MFOI 2024 Road Show

২ লক্ষ ৪০ হাজার হেক্টর জমিতে বিকল্প চাষের পরিকল্পনা রাজ্যের

বৃষ্টির অভাবে ধান চাষে তেমন সুবিধে করতে পারছেন না রাজ্যের কৃষকরা। অগস্টে ভাল বৃষ্টি হলেও ধানের বীজতলা তৈরির সময়

KJ Staff
KJ Staff

কৃষিজাগরন ডেস্কঃ বৃষ্টির অভাবে ধান চাষে তেমন সুবিধে করতে পারছেন না রাজ্যের কৃষকরা। অগস্টে ভাল বৃষ্টি হলেও ধানের বীজতলা তৈরির সময় সেভাবে বৃষ্টি হয়নি। তাই ধান চাষে জলের অভাবে হা-পিত্যেশ করছেন চাষিরা। এই পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকার ধানের বিমা করানোর সময়সী আরও বাড়াল।৩১ অগস্ট পর্যন্ত বিমা করানোর সময় ছিল। তা বাড়িয়ে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত করা হয়েছে।

গত বছর থেকেই বৃষ্টির ঘাটতিতে ব্যাহত হচ্ছে আমন চাষ।আষাঢ় কেটেছে প্রায় বৃষ্টিহীন। শ্রাবণের প্রথমেও জেলায় জেলায় কমবেশি বৃষ্টির ঘাটতি ছিল ৬৩ শতাংশ। বৃষ্টির অভাবে আমন চাষ সব থেকে বেশি ব্যাহত হয়েছে। এবার খরিফ মরসুমেও সেভাবে চাষ করা সম্ভব হচ্ছে না।

আরও পড়ুনঃ কেন G20 কৃষকদের জন্য এত গুরুত্বপূর্ন?

এই পরিস্থিতিতে ক্ষতি মেটাতে চাষিদের বাংলার শস্যবিমায় আবেদনে জোর দিচ্ছে কৃষি দফতর।বাংলার শস্যবিমা যোজনায় চাষিদের নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য প্রচার শুরু করেছে দফতর। সূত্রের খবর, বীজতলা নষ্ট হলে শতক প্রতি সত্তর টাকা ক্ষতিপূরণ মিলবে।

আরও পড়ুনঃ কেন সরকার খরিফ মরসুমে চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা বাড়িয়েছে?

সূত্রের খবর ২ লক্ষ ৪০ হাজার হেক্টর জমিতে বিকল্প চাষের পরিকল্পনা করা হয়েছে। এই ধরণের চাষের জন্য খুব কম জল লাগে। তাই বিনিয়োগে ভাল আয় হতে পারে এই সব ফসলে। ক্ষতিগ্রস্ত জমির মালিকদের বিনামূল্যে বীজ দেওয়া হবে।

Published On: 04 September 2023, 04:21 PM English Summary: The state has plans for alternative farming in 2 lakh 40 thousand hectares of land

Like this article?

Hey! I am KJ Staff . Did you liked this article and have suggestions to improve this article? Mail me your suggestions and feedback.

Share your comments

আমাদের নিউজলেটার অপশনটি সাবস্ক্রাইব করুন আর আপনার আগ্রহের বিষয়গুলি বেছে নিন। আমরা আপনার পছন্দ অনুসারে খবর এবং সর্বশেষ আপডেটগুলি প্রেরণ করব।

Subscribe Newsletters