকে সারির মধ্যে ২০ সেন্টিমিটার এবং গাছেদের মধ্যে ১০ সেন্টিমিটার, মধ্য মেয়াদী জাতের আমন ধানের ক্ষেত্রে সারি থেকে সারির মধ্যে ২০ সেন্টিমিটার এবং গাছেদের মধ্যে ১৫ সেন্টিমিটার, দীর্ঘ মেয়াদী জাতের আমন ধানের ক্ষেত্রে  সারি থেকে সারির মধ্যে ২০ সেন্টিমিটার এবং গাছেদের মধ্যে ২ সেন্টিমিটার দূরত্ব বজায় রাখুন।

আউশ ধানের জন্য সারি থেকে সারির মধ্যে ২০ সেন্টিমিটার এবং গাছেদের মধ্যে ১০ সেন্টিমিটার দূরত্ব বজায় রাখুন।

চারা প্রতিস্থাপনের পর ব্যবস্থাপনা -

সারের প্রয়োগ: দয়া করে চারা রোপণের ১৫ দিনের পর একর পিছু ৩২ কেজি ইউরিয়া প্রয়োগ করুন।

আগাছা নিয়ন্ত্রন:  চারা রোপণের ১৫ দিন পর  ঘূর্ণায়মান আগাছানাশক ব্যবহার করে বা হস্তকৃত পদ্ধতিতে আগাছা নির্গমন করুন। অথবা চারা রোপণের ৮-১০ দিনের মধ্যে এক লিটার বাটকলার 50% ই সি (Butachlor 50% EC) ২৫০ লিটার জলের সাথে মিশিয়ে স্প্রে করুন।

সারের প্রয়োগদয়া করে চারা রোপণের ২০-৩৫ দিনের পর একর পিছু ১৬ কেজি ইউরিয়া প্রয়োগ করুন।

আগাছা নিয়ন্ত্রন: চারা রোপণের ৩০ দিন পর ঘূর্ণায়মান আগাছানাশক ব্যবহার করে বা হস্তকৃত পদ্ধতিতে আগাছা নির্গমন করুন।

সেচ পরিকল্পনা:

যদি সময়মত বৃষ্টি না আসে তবে সেচের ব্যবস্থা করা উচিত। প্রয়োজন অনুযায়ী সেচ প্রতি ৭-১০ দিন অন্তর করা উচিত। ভাল ফলনের জন্য রোপণ করার সময় থেকে ফসল কাটার ১৫-২০ দিন আগে পর্যন্ত মাঠের মধ্যে স্থায়ীভাবে ২.৫ সেমি জল জমিয়ে রাখা নিশ্চিত করা উচিত।

কীট প্রতিরোধক ব্যবস্থাপনা :

সুস্থ এবং প্রতিরোধী প্রজাতির বীজের ব্যবহার কীট-পতঙ্গ এবং রোগ প্রতিরোধের সর্বোত্তম এবং কার্যকরী উপায়। এছাড়াও শস্য বা শিম্বগোত্রীয় এবং অন্যান্য সবুজ ফসলের সাথে পর্যায়ক্রমিক ভাবে ধানের চাষ করলে কীটপতঙ্গ সমস্যা কমাতে সহায়তা করে। কীট-পতঙ্গ শিকারী, যেমন ট্রিকোগ্রামমা (Trichogramma) ব্যবহার করতে পারেন।

কীটপতঙ্গ পর্যবেক্ষণ: আপনার ফসলে কীটপতঙ্গ এবং রোগের উপস্থিতি পরীক্ষা করতে কৃষিজমি পর্যবেক্ষণ করুন। কীটপতঙ্গের গতিবিধি পর্যবেক্ষণের জন্য একর প্রতি ৩টি ফেরোমন ট্র্যাপ (ফাঁদ) লাগান। ফলনের সময় ২৫ থেকে ৩০ দিন অন্তর টোপ পরিবর্তন করুন।

কীট প্রতিরোধক ব্যবস্থাপনা :

দয়া করে স্টেম বোরার, গ্রীন লিফ হপার, লিফ ফোল্ডার, বিপিএইচ প্রভৃতি কীটপতঙ্গের উপস্থিতির জন্য আপনার খামার পর্যবেক্ষণ করুন এবং প্রয়োজন অনুসারে নিয়ন্ত্রণের জন্য ফসলে স্প্রে করুন ২.৫-৩ মিলি/লিটার নিম তেল (Neam Oil 1500 PPM) অথবা ২-৩ মিলি/লিটার প্রোফেনফোস 50EC (Profenophos 50EC) অথবা ২৭ মিলিমিটার কুইনালফোস (Quinalphos) ১৮ লিটার জলে মিশিয়ে বা ২-২.৫ মিলি/লিটার সিপিপি (CPP) প্রয়োগ করতে পারেন।

রোগ প্রতিরোধক ব্যবস্থাপনা:

দয়া করে স্টেম রট, ব্রাউন স্পট, ব্যাকটেরিয়াল লাইট, শেথ ব্লাইটের মতো রোগের উপসর্গের জন্য জমি পরিদর্শন করুন, প্রয়োজনবোধে ১৮ লিটার জলে ৫ গ্রাম এগ্রিমিচিন 100 মিশিয়ে স্প্রে করুন এবং ধানের শীষ গঠনের আগে পুনরাবৃত্তি করুন।  অথবা হেক্সাকোনজোল 5 ইসি (Hexaconazol 5 EC) ১-১.২৫ মিলি/লি অথবা থিওফানতে-মিথাইল 70% WP (Thiophanate-methyl 70%WP) ১-১.২৫ গ্রাম / লি বা কার্বেন্ডেজিম 50% WP (Carbendazim 50%WP) ১-১.২৫ গ্রাম / লি প্রতি একর পিছু ফসলে প্রয়োগ করুন। 

কীট প্রতিরোধক ব্যবস্থাপনা:

দয়া করে স্টেম বোরর বা মাজরা পোকা, রাইস হেস্পা, লিফ ফোল্ডার, আর্মি ওয়ার্ম, গান্ধি পোকা প্রভৃতি কীটপতঙ্গের উপস্থিতির জন্য আপনার খামার পর্যবেক্ষণ করুন এবং প্রয়োজন অনুসারে নিয়ন্ত্রণের জন্য ফসলে স্প্রে করুন প্রোফেনফোস 50 ইসি (Profenophos 50 EC) ২-৩ মিলি/লি অথবা কুইনালফোস  (Quinalphos) ২.৫-৩ মিলি/লি অথবা ক্লোরপিরিফোস (clorpyriphos) ২-২.৫ মিলি/লি অথবা এসিফেট (Acephate) ২-৩ গ্রাম/লি বা লম্বডা সাইহোলথ্রিনিন 5 ইসি (Lambda cyholothrin 5 EC) ০.৫-১ মিলি/লি ।

জল নিকাশি ব্যবস্থাপনা: বপনের ১১০ দিনের পরবর্তী সময়ে মাঠ শুকনো রাখতে সময় মতো অতিরিক্ত জল নিষ্কাশন করুন।

ফসল কাটা: ৮০-৮৫% শস্য পরিপক্ক হওয়ার সাথে সাথেই, অনুগ্রহ করে সূর্যালোকিত দিনে ফসল কেটে ফেলার ব্যবস্থা করুন।

সৈকত মান্না

Image Source - Google

Related Link - পি এম কিষাণ যোজনার অন্তর্ভুক্ত কৃষকদের (Rs. 15,000/ Provision- PM Kisan Yojana) সরকার কর্তৃক ১৫০০০ টাকা প্রদান

গ্রাম হোক বা শহর নামমাত্র বিনিয়োগে শুরু করুন এই ব্যবসা (Nominal investment, huge profit), মুনাফা হবে প্রচুর

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters