Farm Sector is at peak stage: দেশের জাতীয় অর্থনীতিতে কৃষিক্ষেত্রের ব্যাপক উন্নতি ঘটছে

রায়না ঘোষ
রায়না ঘোষ
Farming (image credit- Google)
Farming (image credit- Google)

ভারতের কৃষিকাজ আবারও বিকশিত হওয়ার সাথে সাথে, দেশের কৃষি শিল্প (Agriculture industry)জাতীয় অর্থনীতিতে আবার কেন্দ্রীয় পর্যায়ে ফিরে এসেছে। দেশব্যাপী লকডাউন এবং স্থানীয় বিধিনিষেধের সময় যখন শিল্প ও পরিষেবাগুলি উল্লেখযোগ্যভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ঠিক তখনি দেশের কৃষিকাজ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে ও ব্যাপকভাবে সাফল্য পেয়েছে |

আইসিআরএ (ICRA )রেটিং এজেন্সির একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ২০২০ সালের খরিফ চাষের (kharif crop)জমির পরিমান প্রায় ৭৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে এবং প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ২০১৯ সালে  খরিফ মৌসুমের একই সময়ে রেকর্ডকৃত বপনের জমির পরিমান প্রায় ৯.৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে | ICRA  জানিয়েছে, আশা করা যায় চলতি খরিফ মৌসুমে ২০২০ মৌসুমের রেকর্ড উচ্চতার সাক্ষী হয়ে এগিয়ে আসবে | কৃষি খাত মহামারী দ্বারা সৃষ্ট বিপর্যয় থেকে মুক্ত বলেই  আশা করা হচ্ছে।

কোন কোন কৃষিখাতে কতটা উন্নতি হয়েছে?

বাণিজ্য ও শিল্প প্রতিমন্ত্রী অনুপ্রিয়া প্যাটেল ২৮ জুলাই,২০২১ সংসদে জানিয়েছেন, গম (৭৭৫.০৩  শতাংশ), নন-বাসমতি চাল (১৩৬.৩ শতাংশ), উদ্ভিজ্জ তেল (২৫৪.৯৪ শতাংশ), অন্যান্য সিরিয়াল (২৩৮.৫৭ শতাংশ), তেলের খাবার (৯০.৩১ শতাংশ) রপ্তানিতে রেকর্ড বৃদ্ধি হয়েছে এবং তুলা (৭৯.৪৩ শতাংশ) বৃদ্ধি পেয়েছে | গত ৫ বছরে খাদ্যশস্যের উৎপাদনও বেড়েছে। মোট খাদ্যশস্য উৎপাদন ২০১৬-১৭ সালে ২৭৫.১১ মিলিয়ন টন থেকে বেড়ে গত অর্থবছর ২০২০-২১ -তে ৩০৫.৪৪ মিলিয়ন টন হয়েছে।

আরও পড়ুন - Weather Update: দক্ষিণবঙ্গে আজও বৃষ্টির পূর্বাভাস, রবিবার থেকে বৃষ্টি কমার সম্ভাবনা

শিল্প ও সেবা খাত অর্থনীতিতে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখলেও সামগ্রিক মোট মূল্য সংযোজন (GVA) -এ কৃষি খাতের অবদান বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১৮-১৯ সালে ১৭.৬ শতাংশ থেকে, খামার খাত এখন ভারতের GVA এর ২০.২ শতাংশ। খামার খাত গত ২ আর্থিক বছরে ভারতের সামগ্রিক প্রবৃদ্ধিকে ছাড়িয়ে গেছে। ২০১৯-২০ সালে ভারতের GVA প্রবৃদ্ধি ছিল ৪.১  শতাংশ এবং কৃষির ৪.৩ শতাংশ। ২০২০-২১ মহামারীতে, ভারতের GVA প্রবৃদ্ধি ছিল ৬.৫ শতাংশ এবং কৃষির ধ্রুবক মূল্যে ৩ শতাংশ ছিল।

মহামারীর এই চরম সময়ে কৃষিক্ষেত্রে উন্নতি সত্যি অসাধারণ | এতে যেমন দেশের অর্থনীতি আরও উন্নতি হচ্ছে সাথে কৃষকদেরও আর্থিক অবস্থার পরিবর্তন ঘটছে |

অর্থনীতি উত্তোলনের পাশাপাশি, কৃষিখাত লকডাউনের সময় শ্রমিকদের বিপরীত স্থানান্তরের ধাক্কা কিছুটা শোষণে অবদান রাখে। আরবিআই তার সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদনে বলেছে, "প্রধানমন্ত্রীর গরিব কল্যাণ যোজনা শ্রমিকদের স্থানচ্যুতি পরিচালনায় নিরাপত্তার ভূমিকা পালন করেছে, যা এমএনআরইজিএ(MNREGA )র অধীনে দেওয়া কর্মসংস্থান দ্বারা পরিপূরক।" কৃষি অবকাঠামো তহবিলের আওতায় বিভিন্ন উদ্যোগের মাধ্যমে কৃষি খাতে সরাসরি উন্নতিও দেওয়া হয়েছিল।

আরও পড়ুন: Dhyan Chand Khel Ratna Award: রাজীব গান্ধী নয়, এবার থেকে ধ্যান চাঁদ খেল রত্ন পুরস্কার পাবেন ক্রীড়াবিদরা

Like this article?

Hey! I am রায়না ঘোষ . Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters