Stihl India Mahindra Tractors

অতি সাধারন ফুল,ফোঁটে সকলের বাড়িতেই,কিন্তু বানিজ্যক সম্ভবনা কতটা দোপাটি ফুলের

দোপাটি ফুলের গাছ বাংলার প্রায় প্রত্যেকটি বাড়িতেই দেখা যায়। এ ফুলের চাষপদ্ধতি খুব সহজ এবং প্রচুর ফুল ফোটে। সব ঋতুতেই এ গাছ জন্মায়। তবে বষার্য় এই ফুলের আকারে অনেক বড় ও সুন্দর হয়।

KJ Staff
KJ Staff
দোপাটি ফুলের চাষ কি লাভজনক? Photo Credit:Plague

কৃষিজাগরন ডেস্কঃ দোপাটি ফুলের গাছ বাংলার প্রায় প্রত্যেকটি বাড়িতেই দেখা যায়। এ ফুলের চাষপদ্ধতি খুব সহজ এবং প্রচুর ফুল ফোটে। সব ঋতুতেই এ গাছ জন্মায়। তবে বষার্য় এই ফুলের আকারে অনেক বড় ও সুন্দর হয়।

দোপাটি ফুলের বৈশিষ্ট্য

দোপাটি গাছের উচ্চতা ১.৫০-২ ফুট বা ৪৫-৬০ সেমিটারের মতো লম্বা হয়। এর কান্ড খুব নরম এবং গাছ বেশ ঝোঁপালো হয়। এর ফুল সাদা, লাল, বেগুনি, গোলাপি প্রভৃতি রঙের হয়ে থাকে। ফুল সিঙ্গল ও ডাবল হয়। ফুল বর্ডারের জন্য বিশেষ উপযোগী। দোপাটি ফুলের পাপড়ি সাধারণত বাইরের দিকে খোলা থাকে। দোপাটি ফুল সাধারনত সাদা,গোলাপি,বেগুণী,লাল,কমলা এবং মিশ্র রং এর হয়। এর পাপড়ি খুব নরম ও কোমল।

আরও পড়ুনঃ কম বিনিয়োগে বেশি লাভ! কোন ফুল চাষ করবেন? কসমস ফুলের নাম শুনেছেন

দোপাটি ফুলের উপকারিতা

দোপাটি ফুলের মূল শুকিয়ে গুঁড়ো করে ,তা মোটা ছালের মধ্যে পুরে চুরুট হিসেবে বানিয়ে খেলে শ্বাসকষ্টের সমস্যার সমাধান হয়। যাঁদের ক্রনিক অ্যাজমা রয়েছে তাঁরাও উপকার পাবেন। বার বার জ্বর হলে কিংবা মরশুমি সর্দি-কাশিতেও কিন্তু কাজে লাগে এই দোপাটি ফুল।তবে ব্যবহারের আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

আরও পড়ুনঃ বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিউলিপ বাগান কোথায় আছে জানেন?কত ফুল ফোঁটে জানলে অবাক হবেন

দোপাটি ফুলের চাষ

দোপাটি ফুল চাষের জমি উর্বর, উঁচু, শুষ্ক ও সহজে জল নিষ্কাশন করা যায় এমন জমিই উত্তম। দক্ষিণ খোলা উর্বর হালকা দোআঁশ মাটি দোপাটি ফুলের চাষে উপযোগী। তবে এটেল মাটি আরো ভালো।

  • নির্বাচিত জমির মাটিকে লাঙ্গল বা কোদাল দিয়ে ঝুরঝুরে করতে হবে ।

  • আগাছা, ইট, পাটকেল, পাথর, আবর্জনা ইত্যাদি পরিষ্কার করে প্রতি ১০০ মিটারে ২০০ কেজি পাতা পচা সার বা গোবর সার, ৬-১০ কেজি কাঠের ছাই, ২-৩ কেজি এস এস পি সার মাটিতে মিশিয়ে দিতে হবে।

  • এটেল মাটির জমিতে চাষের সময় সামান্য চুন মেশাতে হবে যা দো-আঁশ মাটিতে দরকার হবে না। মাটি শোধণের জন্যে সমগ্র মাটিতেই ৩০ গ্রাম অলড্রিন এবং ২৫০ গ্রাম ব্রাসিকল এবং সামান্য গুড়া সারের সাথে মিশিয়ে দিতে হবে।

  • এই অবস্থায় মাটি সমতল করে ৩ থেকে ৪ সেঃ মিঃ বীজের ও ৪-৫ টি পাতার কলমের চারা রোপনের ব্যবস্থা করতে হবে।

দোপাটি ফুল কখন ফোটে

জুলাই-আগস্ট মাসে অর্থাৎ চারা লাগানো ২-৩ মাসের মধ্যেই দোপাটির গাছে ফুলে ফুলে ভরে ওঠে।তবে সেই ফুল বাণিজ্যিক ভাবে তেমন কাজে আসে না। বাড়ির সৌন্দর্য বাড়াতে এই ফুল ব্যবহার করা যেতে পারে।তবে বাণিজ্যিক ভাবে বিক্রির জন্য তিন থেকে চার মাস সময় দিতে হবে।

Published On: 19 January 2024, 06:21 PM English Summary: Very common flower, drops in everyone's house, but the commercial potential of Dopati flower

Like this article?

Hey! I am KJ Staff . Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters