পঙ্গপালের আক্রমণে (locust attack) সতর্কতা জারি এই রাজ্যগুলিতে

Wednesday, 03 June 2020 04:12 AM

রাজস্থান, মধ্য প্রদেশ, গুজরাট, মহারাষ্ট্র, উত্তর প্রদেশের সোনভদ্রা এবং ছত্তিসগড়ে ফসল ধ্বংসের পর, পঙ্গপালের দল এগিয়ে চলেছে দিকে ঝাড়খণ্ডের দিকে। প্রতিবেশী রাজ্য বিহার, ছত্তিশগড় এবং ঝাড়খণ্ডের কৃষি বিভাগ রাজ্যের সর্বত্র ২৪ টি জেলা জুড়ে উচ্চ সতর্কতা জারি করেছে এবং আসন্ন এই বিপদের মোকাবেলায় রাজ্য, জেলা ও ব্লক স্তরের টাস্ক ফোর্স গঠন করেছে।

ঝাড়খণ্ডের ছত্তিশগড় ও বিহারের সাথে সীমান্তবর্তী জেলাগুলি, গড়ওয়া, লাটেহার, গুমলা, দেওঘর, ছত্র, গিরিডি এবং গোড্ডা পঙ্গপালের আক্রমণের ক্ষেত্রে বেশী ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চল বলে অভিহিত হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।

রাজ্য কৃষি বিভাগ থেকে সতর্কতার আলোকে কয়েকটি জেলা নির্দেশিকা জারি করেছে। পঙ্গপাল নিয়ে গাইডলাইন জারি করা প্রথম জেলা গড়ওয়া।

গড়ওয়ার কৃষি কর্মকর্তা লক্ষ্মণ ওরাওন বলেন, 'পঙ্গপালের দল ছত্তিশগড়ে প্রবেশ করেছে এবং ঝাড়খণ্ড থেকে এটি এখন ২৫০ মিলিয়ন কিলোমিটার দূরে রয়েছে বলে তা অনুমান করা হয়েছে। যেহেতু এই দল এক দিনে ২০০ কিলোমিটার অবধি যাত্রা করতে পারে, তাই পরিস্থিতি মোকাবেলায় সমস্তরকম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি’।

তিনি আরও জানিয়েছেন যে, ঝাড়খণ্ডে পঙ্গপাল দ্বারা আক্রমণের সম্ভবনা প্রথমে ছিল না। পঙ্গপালের চলাচল বাতাসের ধরণের উপর নির্ভর করে। বাতাসের অভিমুখ পরিবর্তনে এর গতিপথেরও পরিবর্তন ঘটছে। তাই পঙ্গপালের ঝাঁক আকস্মিক দিক পরিবর্তন করাতে, তা নিয়ে তারা উদ্বিগ্ন। 

প্রবীণ এক কৃষি বিজ্ঞানী বলেছেন, 'পঙ্গপালের দল রাজস্থান, মধ্য প্রদেশ, উত্তর প্রদেশের বেশ কয়েকটি জেলায় আক্রমণ করেছে। এটি এখন বিহার এবং ঝাড়খণ্ড সীমান্তবর্তী রাজ্যে প্রবেশ করতে পারে। আমরা আশা করছি, এটি ঝাড়খণ্ডে পৌঁছাবে না। তবে আমরা জানি যে এর গতিপথ বায়ুর প্যাটার্নের উপর নির্ভর করে, সুতরাং, আমাদের সতর্ক হওয়া উচিত।

বায়ুর গতিপথের উপর এর গতিপথ নির্ভর করায় এখনই পশ্চিমবঙ্গে এর আক্রমণের সম্ভবনা না থাকলেও আশঙ্কায় রয়েছেন কৃষিবিদরা। যেভাবে এই পঙ্গপালের দল ফসলের ক্ষতি করে চলেছে, তা অচিরেই বিনাশ করতে তৎপর হয়েছেন তারা।

তিনি আরও বলেন, একটি জলাভূমিতে প্রায় দেড় কোটি থেকে দুই কোটি পঙ্গপাল রয়েছে এবং এটি বাতাসের গতিবেগের উপর নির্ভর করে ২০০ কিলোমিটার অবধি ভ্রমণ করতে পারে এবং ৩৫,০০০ মানুষের খাবার খেতে পারে।

দেওঘর জেলায় সরকার বিগত শনিবার কৃষকদের সহায়তা করার জন্য পঙ্গপাল সম্পর্কে বিস্তারিত গাইডলাইন এবং একটি টোল ফ্রি নম্বর ১৮০০-১৮০-১৫৫১ জারি করেছে সরকার। গাইডলাইনে পঙ্গপাল দূরে রাখতে কি কীটনাশক ব্যবহার করতে হবে এবং তার পরিমাণ সম্পর্কেও উল্লেখ করা হয়েছে।  

গত মাসে ঝাড়খন্ডের লোহারদাগা বন বিভাগ একটি গবেষণা করে এবং রাজ্যে সম্ভাব্য পঙ্গপাল আক্রমণের পূর্বাভাস দেয়। বিভাগীয় কর্মকর্তারা বলেছিলেন যে, বন ও খামারের জমিতে থাকা উদ্ভিদের যথেষ্ট ঝুঁকি রয়েছে।

সমীক্ষায় দেখা গেছে, আর্দ্র আবহাওয়ার কারণে পঙ্গপালের জনসংখ্যা অভূতপূর্বভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। এগুলি ফসলের অনেক ক্ষতি করছে। সরকার কৃষকদের সাহায্যার্থে লোকাস্ট নিয়ন্ত্রণে জরুরি পদক্ষেপ নিয়েছে এবং বিভিন্ন পদ্ধতিতে এই পঙ্গপাল দমন করে চলেছে।

Related Link - https://bengali.krishijagran.com/news/prime-minister-narendra-modi-promises-support-to-states-affected-by-locust-attack/

https://bengali.krishijagran.com/news/the-countrys-worst-locust-attack-high-alert-in-many-states/

https://bengali.krishijagran.com/news/locust-attack-on-indian-agriculture/

https://bengali.krishijagran.com/news/to-control-the-locusts-government-are-planning-to-using-drones/

English Summary: Issued alert - These states are become vulnerable for locust attack


Krishi Jagran Bengali Magazine Subscription Subscribe Online

Download Krishi Jagran Mobile App

Helo App Krishi Jagran Monsoon 2020 update

CopyRight - 2018 Krishi Jagran Media Group. All Rights Reserved.