আপেল চাষের ক্ষেত্রে বর্ষাকালে (Monsoon Special Cultivation) যে বিষয়গুলি মাথায় রাখতেই হবে

KJ Staff
KJ Staff

আপেল, মূলত তার মিষ্টি স্বাদের জন্য সমাদৃত এবং সমগ্র বিশ্বব্যাপী এর চাষ (Apple Cultivation) হয়ে থাকে৷ তবে আপেলের উৎপত্তিস্থল হিসেবে মনে করা হয় মধ্য এশিয়াকে৷ সবচেয়ে বেশি চাষ হয় যে প্রজাতিটির তা হল জেনাস ম্যালুস (genus Malus).

আপেলের পুষ্টিগুন প্রচুর৷ এতে রয়েছে, চিনি, ফাইবার, চর্বি, ক্যারোটিন, খাদ্যশক্তি, শর্করা লুটেইন, থায়ামিন, রিবোফ্লেভিন, নিয়াসিন, ফোলেট, আমিষ, জলীয় অংশ, ভিটামিন ই, ভিটামিন কে, ভিটামিন এভিটামিন সি, ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম, সোডিয়াম, জিংক, ফ্লোরাইড, ম্যাঙ্গানিজ, ফসফরাস, ক্যালসিয়াম, আয়রন প্রভৃতি উপাদান৷

আপেল আমাদের ওজন নিয়ন্ত্রণে (Weight Loss) সাহায্য করে যেমন, তেমনই বিভিন্ন ধরণের ক্যান্সারকেও শরীর থেকে দূরে রাখে৷ পেটের সমস্যা কমায়, লিভার পরিষ্কার করতে সাহায্য করে, দৃষ্টিশক্তি উন্নত করে, ভিটামিনে ভরপুর হওয়ায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা (Immunity Power) বৃদ্ধি করে৷ হাড়ের শক্তি বাড়ায়, রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে৷ এছাড়া ত্বককে সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির হাত থেকে রক্ষা করে, বলিরেখা পড়া রুখতে সহায়তা করে এবং ঔজ্জ্বল্য বৃদ্ধি করে৷ পাশাপাশি চুলের স্বাস্থ্যও ভালো রাখে৷ খুশকি পড়ার হ্রাস করে৷

আপেলের পুষ্টিগুন (Nutritional Value of Apple), এর উপকারিতাই এর চাহিদা ধরে রেখেছে৷ আর সে কারণেই এর চাষ উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেয়েছে৷ তবে এই চাষের ক্ষেত্রে বেশ কিছু বিষয় মাথায় রাখতেই হয়৷ উদাহরণস্বরূপ হিমাচলপ্রদেশের কথা উল্লেখ করতে হয়৷

এখানে বেশিরভাগ মানুষের জীবনযাত্রার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে কৃষিকাজ৷ আর এর মধ্যে অন্যতম হল আপেল চাষ৷ প্রায় ৪,০০০ কোটি টাকার উপার্জন হয় এই আপেল থেকেই৷

সম্প্রতি, Rohru, প্লান্ট হেলথ ক্লিনিকের একটি মাইক্রোগ্রাফ Venturia inaequalis (Scab)-এর ঘটনা তুলে ধরেছে৷ কোটখাই, নারকান্দা, কিন্নৌর, অনি এবং নিরমান্দ এলাকা থেকেও এমন ঘটনার কথা উঠে এসেছে, যেখানে আপেলের বিশেষ রোগের কথা বলা হয়েছে৷

বর্ষায় (#Monsoon2020) আপেল চাষের ক্ষেত্রে কিছু বিষয় তাই তুলে ধরা হয়েছে৷ রোগের হাত থেকে আপেল গাছকে রক্ষা করতে কী স্প্রে করতে হবে তা জানানো হয়েছে৷

আপেলের ফেনোলজিকাল স্টেজ- ফ্রুট ডেভেলপমেন্ট (ওয়ালনাট স্টেজ)/ জুন মাস

পরিমাণ (Quantity)- ২০০ লিটার জলে 

ছত্রাকনাশক- ম্যানকোজেব ৬০০ গ্রাম

প্রোপিনেব- ৬০০ গ্রাম

ডোডিন- ১৫০ গ্রাম

মেটিরাম + পাইরাক্লসট্রোবিন ৫%WG- ৩০০ গ্রাম

টেবুকোনাজোল ৮% + কাপ্তান ৩২%এসসি or- ৫০০ এমএল

উল্লেখ্য রাজ্যে সাগরদিঘীর মতো দু একটি স্থানে আপেল চাষের উদ্যোগের কথা জানতে পারা যায়৷ আপেল চাষে অনেকে আগ্রহ প্রকাশ করলেও চাষকে লাভজনক করতে উপরোক্ত বিষয়গুলি মাথায় রাখতেই হবে৷

 

বর্ষা চ্যাটার্জি

সূত্র: http://www.yspuniversity.ac.in/univ-orders/dr518.pdf

আরও পড়ুন- 

ফসলে অনুখাদ্য এবং পুষ্টির অভাব জনিত রোগের লক্ষণ

Like this article?

Hey! I am KJ Staff. Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters